হাঁসের মাংসের কালিয়া

Duck-meat 


আমাদের দেশের একটা প্রাচীন রান্না ‘হাঁসের মাংসের কালিয়া’ এই রেসিপি যুগ যুগ ধরে আমাদের খাবারের তালিকায় চলে আসছে। দেশের বিভিন্ন হোটেলেও এই মেনু পাওয়া যায়। এক নজরে দেখে নিন এই রেসিপি-


উপকরণ

: একটা হাঁস, এক কেজি পেঁয়াজ কুঁচি, হাফ কাপের বেশি – দারুচিনি, এক ইঞ্চি, ৩/৪ পিস – আদা বাটা, দুই টেবিল চামচ – রসুন বাটা, দেড় টেবিল চামচ – লাল মরিচ গুড়া, এক চা চামচ (ঝাল বুঝে) – হলুদ গুড়া, পরিমাণমতো লবণ (প্রথমে কম লবণেই শুরু করতে হবে), পরিমাণমতো তেল (বা হাফ কাপের কম) – পানি (অতিরিক্ত কিছু পানি গরম করে রাখাই উত্তম)।

বিশেষ মশলা মিক্স গুড়া: জয়ত্রি, সামান্য – জিরা, দুই চিমটি – এলাচি, মাঝারি ৪/৫ টা– লবঙ্গ, ৮/৯টা – শুকনা মরিচ, ৩/৪ টা মাঝারি – মেথি, দুই চিমটি – তেজপাতা, বড় একটা– পাঁচ ফোঁড়ন, দুই চিমটি – গোল মরিচ গুড়া।

প্রস্তুত প্রণালি: হাঁসের লোম পরিষ্কার করতে হালকা আগুনে পুড়িয়ে নিতে হয় এবং একটা একটা করে বেছে বেছে লোম কুপগুলো তুলে নিতে হয়। হাঁস কাটার মধ্যেও একটা ব্যাপার আছে, হাড়গোড় দেখে কাটতে হয়। এতে মাংসগুলো সঠিকভাবে থাকে।

মশলা প্রস্তুত: উপরের বিশেষ মশলা মিক্স এভাবে একটা কড়াইতে টেলে নিয়ে বেটে পাউডারে বা গুড়া করে নিতে হয়। কড়াইতে তেল গরম করে প্রথমে পেঁয়াজ কুঁচি দিন, সঙ্গে দিন সামান্য লবণ এবং দারুচিনি। আগুন মাঝারি আঁচে রাখুন। পেঁয়াজ কুঁচি একটু হলদে হয়ে এলে আদা ও রসুন বাটা দিন এবং ভাঁজুন। এবার লাল মরিচ গুড়ো এবং হলুদ গুড়ো দিন। এক কাপ পানি দিন এবং ভালো করে মিশিয়ে নিন। ভালো করে কষিয়ে তেল উপরে উঠিয়ে নিন। তেল উপরে উঠে গেলে ধুয়ে রাখা হাঁসের মাংস দিয়ে দিন। ভালো করে মিশিয়ে নিন। আগুন মাঝারি আঁচেই রাখুন। কিছুক্ষণ পরে এক কাপ গরম পানি দিন এবং আবারো মিশিয়ে নিন। মাংস নরম না হলে আরো এক কাপ পানি দিয়ে ঢাকনা দিন। মাঝে মাঝে নাড়িয়ে দিন। মাংস নরম হয়ে গেলে সেই বিশেষ মশলা মিক্স দিয়ে দিন এবং ভালো করে নাড়িয়ে মিশিয়ে নিন। ঢাকনা দিয়ে মাঝারি আঁচে রাখুন আরো কিছু সময়।


নামানোর আগে লবণের পরিমাণ ঠিক আছে কিনা পরখ করে নিন। সব ঠিকঠাক থাকলে পরিবেশন করতে পারেন।

আমাদের দেশের একটা প্রাচীন রান্না ‘হাঁসের মাংসের কালিয়া’ এই রেসিপি যুগ যুগ ধরে আমাদের খাবারের তালিকায় চলে আসছে। দেশের বিভিন্ন হোটেলেও এই মেনু পাওয়া যায়। এক নজরে দেখে নিন এই রেসিপি-