ট্রাম্পের প্রেমের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন ব্রুক শিল্ডস

 

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছ থেকে একসময় প্রেমের প্রস্তাব পেয়েছিলেন হলিউড অভিনেত্রী ব্রুক শিল্ডস। কিন্তু তিনি তা ফিরিয়ে দেন।


‘ওয়াচ হোয়াট হ্যাপেন্স লাইভ উইথ অ্যান্ডি কোহেন’ অনুষ্ঠানে ব্রুক জানান, দ্বিতীয় স্ত্রী মার্লা ম্যাপলসের সঙ্গে বিয়েবিচ্ছেদের পর ট্রাম্প ফোন করেছিলেন তাকে। ৫২ বছর বয়সী এই তারকা বলেন, ‘একটি ছবির শুটিং করছিলাম তখন। বিয়েবিচ্ছেদের পর তিনি ফোন করে আমাকে বলেন— আমরা প্রেম করতে পারি! কারণ তুমি আমেরিকার সুইটহার্ট আর আমি আমেরিকার ধনী মানুষ। আমাদের কাছাকাছি দেখলে সবার ভালো লাগবে। তাকে জানালাম, আমার প্রেমিক আছে। এটা শুনে হতাশ হন তিনি।’

১৯৯২ সালে এক চ্যারিটি অনুষ্ঠানে প্রথমবার ব্রুক শিল্ডস ও ট্রাম্পের সাক্ষাৎ হয়। এর পাঁচ বছর পর ‘সাডেনলি সুসান’ টিভি সিরিজের সেটে আবার দেখা হয় তাদের।

ব্রুক শিল্ডসই প্রথম নন, এর আগে ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রেমের প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন মেক্সিকান সুন্দরী সালমা হায়েক, মার্কিন মডেল-অভিনেত্রী ক্যান্ডিস বার্গেন ও এমা থম্পসন।

আশির দশকে হলিউডে ‘দ্য ব্লু লেগুন’ (১৯৮০) ছবিতে অভিনয় করে দুনিয়াজোড়া খ্যাতি পান ব্রুক শিল্ডস। এর পরের বছর তার অভিনীত ‘এন্ডলেস লাভ’ও দর্শকপ্রিয়তা পায়। ব্যক্তিজীবনে তিনি টিভি অনুষ্ঠানের লেখক ক্রিস হেন্সির স্ত্রী। তাদের ঘরে আছে দুই মেয়ে। ১৪ বছরের রোয়ান ও ১১ বছর বয়সী গ্রিয়ার।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছ থেকে একসময় প্রেমের প্রস্তাব পেয়েছিলেন হলিউড অভিনেত্রী ব্রুক শিল্ডস। কিন্তু তিনি তা ফিরিয়ে দেন।