টাকা না পেলে টেলিটক মারা যাবে : ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী

Teletalk-will-die-if-he-does-not-get-the-money-State-Minister-for-Post-and-Telecommunications 

প্রধানমন্ত্রীর কথার পরেও অর্থ মন্ত্রণালয় টেলিটকের জন্য টাকার ছাড় করছে না।আর টাকা ছাড়া না করলে টেলিটক মারা যাবে বলেও বলেছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।বুধবার নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তারানা বলেন, একনেকের বৈঠকে পরপর দুইবার টেলিটকের ৬১০ কোটি টাকার একটি প্রকল্প উঠেছে। আর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুইবারই টেলিটকের পক্ষেই বলেছেন।


‘পরে প্রকল্পটি অনুমোদিতও হয়েছে। কিন্তু তারপরেও টাকা ছাড় করেনি অর্থ মন্ত্রণালয়।’- বলেন তারানা।তিনি বলেন, প্রধামন্ত্রীর কথার পরেও টাকা ছাড় করা হচ্ছে না।তারানা দাবি করেন, প্রধানমন্ত্রী টেলিটকের কাছে বিটিআরসির বকেয়া থাকা টাকাও সরকারের বিনিয়োগ হিসেবে ধরে নেওয়ার কথা বলেছেন।‘প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, টেলিটক সরকারের হয়ে সেবা দেয়। তারা কোনো অবস্থাতেই ব্যবসা করে না। সুতরাং অন্য সরকারি প্রতিষ্ঠানের মতো টেলিটককেও বাঁচিয়ে রাখতে হবে।’

টেলিটক ৬১০ কোটি টাকার যে প্রকল্প দিয়েছে তাতে আরও নতুন ১২০০ বিটিএস করার কথা অপারেটরটির। যেগুলো একই সঙ্গে থ্রিজি এবং ফোরজি সেবা দেওয়ার উপযুক্ত হবে। এর বাইরে আরও ৫০০ বিটিএস করার কথা অপারেটরটি।এদিকে বুধবারের সংবাদ সম্মেলনে তারানা হালিম বলেন, অন্যান্য অপারেটরের মতো টেলিটকও তৈরি হচ্ছে ফোরজি সেবা দেওয়ার জন্য।

ডিসেম্বরে যখন অন্য অপারেটর ফোরজি সেবা দেবে তখন তারাও ঢাকা এবং চট্টগ্রামে ফোরজি সেবা দিতে শুরু করবে বলে জানান তারানা।এর আগে থ্রিজির সময় টেলিটককে এক বছর আগে পরীক্ষামূলক বাণিজ্যিক কার্যক্রমের মাধ্যমে থ্রিজি সেবা দিতে শুরু করার অনুমোদন দেওয়া হলেও এবার সেটা হয়নি।

এর উত্তরে তারানা হালিম বলেন, টেলিটক প্রতিযোগিতা করে টিকে থাকবে। সরকারি অপারেটর বলে বাড়তি কোনো সুবিধা তাদেরকে দেওয়া হবে না।

প্রধানমন্ত্রীর কথার পরেও অর্থ মন্ত্রণালয় টেলিটকের জন্য টাকার ছাড় করছে না।আর টাকা ছাড়া না করলে টেলিটক মারা যাবে বলেও বলেছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।বুধবার নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তারানা বলেন, একনেকের বৈঠকে পরপর দুইবার টেলিটকের ৬১০ কোটি টাকার একটি প্রকল্প উঠেছে। আর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুইবারই টেলিটকের পক্ষেই বলেছেন।