হুইল চেয়ারে মঞ্চে আসলেন মডেল

Model-came-to-the-wheel-chair 

 

ভারতের দিল্লীতে ‘ইন্ডিয়া রানওয়ে উইক’ এর জমকালো আসর শেষ হলো। নামীদামী র‍্যাম্প মডেল ও বলিউড অভিনেত্রীরা স্বনামধন্য সব ডিজাইনারের পোশাক পরে মাতিয়েছেন উৎসবের মঞ্চ। তবে এত তারকার ভিড়ে যিনি সবার মন জয় করেছেন, তিনি হচ্ছেন ২৩ বছর বয়সী আলেকজান্দ্রা কুটাস।  ইউক্রেনীয় এই মডেল শো স্টপার হিসেবে মঞ্চে আসেন, তবে হুইল চেয়ারে চেপে।


নিখিল ও রিভেন্দ্রা ডিজাইনারদ্বয়ের নকশা করা পোশাক পরেছিলেন কুটাস। মিড-নাইট ব্লু গাউনটি বিশেষভাবে তার জন্যই নকশা করেছিলেন দুই ডিজাইনার। উইন্টার/ফেস্টিভ কালেকশন ‘ভিনটেইজ ভাইব’ এর শো স্টপার হিসেবে তিনি মঞ্চে আসেন। কালেকশনটি ৫০ দশকের ফ্যাশন থেকে অনুপ্রাণিত হওয়া বলে জানান ডিজাইনাররা। রেট্রো ফ্যাশনের আদলে ককটেল আউটফিট ছিল ‘ভিনটেইজ ভাইব’ কালেকশনের মূল বৈশিষ্ট্য। ইন্ডিয়া রানওয়ের মঞ্চে কুটাসের আত্নবিশ্বাসের ভূয়সী প্রশংসা করেন তারকারা।

আলেকজান্দ্রা কুটাস জন্মগতভাবেই স্পাইনাল কর্ডের সমস্যায় ভুগছেন। কোমরের নিচের অংশে কোনও জোর পান না তিনি। প্যারালাইসিস কুটাসের স্বপ্ন ছিল মডেল হওয়ার। শারীরিক ত্রুটির কাছে হার মানতে পারেনি তার স্বপ্ন। তিনিই ফ্যাশন ইন্ডাস্ট্রির প্রথম এবং একমাত্র মডেল, যিনি শারীরিক প্রতিবন্ধকতা নিয়েও কাজ করে চলেছেন অবিরত। 

 

ভারতের দিল্লীতে ‘ইন্ডিয়া রানওয়ে উইক’ এর জমকালো আসর শেষ হলো। নামীদামী র‍্যাম্প মডেল ও বলিউড অভিনেত্রীরা স্বনামধন্য সব ডিজাইনারের পোশাক পরে মাতিয়েছেন উৎসবের মঞ্চ। তবে এত তারকার ভিড়ে যিনি সবার মন জয় করেছেন, তিনি হচ্ছেন ২৩ বছর বয়সী আলেকজান্দ্রা কুটাস। ইউক্রেনীয় এই মডেল শো স্টপার হিসেবে মঞ্চে আসেন, তবে হুইল চেয়ারে চেপে।