পরিবর্তনশীল প্রযুক্তিকে দ্রুত আয়ত্ত করতে হবে: পরিকল্পনামন্ত্রী

Changing-technology-must-be-mastered-quickly-Planning-Minister 

পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, ‘প্রযুক্তি দ্রুত বদলায়। তাই পরিবর্তনশীল এই প্রযুক্তিকে দ্রুত আয়ত্ত করতে হবে। তা না হলে এই প্রজন্ম এগিয়ে যেতে পারবে না। এই প্রযুক্তি বুঝতে হলে আমাদের শিক্ষক প্রয়োজন। তাই আমাদের শিক্ষক দিন, তাহলে আমরা দেশকে আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবো।’ বুধবার (১৮ অক্টোবর) সকালে ‘বাংলাদেশ আইসিটি এক্সপো ২০১৭’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব বলেন।


রাজধানীর আগারগাঁওস্থ বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শুরু হয়েছে তিন দিনের এই তথ্যপ্রযুক্তি প্রদর্শনী। এবারের প্রতিপাদ্য ‘মেক ইন বাংলাদেশ’। যৌথভাবে এর আয়োজন করেছে সরকারের আইসিটি বিভাগ, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ ও বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (বিসিএস)।

আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ইমরান আহমেদ, আইসিটি বিভাগের সচিব সুবীর কিশোর চৌধুরী, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম, বিসিএস সভাপতি আলী আশফাকসহ আরও অনেকে।

আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশে প্রতি বছর সাড়ে তিন কোটি মোবাইল সেট, পাঁচ লাখের বেশি ল্যাপটপ ও ২০ লাখের বেশি ফ্রিজ আমদানি হয়। সরকার নীতিমালা পরিবর্তন করে এই তিনটিসহ ৯৪টি পণ্যের কাঁচামাল আমদানিতে শুল্ক কমিয়ে এক শতাংশ করেছে। ফলে এগুলোর উৎপাদন শুরু হচ্ছে দেশেই। দেশীয় প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন ও সিম্ফোনি দেশেই প্রযুক্তি পণ্য উৎপাদন করছে। স্যামসাং ও এলজি’র মতো প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশে অ্যাসেম্বলিং প্ল্যান্ট স্থাপন করছে। এই তিনটি পণ্যে দেশে ৩০০ কোটি ডলারের বাজার রয়েছে। ২০১৫ সাল নাগাদ বাংলাদেশ তথ্যপ্রযুক্তিতে ৫০০ কোটি ডলার আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে। এইসব প্রযুক্তি পণ্য ও সফটওয়্যার সেবা রফতানি করে তা আয় করা সম্ভব হবে।’

‘বাংলাদেশ আইসিটি এক্সপো ২০১৭’ শেষ হবে ২০ অক্টোবর। মেলায় তিন দিনে থাকছে একাধিক সেমিনার ও কর্মশালা। গেমারদের জন্য রয়েছে গেমিং জোন। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা থাকবে এই আয়োজন।

পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, ‘প্রযুক্তি দ্রুত বদলায়। তাই পরিবর্তনশীল এই প্রযুক্তিকে দ্রুত আয়ত্ত করতে হবে। তা না হলে এই প্রজন্ম এগিয়ে যেতে পারবে না। এই প্রযুক্তি বুঝতে হলে আমাদের শিক্ষক প্রয়োজন। তাই আমাদের শিক্ষক দিন, তাহলে আমরা দেশকে আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবো।’ বুধবার (১৮ অক্টোবর) সকালে ‘বাংলাদেশ আইসিটি এক্সপো ২০১৭’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব বলেন।