কেন নিজেকে জানতে যেতে হয় প্রকৃতির কাছে?

Why-do-you-want-to-know-yourself-in-nature 

সক্রেটিস বলেছিলেন 'নিজেকে জানো।' যুগে যুগে আরো অনেক মনীষীই জোর দিয়ে বলেছেন, নিজেকে জানার কথা। যে পথ ভোলা পথিক শান্তি পায় না তাকে শান্তি খুঁজতে বলা হয়েছে নিজেরই মাঝে। যে হারিয়ে ফেলেছে প্রিয়জনকে তাকেও বলা হয়েছে, নিজের ক্ষত নিজেকে ভালোবেসেই পূরণ করতে। লালন বলেছেন, 'আপন ঘরের খবর নে না..."


যারা নিয়মিত ধ্যান করেন তারাও জানেন এই বিষয়টা। ধ্যান বা মেডিটেশন মূলত আমাদের চিত্তকে নিয়ে যায় আমাদের কাছে। আমরা খুঁজে দেখি প্রকৃত অর্থে আমাদের চাওয়া কি, সেই লক্ষ্যে আমরা কতটা এগিয়েছি। নিজেকে খোঁজার কোনো শেষ নেই। আর খুঁজতে হলে চাই যথাযথ পরিবেশ। প্রকৃতিই আপনাকে দেয় সেই পরিবেশ। কিভাবে? জানুন, কেন প্রকৃতিই সবচেয়ে উত্তম নিজেকে জানার মাধ্যম হিসেবে-

শান্তি
প্রকৃতির মাঝে বিরাজ করে শান্তি। সব জায়গায় গেলেই আপনার মেডিটেশন ভালো হবে এমন নয়। দেশের বড় বড় সব পর্যটকস্থলই প্রকৃতির অংশ, কিন্তু তাই বলে সে সব জায়গা শান্ত, তা কিন্তু নয়! নিরিবিলি জায়গা খুঁজে নিন ধ্যান করার জন্য। কোনো নির্জন পাহাড়ের চূড়া, অপরিচিত কোনো সৈকত, লোকালয় থেকে দূরে কোন বালুকাবেলা হতে পারে আপনার জন্য সবচেয়ে দারুণ জায়গা।

নির্মল আবহাওয়া
শান্ত প্রকৃতির নির্মল আবহাওয়া মনকে বিশুদ্ধ করে। সেখানে আপনাকে অপেক্ষা করতে হবে না পবিত্র স্থানের জন্য। সূর্য জাগার সাথে সাথেই জেগে উঠবেন আপনি। পাখির ডাকের সাথে শুরু হবে দিন। পবিত্র এই পরিবেশেই তো ধ্যানমগ্ন হওয়ার জন্য উপযুক্ত।

বিশালতার মাঝে
বলা হয় সমুদ্রের বিশালতা মানুষকে মনে করিয়ে দেয় নিজের ক্ষুদ্রতা। সত্যিই তো, প্রকৃতি এত সুন্দর, এত প্রাচুর্য এখানে যতই আপনি নিজেকে এর মাঝে বিলীন করে দিতে থাকবেন ততই আপনার মনে হতে থাকবে, আপনি অনুভব করতে থাকবেন পার্থিব সমস্যাগুলো কত ক্ষুদ্র! আপনাকে বিচলিত করে চলছিল যেসব বিপত্তি তার সমাধানও পেয়ে যাবেন খুব সহজে। মনে হবে, সমাধান ভেসে বেড়াচ্ছিল চারপাশেই। শুধু ধরা দিচ্ছিল না হাতে।

শিক্ষক ভূমিকা
প্রকৃতি আমাদের শিক্ষক। নিবিড় কোনো বনে ১ মাস কাটিয়ে এলে দেখবেন জীবন সম্পর্কিত আপনার ধারণা কতটা বদলে গেছে। হ্যাঁ, প্রকৃতির মাঝে আছে সেই ক্ষমতা। এটি মানুষের মনের গভীর ক্ষত সারিয়ে তোলে, তাকে উপযোগী করে তোলে জীবন যুদ্ধের জন্য। প্রকৃতির মাঝে বেড়ে ওঠা প্রতিটি প্রাণীর আছে ভিন্ন ভিন্ন জীবন সংগ্রাম। তাদের কারও জীবনই আমাদের মতো এত সুবিধায় পরিপূর্ণ নয়। বাঁচার লড়াইটা তাই সেখানে অনেক রূঢ়। এই রুঢ়তা যে উপলব্ধি দেবে আপনাকে তা আর কেউ দিতে পারবে না।

তাই এবার মন অশান্ত হলে, কোনো ফেরারি মেঘের ডানায় নিজেকে আবার খুঁজে পেতে ইচ্ছে হলে, খুব হতাশ বোধ হলে চলে যান দূরে কোথাও বেড়াতে। মানুষের ভিড়ে নয়, নির্জন কোনো অঞ্চলে। সেখানে নিজের সাথে বোঝাপড়াটা মিটিয়ে নিন, আবিষ্কার করুন নতুন নিজেকে। ফিরে আসুন শক্তি নিয়ে এই লোকালয়ে!

সক্রেটিস বলেছিলেন 'নিজেকে জানো।' যুগে যুগে আরো অনেক মনীষীই জোর দিয়ে বলেছেন, নিজেকে জানার কথা। যে পথ ভোলা পথিক শান্তি পায় না তাকে শান্তি খুঁজতে বলা হয়েছে নিজেরই মাঝে। যে হারিয়ে ফেলেছে প্রিয়জনকে তাকেও বলা হয়েছে, নিজের ক্ষত নিজেকে ভালোবেসেই পূরণ করতে। লালন বলেছেন, 'আপন ঘরের খবর নে না..."