আসছে ‘দ্য হিটম্যানস বডিগার্ড’



বেশ অনেক দিন ধরেই ভালো করে ঘুমোতে পারছেন না রায়ান রেনল্ডস। ঘুমোতে পারছেন না এটা না বলে আসলে বলা ভালো ঘুমোনোর সময় পাচ্ছেন না। এত ব্যস্ততার ফাঁকে কি আর ঘুমানো যায়? এমনই বিধ্বস্ত অবস্থা যে দুপুরের খাবার চিবোতে গেলেও তাঁর কষ্ট হচ্ছে! এত ব্যস্ততা কী নিয়ে? আগামীকালই যে মুক্তি পাচ্ছে স্যামুয়েল এল জ্যাকসন, সালমা হায়েক আর গ্যারি ওল্ডম্যানের সঙ্গে তাঁর বহুল প্রতীক্ষিত চলচ্চিত্র দ্য হিটম্যানস বডিগার্ড।

দ্য হিটম্যানস বডিগার্ড ছবির দৃশ্যদ্য হিটম্যানস বডিগার্ড, নামটা শুনলেই ছবির গল্প সম্পর্কে কিছুটা ধারণা পাওয়া যায়। স্যামুয়েল এল জ্যাকসন কুখ্যাত হিটম্যান, টাকার বিনিময়ে মানুষ খুন করাই যার পেশা। আর রায়ান রেনল্ডস নামীদামি মানুষের পেশাদার বডিগার্ড হিসেবে কাজ করেন, সোজা কথায় তাদের হিটম্যানের গুলির আওতা থেকে বাঁচানোই তাঁর কাজ। অর্থাৎ একজন অস্ত্র হাতে খুন করে, আরেকজন ঠিক সেই অস্ত্র দিয়েই রক্ষা করে। গোলটা বাঁধে তখনই, যখন এই পেশাদার বডিগার্ডকে নিযুক্ত করা হয় একজন স্বৈরশাসকের কবল থেকে কুখ্যাত হিটম্যানের জীবন বাঁচানোর জন্য, যেই হিটম্যান কিনা আবার বডিগার্ডের বহু দিনের পুরোনো শত্রু। সঙ্গে আরও আছে হিটম্যানের সুন্দরী স্ত্রী সালমা হায়েক, যে নিজেও সমানভাবে বিপজ্জনক।

দামি গাড়ি আর সমুদ্রযান নিয়ে ধাওয়া-পালটাধাওয়া, খানিক পরপর বন্দুকের ঠা ঠা গুলিবর্ষণ, খালি হাতে মারামারি, দাঙ্গাবাজ নায়ক আর খলনায়ক; পরিপূর্ণ অ্যাকশন ছবির সব মালমসলাই পাবেন ১১৮ মিনিটের এই ছবিতে। সঙ্গে উপরি পাওনা হিসেবে থাকছে রায়ান রেনন্ডস আর স্যামুয়েল এল জ্যাকসনের হাস্যরসাত্মক অভিনয়। তাই দ্য হিটম্যানস বডিগার্ডকে বলাই যায় একদম খাঁটি, আদি ও আসল অ্যাকশন কমেডি! এই ছবিটি দিয়েই প্রথম জুটি বাঁধলেন রায়ান রেনন্ডস আর স্যামুয়েল এল জ্যাকসন। এর আগে অ্যানিমেশন সিনেমা টার্বোতে দুজন একসঙ্গে কণ্ঠ দিয়েছিলেন, কিন্তু একসঙ্গে ক্যামেরার সামনে দাঁড়ালেন এবারই প্রথম। ১২ বছর ধরে স্যামুয়েলকে চেনেন রায়ান, অনেক দিন ধরেই বড় পর্দার ডেড পুল সুযোগ খুঁজছিলেন আরেক সুপারহিরো ‘নিক ফিউরি’র সঙ্গে কাজ করার। তাই এবার ব্যাটে-বলে মিলে যাওয়ায় আর দেরি হয়নি, স্যামুয়েল ছবিতে আছেন শুনেই এককথায় রাজি হয়ে যান রায়ান রেনল্ডস। ছবিটির শুটিংয়ে এরই মধ্যে ভালো খাতির জমে গেছে সবার। এই তো কয়েক দিন আগে রায়ানের বাড়িতে রাতের দাওয়াতেও গিয়েছিলেন ছবির আরেক কুশলী সালমা হায়েক। সেখানে তিনি রান্না করেছেন, রায়ানের মেয়ের দেখভাল করেছেন। সেই ছবিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভালো সাড়া ফেলেছিল।

দ্য হিটম্যানস বডিগার্ড পরিচালনা করেছেন অস্ট্রেলিয়ান পরিচালক প্যাট্রিক হিউজ। আর চিত্রনাট্য লিখেছেন টিম ও’কনর। ছবিটির শুটিং হয়েছে লন্ডন, সোফিয়া ও আমস্টারডামে। আমস্টারডামে শুটিংয়ের সময় ছবির গাড়ি নিয়ে ধাওয়ার একটি দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছিল, যার কারণে ছবির কাহিনিতে পরে পরিবর্তন আনা হয়।

মুক্তির আগেই বিশেষ শোতে বেশ কিছু দর্শক ছবিটি দেখার সুযোগ পেয়েছেন, যাঁরা একবাক্যে এখনই হিটম্যান আর বডিগার্ডের প্রশংসায় পঞ্চমুখ! ছবিটি এখনো মুক্তি না পেলেও সিক্যুয়েল নিয়ে আলাপ শুরু হয়ে গেছে এরই মধ্যে।