২০১৩ সালে হ্যাক হয় ইয়াহুর প্রতিটি অ্যাকাউন্ট

 


২০১৩ সালের সাইবার অ্যাটাকে হ্যাকিংয়ের শিকার হয়েছিল ইয়াহুর প্রতিটি অ্যাকাউন্ট। এ অ্যাটাকে হ্যাকিং হওয়া অ্যাকাউন্টের সংখ্যা প্রায় ৩শ কোটি। হ্যাক করা অ্যাকাউন্টের মধ্যে রয়েছে ইয়াহু মেইল, ফ্যান্টাসি, টাম্বলার ও ফ্লিকার।



ইয়াহুর প্যারেন্ট কোম্পানি ভেরাইজনের নতুন তদন্তে এ তথ্য বেরিয়ে আসে। মঙ্গলবার (৩ অক্টোবর) একটি বিবৃতিতে ভেরাইজন জানায়, বিদেশি ফরেনসিক বিশেষজ্ঞদের দাওয়া তথ্য বিশ্লেষণ করে আমরা জানতে পেরেছি ২০১৩ সালে চালু থাকা সব অ্যাকাউন্ট হ্যাকিংয়ের শিকার হয়েছিল।

ওই সময় হ্যাকাররা ব্যবহারকারীর ইমেইলের ঠিকানা, নাম, পাসওয়ার্ড, টেলিফোন নম্বর ও জন্ম তারিখ চুরি করেছে। তবে ব্যবহারকারীদের আশ্বস্ত করে জানানো হয় কোনো প্রকার পেমেন্ট বা ব্যাংক অ্যাকাউন্ট সংক্রান্ত তথ্য হ্যাকাররা চুরি করেনি।

২০১৩ সালের হ্যাকিংয়ের ঘটনাটি প্রথম ইয়াহুর নজরে আসে গত বছরের ডিসেম্বরে। এর প্রায় একমাস আগে ২০১৪ সালের একটি সাইবার অ্যাটাকে ইয়াহুর ৫০ কোটি অ্যাকাউন্ট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিলো। এর রেশ কাটতে না কাটতে ২০১৩ সালের সাইবার অ্যাটাকের তথ্য তদন্তে বেরিয়ে আসে। তখন ধারণা করা হয়েছিল, এ অ্যাটাকে ১শ কোটি অ্যাকাউন্ট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এখন এ তালিকায় যুক্ত হয়েছে আরও ২শ কোটি অ্যাকাউন্ট।

ক্ষতিগ্রস্ত অ্যাকাউন্টগুলোতে ইমেইল পাঠিয়ে এর পাসওয়ার্ড পরিবর্তনের পরামর্শ দিচ্ছে ইয়াহু।

এবছর চার দশমিক আট বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বিনিময়ে ইয়াহুকে টেকওভার করে নেয় মার্কিন টেলিকম কোম্পানি ভেরাইজন। কিন্তু ২০১৩ ও ২০১৪ সালের হ্যাকিং ও ইয়াহুর নিরাপত্তা ঘাটতির তথ্য প্রকাশ হওয়ায় নির্ধারিত মূল্য থেকে ৩৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার কম পাবে ইয়াহু।

২০১৩ সালের সাইবার অ্যাটাকে হ্যাকিংয়ের শিকার হয়েছিল ইয়াহুর প্রতিটি অ্যাকাউন্ট। এ অ্যাটাকে হ্যাকিং হওয়া অ্যাকাউন্টের সংখ্যা প্রায় ৩শ কোটি। হ্যাক করা অ্যাকাউন্টের মধ্যে রয়েছে ইয়াহু মেইল, ফ্যান্টাসি, টাম্বলার ও ফ্লিকার।