ইন্টারনেটে খুব বেশি সমস্যা হচ্ছে না

The-internet-is-not-having-too-much-problems 

রক্ষণাবেক্ষণের জন্য প্রথম সাবমেরিন ক্যাবল (এসএমডব্লিউ-৪) বিচ্ছিন্ন থাকায় দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল দিয়ে সংযোগ দেওয়া এবং অতিরিক্ত ব্যান্ডউইডথ দিয়ে সেবা দেওয়ায় গ্রাহকরা খুব বেশি সমস্যায় পড়েন নি।


বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবল কোম্পানি লিমিটেড (বিএসসিসিএল) এ দাবি করে বলছে, রক্ষণাবেক্ষণ কাজ নির্ধারিত সময়ের আগেই শেষ করা যাবে।

বিএসসিসিএল’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মশিউর রহমান বলেন, সোমবার (২৩ অক্টোবর) দিনগত মধ্যরাত সাড়ে ১২টায় রক্ষণাবেক্ষণ কাজ শুরু হয়েছে। সবশেষ খবর পর্যন্ত ক্যাবল কেটে মেরামতের কাজ শুরু হয়েছে। রাতের মধ্যে রিপিটার যুক্ত করে কাল (বুধবার) সংযোগ দেওয়া হবে। পরের দিন ভোরের (বৃহস্পতিবার) মধ্যেই সংযোগ চালু হবে বলে আশা করছি।

প্রথম সাবমেরিন ক্যাবলের কক্সবাজারের কলাতলী ল্যান্ডিং স্টেশন থেকে ১০৫ কিলোমিটার দূরে গভীর সমুদ্রে দ্বিতীয় রিপিটারটিতে ফল্ট দেখা দিয়েছিল বলে জানিয়েছিলেন সেখানকার ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) সাখাওয়াত হোসেন।

এসএমডব্লিউ-৪ থেকে ২৫০ জিবিপিএস (গিগাবাইট পার সেকেন্ড) ব্যান্ডউইডথ সরবরাহ করা হয় জানিয়ে তিনি বলেন, রক্ষণাবেক্ষণের সময় পুরো লাইন বন্ধ থাকবে। এ সময়ে কুয়াকাটায় দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল এসএমডব্লিউ-৫ দিয়ে বিকল্প সেবা দেওয়া হবে।

তবে এসএমডব্লিউ-৫ চালু হলেও সেখান থেকে ২৫০ জিবিপিএস ব্যান্ডউইডথ পাওয়া যাবে না। এজন্য ২৪ থেকে ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত ইন্টারনেটের গতি স্লো থাকতে পারে বলে আশঙ্কা করে আসছিলেন সংশ্লিষ্টরা।

বিএসসিসিএল থেকে সামিট, আর্থ, আমরা, বিটিসিএল ছাড়াও কয়েকটি প্রতিষ্ঠান ব্যান্ডউইডথের গ্রাহক জানিয়ে এমডি বলেন, আমরা গ্রাহকদের কাছ থেকে খুব বেশি অভিযোগ পাচ্ছি না। তবে বিটিসিএল এর কনফিগারেশনের কাজের জন্য কিছুটা সমস্যা হয়েছিল। সেটাও তারা ওভারকাম করে ফেলেছে।

অন্যতম ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান আমরা নেটওয়ার্কসের এক কর্মকর্তা  বলেন, তারা বড় অংশ প্রথম সাবমেরিন ক্যাবল থেকে নেন। সাবমেরিন ক্যাবল বিচ্ছিন্ন থাকলেও বিকল্পভাবে প্রায় ৭০ শতাংশ ইন্টারনেট নিশ্চিত করছি। আর গ্রাহকের এ নিয়ে তেমন কোনো অভিযোগ

রক্ষণাবেক্ষণের জন্য প্রথম সাবমেরিন ক্যাবল (এসএমডব্লিউ-৪) বিচ্ছিন্ন থাকায় দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল দিয়ে সংযোগ দেওয়া এবং অতিরিক্ত ব্যান্ডউইডথ দিয়ে সেবা দেওয়ায় গ্রাহকরা খুব বেশি সমস্যায় পড়েন নি।