ছাড় দিয়ে হলেও লন্ডনে লাইসেন্স বাঁচাতে চায় উবার

 


মার্কিন অ্যাপ ভিত্তিক ট্যাক্সি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান উবার লন্ডন পরিবহন কর্তৃপক্ষের সাথে ছাড় দিয়েও দেশটিতে তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যেতে চায় বলে ইঙ্গিত দিয়েছে। গত সপ্তাহে লন্ডন পরিবহন কর্তৃপক্ষ উবারের লাইসেন্স আর নবায়ন করবেনা ঘোষণা দেওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে প্রতিষ্ঠানটি এমন পরিকলপনা করেছে বলে জানা গেছে।


আর লাইসেন্স নবায়ন না করা ঘোষণা দেওয়ার পরেই এই লাইসেন্স বাতিল আদেশকে প্রত্যাহার করতে পাঁচ লাখ মানুষ পিটিশনে স্বাক্ষর করে। উবার লন্ডন নামে দায়ের করা ওই পিটিশনে বলা হয়, ‘গ্রাহকদের পছন্দকে আটকাতে কিছু মানুষের জন্য ট্রান্সপোর্ট ফর লন্ডন এবং তাদের চেয়ারম্যান, মেয়র উবার অ্যাপকে নিষিদ্ধ করতে চাচ্ছে। এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়িত হলে লন্ডনের প্রায় ৪০ হাজার লাইসেন্সকৃত গাড়িচালক বেকার হয়ে পড়বে। তাছাড়া লন্ডনের অধিবাসীরাও শহরে যাতায়াত করতে ঝামেলায় পড়বে। "

লন্ডনে উবারের জেনারেল ম্যানেজার টম এলভিজ দ্য সানডে টাইমস এ বলেন, আমরা লন্ডনে আমাদের লাইসেন্স ফিরে পেতে কি করতে পারি তা জানতে চাই। তবে এর জন্য অবশ্যই সংলাপের প্রয়োজন যা আমারা এখনও করতে পারিনি। ওই প্রতিবেদনে সূত্রের বরাত দিয়ে বলা হয় আরও বলা হয়, সম্ভাব্য সমাধানের জন্য উবারের সাথে আলোচনা করার পথটি পরিচালনা করতে পারে টিএফএল (ট্রান্সপোর্ট ফর লন্ডন)। এতে বলা হয়, যাত্রীদের নিরাপত্তা এবং চালকদের কর্মসংস্থানের সুবিধাগুলি সহ সম্ভাব্য ছুটির বেতনসহ কর্মঘণ্টায় সীমাবদ্ধ ছাড় দিতে পারে উবার। 

উল্লেখ্য লন্ডল রেগুলেটর এক বিবৃতিতে লাইসেন্স বাতিলের প্রধান চারটি কারণ উল্লেখ করেছে। এগুলো হলো: ট্যাক্সিতে অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে উবারের গাফিলতি, উবারের আওতায় থাকা গাড়ি চালকদের ভুয়া মেডিকেল সার্টিফিকেট, গাড়ি চালকের যথাযথ তথ্যে ঘাটতি এবং উবার অ্যাপে রেগুলেটরি অ্যাকসেস ব্লক করার জন্য বিতর্কিত গ্রেবল সফটওয়্যার ব্যবহার।

মার্কিন অ্যাপ ভিত্তিক ট্যাক্সি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান উবার লন্ডন পরিবহন কর্তৃপক্ষের সাথে ছাড় দিয়েও দেশটিতে তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যেতে চায় বলে ইঙ্গিত দিয়েছে। গত সপ্তাহে লন্ডন পরিবহন কর্তৃপক্ষ উবারের লাইসেন্স আর নবায়ন করবেনা ঘোষণা দেওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে প্রতিষ্ঠানটি এমন পরিকলপনা করেছে বলে জানা গেছে।