নারীদের জন্য বিনামূল্যে টেলিটকের সিম ‘অপরাজিতা’

Free-Teletalk-SIM-Aparajita-for-women 

টেলিটকের নতুন প্যাকেজ ‘অপরাজিতা’ সিমের উদ্বোধন করেছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। সাশ্রয়ী মূল্যে ভয়েস ও ভিডিও কল এবং ইন্টারনেট ডাটা ব্যবহারের সুবিধার মাধ্যমে নারীর ক্ষমতায়নে এ সিম বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলে মনে করেন প্রতিমন্ত্রী।



রোববার (২২ অক্টোবর) সচিবালয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সম্মেলন কক্ষে প্যাকেজের উদ্বোধন করেন তারানা হালিম। নারীরা বায়োমেট্রিক নিবন্ধন করে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে সারা দেশে টেলিটকের কাস্টমার কেয়ার সেন্টারে ও নির্ধারিত রিটেইল পয়েন্টে এ সিম পাবেন।

সারাদেশে ২০ লাখ ‘অপরাজিতা’ সিম বিনামূল্যে বিতরণ করা হবে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।

‘অপরাজিতা’ সিমের মাধ্যমে টেলিটক থেকে টেলিটক ভয়েস কল ৬০ পয়সা (মিনিট), টেলিটক থেকে অন্য অপারেটরে ৯০ পয়সা, ভিডিওকল (টেলিটক থেকে টেলিটক) ২৪ ঘণ্টায় ৬০ পয়সা মিনিট। 

অপরাজিতা সিম অ্যাক্টিভেশনের পর মাত্র ৮ টাকায় ১ জিবি ও ১৪ টাকায় ২ জিবি ডাটা পরবর্তী তিন মাস যতবার খুশি ততবার ব্যবহার করতে পারবেন। মেয়াদ হবে ৭ দিন। তবে অব্যবহৃত ডাটা পরবর্তীতে যোগ হবে না।

২৯ টাকা রিচার্জে গ্রাহক সপ্তাহব্যাপী ৩০ পয়সা মিনিট অননেট এবং ৬০ পয়সা মিনিট অফনেট কলরেট (রেট কাটার) উপভোগ করতে পারবেন।

টেলিটকের নারী গ্রাহকরাও অপরাজিতা প্যাকেজে মাইগ্রেট করতে পারবেন, মাইগ্রেটেড গ্রাহক ২৯ টাকা এবং ৯৯ টাকা রিচার্জে রেট কাটার অফার উপভোগ করতে পারবেন। সেই সেঙ্গ তিন মাস ডাটা অফার উপভোগ করতে পারবেন।

অপরাজিতা সিমে অন-নেটে যেকোনো নম্বরে ৯৯টি এফএনএফ করা যাবে। অননেট এফএনএফ ৩০ পয়সা এবং অফনেট ৬০ পয়সা মিনিট। প্রতিটি ক্ষেত্রে ১ সেকেন্ড পালস প্রযোজ্য হবে।

যেকোনো নম্বরে এসএমএসে খরচ হবে ৪০ পয়সা, এমএমএস ১ টাকা।

ইন্টারনেটের ক্ষেত্রে নারীদের এক্সেসেবিলিটি ১০-১৫ শতাংশের বেশি হবে না উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এসডিজির অন্যতম লক্ষ্য অর্জনে নারীকে পেছনে রাখা যাবে না। সব নারী ও মেয়েদের ক্ষমতায়নের জন্য মোবাইল ফোন পৌঁছে দিতে হবে এবং ইন্টারনেট সেবা যেন পায় সে বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। এতে কোনো নারী পিছিয়ে থাকবে না।

টেলিটকের নতুন প্যাকেজ ‘অপরাজিতা’ সিমের উদ্বোধন করেছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। সাশ্রয়ী মূল্যে ভয়েস ও ভিডিও কল এবং ইন্টারনেট ডাটা ব্যবহারের সুবিধার মাধ্যমে নারীর ক্ষমতায়নে এ সিম বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলে মনে করেন প্রতিমন্ত্রী।