মালাই স্বাদে ক্ষীর

Mali-taste-latex 


ড় জামবাটিতে একবাটি ক্ষীর। আমাদের ঠিক আগের প্রজন্মের কাছে বিশেষ উপলক্ষে অন্যতম খাবার ছিল এটিই। বাঙালির ক্ষীরপ্রীতির কথা না বললেই নয়। বিয়ে, জন্মদিন, কিংবা ঈদ, পূজা যে অনুষ্ঠানই হোক না কেনও ক্ষীর আবশ্যক। এই আবশ্যক খাবারটি আপনার বাড়িতে কতদিন যাবৎ হচ্ছে না? তাহলে আজকেই হয়ে যাক? তবে একটু বাড়তি স্বাদে। জেনে নিজ মালাই ক্ষীরের রেসিপি।


উপকরণ:


দুধ- দুই লিটার

খেজুরের গুড়- ২ কাপ

নারকেল কুচি-আধা কাপ

কাজু, কিসমিস, পেস্তা, কাঠবাদাম- আধা কাপ

চাল- আধকাপ

এলাচ, - দুটি

দারুচিনি- দুটি

প্রণালি: 


বাদামগুলো ভালো করে ভেজে খোসা ছাড়িয়ে কুচিকুচি করে নিন।চাল পানিতে ভিজিয়ে রাখুন।এবার দুধ জ্বাল দিন। দুধ তিন ভাগের এক ভাগ কমে এলে তাতে চাল ছেড়ে নাড়ুন। এইসময় দারচিনি, এলাচও ছেড়ে দিন। এরপর চাল ফুটে উঠলে নারকেল, বাদাম কুচি(কিছু বাদাম কুচি পরিবেশনের জন্য রেখে দিন) ও জ্বালিয়ে নেওয়া গুড় ছেড়ে দিন।

গুড়সহ ক্ষীর ফুটে উঠলে বাটিতে জমিয়ে ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা পরিবেশন করুন।

*** খেজুরের গুড় ২ কাপ পানি দিয়ে জ্বাল দিয়ে নিতে হবে। এতে করে দুধ ফাটবে না।

ড় জামবাটিতে একবাটি ক্ষীর। আমাদের ঠিক আগের প্রজন্মের কাছে বিশেষ উপলক্ষে অন্যতম খাবার ছিল এটিই। বাঙালির ক্ষীরপ্রীতির কথা না বললেই নয়। বিয়ে, জন্মদিন, কিংবা ঈদ, পূজা যে অনুষ্ঠানই হোক না কেনও ক্ষীর আবশ্যক। এই আবশ্যক খাবারটি আপনার বাড়িতে কতদিন যাবৎ হচ্ছে না? তাহলে আজকেই হয়ে যাক? তবে একটু বাড়তি স্বাদে। জেনে নিজ মালাই ক্ষীরের রেসিপি।