পেপ্যাল নয়, জুম সার্ভিস

Not-PayPal-Zoom-Service 

অনলাইন পেমেন্ট প্রসেসর ‘পেপ্যাল' বাংলাদেশে আসছে, চালু হচ্ছে ১৯ অক্টোবর’ শিরোনামে কিছুদিন ধরে এমন খবর তথ্যপ্রযুক্তি অঙ্গনে মূল আলোচ্য বিষয় হয়ে উঠেছে। কিন্তু এবার জানা গেল, পেপ্যাল বাংলাদেশে আসছে না। এর সহযোগী প্রতিষ্ঠান জুম দিয়ে বাংলাদেশে পেপ্যালের সেবা দেওয়া হবে।


পেপ্যাল থেকে  পাঠানো এক বিবৃতিতে এমনটাই জানানো হয়েছে।  হারুন-উর-রশীদ পেপ্যালের কাছে জানতে চান, পেপ্যাল বাংলাদেশে আসছে কিনা? কোনও অফিস চালু করবে কিনা?

উত্তরে পেপ্যাল থেকে বলা হয়, 'এই মুহূর্তে বাংলাদেশে পেপ্যাল অ্যাভেলেবল নয়। বাংলাদেশে পেপ্যালের ভবিষ্যৎ নিয়ে শেয়ার করার মতো আমাদের কাছে কোনও খবর নেই। জুম একটি পেপ্যাল সার্ভিস। ২০১৫ সালের নভেম্বর থেকে বাংলাদেশে জুম চালু আছে। ফলে জুম দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের লোকজন তাদের প্রিয়জনের কাছে টাকা পাঠাতে পারবেন। এ প্রক্রিয়ার সঙ্গে সোনালী ব্যাংক যুক্ত আছে।'

এদিকে, টুইটার ম্যাসেজেও পেপ্যাল কর্তৃপক্ষ একই তথ্য জানায়।


প্রসঙ্গত, গত ৯ অক্টোবর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক একটি অনুষ্ঠানে বলেছিলেন, 'বাংলাদেশে পেপ্যাল আসছে। ১৯ অক্টোবর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় এই পেপ্যাল সেবা উদ্বোধন করবেন।'

তিনি আরও জানান, বাংলাদেশে পেপ্যালই আসছে। সম্প্রতি জুম ও পেপ্যাল মার্জ করেছে। প্রাথমিকভাবে পেপ্যাল দিয়ে ইনবাউন্ড সেবা তথা শুধু টাকা আনা যাবে। সোনালী, রূপালী, সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকসহ ৯টি ব্যাংক থেকে এই টাকা উত্তোলন করা যাবে। নভেম্বরে বাংলাদেশে পেপ্যালের একটি দল আসবে। তখন কারিগরি অনেক বিষয় নিয়ে আমাদের সঙ্গে আলাপ হবে।

পেপ্যালই আসছে তো- অনুষ্ঠানে এক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছিলেন, 'আমার কাছে এখন পর্যন্ত এটুকুই তথ্য আছে।'

এদিকে, ১৯ অক্টোবর পেপ্যালের উদ্বোধন উপলক্ষে আইসিটি বিভাগ অতিথিদের যে আমন্ত্রণপত্র পাঠাচ্ছে তাতে বড় করে ইংরেজি হরফে লেখা রয়েছে, ‘জুম –এ পেপ্যাল সার্ভিস লঞ্চিং অ্যান্ড ফ্রিল্যান্সারস কনফারেন্স।’

এছাড়া বিভাগের সচিব সুবীর কিশোর চৌধুরীর অতিথিদের কাছে পাঠানো আমন্ত্রণপত্রে লেখা রয়েছে, সুধী, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে ১৯ অক্টোবর ২০১৭, বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের হল অব ফেইমে জুম –এ পেপ্যাল সার্ভিস লঞ্চিং অ্যান্ড ফ্রিল্যান্সারস কনফারেন্স –এর শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হবে।’

পেপ্যালের পরিবর্তে জুমের উদ্বোধনের খবর জানার পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। বেশির ভাগ মানুষের মন্তব্য, জুম তো দেশে আগে থেকেই চালু রয়েছে। তাহলে পেপ্যালের নামে ঘটা করে জুম উদ্বোধনের মানে কী? বেশি প্রতিক্রিয়া দেখা যাচ্ছে অনলাইন ফ্রিল্যান্সারদের কাছ থেকে।

এদিকে, আজ মঙ্গলবার (১৭ অক্টোবর) জুনাইদ আহমেদ পলক ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাসে জানিয়েছেন, পেপ্যাল ও জুম কোনও পৃথক কোম্পানি নয়। এটা ঠিক গুগলের ই-মেইল সার্ভিসের মতো যাকে জি-মেইল নামে ডাকা হয়।

তিনি আরও লিখেছেন, পেপ্যাল হলো ইন্টারন্যাশনাল মানি ট্রান্সফার সার্ভিস যাকে জুম নামে ডাকা হয়।

অনলাইন পেমেন্ট প্রসেসর ‘পেপ্যাল' বাংলাদেশে আসছে, চালু হচ্ছে ১৯ অক্টোবর’ শিরোনামে কিছুদিন ধরে এমন খবর তথ্যপ্রযুক্তি অঙ্গনে মূল আলোচ্য বিষয় হয়ে উঠেছে। কিন্তু এবার জানা গেল, পেপ্যাল বাংলাদেশে আসছে না। এর সহযোগী প্রতিষ্ঠান জুম দিয়ে বাংলাদেশে পেপ্যালের সেবা দেওয়া হবে।