এবার পার্লামেন্টে গড়াচ্ছে ‘পদ্মাবতী’ বিতর্ক 

সঞ্জয়লীলা বানসালির ‘পদ্মাবতী’ সিনেমা নিয়ে চলমান বিতর্ক শেষ হচ্ছেই না। এবার তা ভারতের পার্লামেন্ট পর্যন্ত গড়াচ্ছে। আগামী ১৬ ডিসেম্বর শুরু হতে যাওয়া শীতকালীন অধিবেশনে অভিনেত্রী জয়া বচ্চন বিষয়টি উত্থাপন করবেন বলে জানা গেছে।


বচ্চন পরিবারের একটি সূত্র জানিয়েছে, সিনেমাটি তৈরির সময় রাজস্থানে বানসালি লাঞ্ছিত হওয়ার সময়ই তা পার্লামেন্টে উত্থাপন করেন জয়া বচ্চন। এবার তিনি বিষয়টি আরও শক্তভাবে উপস্থাপন করবেন। পার্লামেন্টে বলিউডের অন্য সদস্যরা তাকে সমর্থন করবেন বলে তিনি আশা করছেন। আর কেউ সমর্থন না করলেও তিনি বিষয়টি সবার নজরে আনবেন।

‘পদ্মাবতী’ বিতর্ক সহিংসতার দিকে মোড় নেওয়ার সময় থেকেই বচ্চন পরিবার বিষয়টির ওপর নজর রাখছে। বচ্চন পরিবারের সব সদস্যের সঙ্গে পরিচালক সঞ্জয়লীলা বানসালির ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে। অমিতাভ বচ্চন তার ‘ব্ল্যাক’ সিনেমায় কাজ করেছেন। অভিষেক বচ্চন বানসালির পরের সিনেমায় কাজ করবেন। আর ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনের সঙ্গে তার আগে থেকেই ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে।

‘ইতিহাস বিকৃতি হচ্ছে’- এমন দাবি করে চলতি বছরের জানুয়ারিতে রাজপুত কার্নি সেনার কর্মীরা জয়পুরের নাহারগড় কেল্লায় ঢুকে ছবিটির শুটিংয়ে বাধা দেয়। এমনকি সেট, ক্যামেরা ভাঙাসহ বানসালির গায়েও হাত তোলে তারা। এ কারণে শুটিং বন্ধ করে দিতে হয়েছিল বানসালিকে। এর আগে গত বছর কোলাপুরেও বাধাগ্রস্ত হয় এর কাজ। তখন প্রপস ও কস্টিউমের ক্ষতি হয়েছিল।


অনেক গোষ্ঠী দাবি করে, রানী পদ্মাবতী ও আলাউদ্দিন খিলজির একটি প্রেমের দৃশ্য রয়েছে ছবিতে। যা ইতিহাসে উল্লেখ নেই। তবে ছবির নির্মাতা এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। ইতিহাসবিদরা নিশ্চিত নন পদ্মীনী নামে আসলেই কেউ ছিলেন কি না।

এ ছবির প্রধান তিন চরিত্রে আছেন দীপিকা, শহিদ কাপুর ও রণবীর সিং।

জানেন কি? মোবাইল ফোন ব্যবহারেও হতে পারে পিঠে ব্যথা! 

 পিঠে ব্যথা খুবই সাধারণ ও পরিচিত একটি শারীরিক সমস্যা। সাধারণত বয়স্ক মানুষদের বয়স বৃদ্ধির ফলে হাড় ক্ষয় হওয়া শুরু করে বলে পিঠে ব্যাথার লক্ষণ দেখা দিতে থাকে। তবে এখনকার সময়ে অল্প বয়স্ক অনেকের মাঝেই পিঠে ব্যথার প্রাদুর্ভাব দেখা যাচ্ছে এবং যার হার বৃদ্ধি পাচ্ছে প্রতিনিয়ত। যে কারণে পিঠে ব্যথার সমস্যাটি কে গুরুতর সমস্যা হিসেবে গণ্য করা হচ্ছে। এমনকি NHS England (National Health care Service) এর তথ্য মতে লন্ডনের শারীরিক অক্ষমতার একটি বড় কারণ হলো এই পিঠে ব্যথা! নিশ্চয় মনে প্রশ্ন জাগছে, কী কারণে পিঠে ব্যথার মতো শারীরিক সমস্যাটি তৈরি হয়ে থাকে এবং কী করলে এই সমস্যাটির হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যেতে পারে? লন্ডনে অবস্থিত স্বনামধন্য ফিজিওথেরাপি ক্লিনিক ‘চার্টার্ড সোস্যাইটি অফ ফিজিওথেরাপি’র কনসাল্টেন্ট, সার্জন এবং প্রথম সারির ফিজিওথেরাপিস্ট স্যামী মার্গো জানিয়েছেন প্রাত্যহিক কোন কাজগুলো আপনার পিঠে ব্যথা তৈরি করছে এবং কী করলে পিঠে ব্যথার উপশম পাওয়া সম্ভব হবে।


ঘুমের শেষে বিছানা থেকে ওঠা

"মেরুদণ্ডের চাকতিগুলো সারা রাতের মাঝে পানি দ্বারা পূর্ণ হয়ে থাকে, যা আমাদের লম্বা হতে সাহায্য করে থাকে। একইসাথে এর কারণে গুরুতর সমস্যা তৈরি হবার সম্ভবনাও দেখা দিয়ে থাকে।" বলেছেন ফিজিওথেরাপিস্ট স্যামী মার্গো। এমনকি তিনি আরও বলেছেন, "শুয়ে থাকা অবস্থা থেকে একবারে খাড়া বসে পড়ার ভঙ্গীর জন্য অথবা শোয়া অবস্থা থেকে মোচড় দিয়ে পা বিছানার বাইরে নেওয়ার ভঙ্গীর ফলেও পিঠে ব্যথার সমস্যা তৈরি হয়ে থাকে। একইসাথে ঘড়ির অ্যালার্ম বন্ধ করার জন্য ঘুমের মাঝেই বাঁকা হয়ে শরীরের একপাশ ঘোরানোর ফলে মেরুদণ্ডের উপর চাপ পড়ে থাকে। যা থেকে পিঠে ব্যথার মতো সমস্যাগুলো দেখা দেওয়া শুরু হয়।"

সমাধান: স্যামী জানিয়েছেন, ঘুম ভাঙার পর বিছানা থেকে ওঠার সবচেয়ে ভালো উপায় হলো ঘুরে (Rolling) বিছানা নামার চেষ্টা করা। প্রথমে ঘুরে পিঠের দিক থেকে শরীরের একপাশে যেতে হবে, এরপর বিছানা থেকে এক পা নামিয়ে নিতে হবে।

দাঁত মাজার সময়

সাধারণত বাথরুমের সিংকগুলো আমাদের কোমরের উচ্চতার চাইতে বেশ কিছুটা নীচে হয়। যার ফলে প্রতিবেলায় দাঁত মাজার সময়ে আমরা সিংকের দিকে খানিকটা ঝুঁকে এরপর দাঁত মেজে থাকি। এতে করে আমাদের ঘাড়ের উপরে চাপ সৃষ্টি হয়। স্যামী জানান, এর ফলেই আমাদের ঘাড় থেকে পিঠের দিকে ব্যাথা প্রবাহিত হয়ে থাকে।

সমাধান: এক্ষেত্রে স্যামী জানান, দাঁত মাজার সময়ে সরাসরি আয়নার দিকে তাকিয়ে এবং পিঠ টানটান করে দাঁড়িয়ে দাঁত মাজতে হবে। এছাড়াও দাঁত মাজার সময়ে এক পায়ের উপর ভর দিয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে হবে এক মিনিট সময় নিয়ে। এতে করে ব্যালান্স ভালো হয়।

মোবাইল ফোন বারবার ব্যবহার করা

স্যামী বলেন, "মোবাইল ফোন অথবা ট্যাব ব্যবহারের জন্য ঘাড় বাঁকা করার ফলে ঘাড়ের পেশীতে টান পড়ে।" গবেষণা থেকে দেখা গেছে যে, মাথা প্রতি ইঞ্চি সামনের দিকে ঝোঁকার জন্য সাধারণ মাথার ভর (১২ পাউন্ড-৬ কেজি) এর সাথে বাড়তি ১০ পাউন্ড যোগ হয়ে থাকে। যে কারণে, মাথা তিন ইঞ্চি পরিমাণ ঝোঁকানোর ফলে প্রায় ৪২ পাউন্ড পরিমাণ বাড়তি ভর ঘাড়ের উপর পড়ে। যা ঘাড় ও পিঠে ব্যথা তৈরির ক্ষেত্রে ক্ষতিকর ভূমিকা পালন করে থাকে।

সমাধান: এক্ষেত্রে প্রথমেই স্যামী পরামর্শ দিয়েছেন একদম সোজা হয়ে বসার অভ্যাস গড়ে তোলার। বিশেষ করে মোবাইল ও ট্যাব ব্যবহারের সময় সেটা উঁচু করে তুলে ধরে এরপর ব্যবহার করতে হবে। ল্যাপটপ ব্যবহারের ক্ষেত্রে বালিশ ও কুশনের সাহায্যে উঁচু স্থান তৈরি করে এর উপরে ল্যাপটপ রেখে ব্যবহার করতে হবে। একইসাথে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো, হাত ব্যস্ত থাকায় অনেকে কাঁধ ও কানের মাঝে মোবাইল ফোন ধরে খুবই বিপদজনক ভঙ্গীতে মোবাইলে কথা বলেন। এই অভ্যাস সম্পূর্ণভাবে পরিহার করতে হবে। কারণ, এতে করে কাঁধ, ঘাড় ও পিঠের উপরে অনেক বেশী চাপ পড়ে থাকে।

গাড়িতে কোন ভারী জিনিসপত্র তোলা

গাড়িতে ছোট বাচ্চাদের তোলা এবং কোন ভারী জিনিসপত্র তোলার সময়ে পিঠ বাঁকিয়ে রাখতে হয় অনেকক্ষন। যা মেরুদণ্ডের উপর চাপ সৃষ্টি করে ফেলে বলে পিঠে ব্যথার সৃষ্টি হয়।

সমাধান: ছোট বাচ্চাদের যথাযম্ভব নিজের কাছে নিয়ে এরপর গাড়িতে ওঠার চেষ্টা করতে হবে। ভারী কোন বস্তু গাড়িতে তোলার ক্ষেত্রে কোমরের নীচের অংশ এবং হাতে কনুইতে বেশীরভাগ ভর দিতে হবে। এতে করে পিঠের ওপর চাপ কম পড়বে।

ভারী কোন ব্যাগ বহন করা

স্যামী সতর্ক করে দিয়ে জানান, "এক কাঁধের উপর ব্যাগ তুলে নিয়ে বহন করা অথবা, শুধুমাত্র এক হাতে এবং কনুইয়ের ভাঁজে ব্যাগ ঝুলিয়ে বহন করলে Asymmetrical Stress তৈরি হয়ে থাকে। কারণ এমনভাব ব্যাগ বহন করার ফলে শরীরের একপাশের পেশীর উপরে বাড়তি চাপের সৃষ্টি হয়, যেখানে অন্যপাশে কোন বাড়তি চাপ একেবারেই নেই। এর ফলে শরীরের দুই পাশে ভরের মাঝে অসামঞ্জস্যতা দেখা দেয়।"

সমাধান: শরীরের ভারসাম্য যেন ঠিক থাকে সে দিকে লক্ষ্য রেখে চেষ্টা করতে হবে সবসময় পিঠে ঝোলানো ব্যাগ (ব্যাকপ্যাক) ব্যবহার করার জন্য। এতে করে একই সাথে অনেক ভারী জিনিসও বহন করা যাবে এবং শরীরে ভরের কোন তারতম্য ঘটবে না।

গাড়ি চালানোর ভঙ্গী

স্যামী বলেন, "বেশীরভাগ ক্ষেত্রে গাড়ি চালানর ক্ষেত্রে আমরা সচেতন থাকি না, সঠিক অঙ্গভঙ্গীর মাধ্যমে গাড়ি চালাই না। যার ফলে শরীরের পেছনের অংশে চাপ পড়ে থাকে।"

সমাধান: গাড়ি চালানোর সময় স্টিয়ারিং হুইল পর্যন্ত দুই হাত পৌঁছানো প্রয়োজন। একইসাথে দুই হাতের কনুই কোন একটি স্থানে রাখারও প্রয়োজন। এই সকল কিছু একসাথে করা সম্ভব যদি ড্রাইভিং সিটের নীচের অংশে পাতলা কুশন দিয়ে রাখা সম্ভব হয়। একইসাথে মনে রাখতে হবে, গাড়ি চালানোর সময়ে মাথা যেন সিটের হেড রেস্টিং এর সাথে স্পর্শ করে থাকে।

ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে অংশ নেবেন অস্কার জয়ী বাংলাদেশি নাফিস বিন জাফর 

দেশের সবচেয়ে বড় তথ্য-প্রযুক্তি মেলা ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৭’ এ অংশ নিতে যাচ্ছেন প্রথম বাংলাদেশি অস্কার জয়ী ব্যক্তি নাফিস বিন জাফর। সম্প্রতি ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড নিয়ে সচিবালয়ে তথ্য অধিদফতরের সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।


আয়োজক সূত্রে জানা গেছে, নাফিজ প্রদর্শনীর দ্বিতীয় দিন অর্থাৎ ৭ ডিসেম্বর অংশ নেবেন। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স সেন্টার-এর (বিআইসিসি) হল অব ফেমে সাড়ে ৫টায় একটি সেশনে অংশ নেবেন তিনি। সেশনটি চলবে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত।

এর আগে তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক জানিয়েছিলেন, বাংলাদেশ গেমিং ইন্ডাস্ট্রিতে ভালো করছে। এ ছাড়া দেশের তরুণদের মধ্যে গেমিং ইন্ডাস্ট্রিতে কাজের আগ্রহ রয়েছে। এ কারণে নাফিস বিন জাফরকে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডয়ে অংশ নেয়ার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। এতে আগ্রহ বৃদ্ধিপাবে তরুণদের মধ্যে।

নাফিস একজন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বাংলাদেশি সফটওয়্যার প্রকৌশলী এবং অ্যানিমেশন বিশেষজ্ঞ। তিনি প্রথম বাংলাদেশি ব্যক্তি হিসেবে ২০০৭ সালে অস্কার পুরস্কার জেতেন। হলিউডের পাইরেটস অফ দ্য ক্যারিবিয়ান: অ্যাট ওয়ার্ল্ড’স এন্ড চলচ্চিত্রে ফ্লুইড অ্যানিমেশনের জন্য সায়েন্টিফিক অ্যান্ড টেকনিক্যাল বিভাগে ডিজিটাল ডোমেইন নামে ভিজ্যুয়াল ইফেক্টস ডেভেলপার কোম্পানির হয়ে দুই সহকর্মী ডাগ রোবেল ও রিয়ো সাকাগুচি সাথে নাফিস এ পুরস্কার জেতেন।

এদিকে শুধু নাফিজ নয়, ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৭’-এ অংশ নিতে যাচ্ছে বিশ্বের প্রথম সোশ্যাল রোবট সোফিয়া এবং এর নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হ্যানসন রোবোটিক্স। এছাড়া ৪ দিনব্যাপী এই আয়োজনে গুগল-নুয়ান্সসহ খ্যাতিমান তথ্যপ্রযুক্তি সংশ্লিষ্ঠ প্রতিষ্ঠানের প্রায় দুই শতাধিক বক্তা ২৪টির বেশি সেমিনারে অংশ নেবেন। স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে আইটি ক্যারিয়ার-বিষয়ক সম্মেলনের পাশাপাশি উন্নয়ন সহযোগীদের নিয়ে থাকবে ডেভেলপার সম্মেলন। প্রযুক্তি প্রেমীদের জন্য মেলায় সফটওয়্যার শোকেসিং, ই-গভর্নেন্স এক্সপো, স্টার্টআপ জোন, কিডস জোন, মেড ইন বাংলাদেশ জোন এবং ইন্টারন্যাশনাল জোন থাকবে।

উল্লেখ্য, আগামী ৬-৯ ডিসেম্বর রাজধানীর বঙ্গবন্ধু ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স সেন্টারে (বিআইসিসি) পঞ্চম বারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে তথ্যপ্রযুক্তির এই মহাযজ্ঞ। মেলা চলবে সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত।

মেলায় প্রবেশ করতে চাইলে করতে হবে রেজিস্ট্রেশন। ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ওয়েব সাইট ছাড়াও মেলায় প্রবেশের জন্য বিনামূল্যে এই রেজিস্ট্রেশন করা যাবে মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে। এরজন্য গুগল অ্যাপ স্টোর থেকে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৭ নামে অ্যাপটি ডাউনলোড করতে হবে।

জানা যায়, এই অ্যাপের মাধ্যমে প্রতিদিনকার ইভেন্ট জানার পাশাপাশি মেলা সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্যও পাওয়া যাবে।

আইসিটি ডিভিশনের উদ্যোগে আয়োজিত এই মেলায় আয়োজন সহযোগী হিসেবে থাকছে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি), বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) ও একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই)।

মেলার পার্টনার হিসেবে থাকছে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কল সেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিং (বাক্য), ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব), বাংলাদেশ আইসিটি জার্নালিস্ট ফোরাম (বিআইজেএফ), বাংলাদেশ উইমেন ইন আইটি (বিআইডব্লিউটি), সিটিও ফোরাম।

এই হিম হিম শীতের সন্ধ্যায় এক কাপ মসলা চা হলে কেমন হয়? বিভিন্ন মসলা দিয়ে তৈরি এই চা খেতে যেমন সুস্বাদু, তেমনি পুষ্টিগুণের দিক থেকেও অনন্য। গলা খুসখুস অথবা কাশি থেকে পরিত্রাণ পেতে অতুলনীয় গরম গরম মসলা চা। জেনে নিন কীভাবে মসলা চা বানাবেন।


উপকরণ


দারুচিনির স্টিক অথবা গুঁড়া
আস্ত মৌরি অথবা গুঁড়া
আদা কুচি
জয়ফল গুঁড়া
গোলমরিচ
চা পাতা
পানি
দুধ

যেভাবে বানাবেন
একটি পাত্রে আধা কাপ পানি নিন। পানিতে সব মসলা দিয়ে দিন। চাইলে আস্ত দিতে পারেন মসলা। অথবা গুঁড়া করেও বানাতে পারেন মসলা চা। ১ চা চামচ চা পাতা ও স্বাদ অনুযায়ী চিনি দিন। চুলার জ্বাল কমিয়ে দিন। কয়েক মিনিট পর চুলা থেকে নামিয়ে ছেঁকে একটি কাপে ঢালুন। আধা কাপ গরম দুধ মেশান চায়ের সঙ্গে। গরম গরম মসলা চা পান করুন।

মাংসের কিমা দিয়ে মজাদার বিরিয়ানি রান্না করে ফেলতে পারেন। টক-ঝাল বিরিয়ানি উৎসব-পার্বণে পরিবেশন করা যায়। আবার অতিথি আপ্যায়নেও এটি রাখতে পারেন নিশ্চিন্তে। জেনে নিন কিমা বিরিয়ানি কীভাবে রান্না করবেন। 

রেসিপি: মজাদার কিমা বিরিয়ানি

উপকরণ

বাসমতী চাল- ৩৫০ গ্রাম
টক দই- ৩ টেবিল চামচ
আদা বাটা- ১ চা চামচ
ঘি- ১০০ গ্রাম
জাফরান- ১ চা চামচ
এলাচ- ৩টি
মরিচ গুঁড়া- ১ চা চামচ
লেবুর রস- ১ চা চামচ
মুরগির মাংসের টুকরা- ৪০০ গ্রাম
পেঁয়াজ- ১টি (বড়)
রসুন বাটা- ১ চা চামচ
দুধ- আধা কাপ
দারুচিনি- ১ স্টিক
লবঙ্গ- ৪টি
চিকেন স্টক- ১ কাপ
লবণ- স্বাদ মতো

যেভাবে রান্না করবেন

লবণ পানিতে চাল সেদ্ধ করুন। অর্ধেক সেদ্ধ হলে নামিয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। দুধের সঙ্গে জাফরান মিশিয়ে রাখুন। চুলায় মাঝারি আঁচে কড়াইয়ে ঘি গরম করে পেঁয়াজ কুচি ভেজে নিন। আস্ত মসলা দিয়ে দিন কড়াইয়ে। ফাটতে শুরু করলে মাংসের কুচি, আদা ও রসুন বাটা দিয়ে ৬-৭ মিনিট নাড়ুন। লবণ দিন। কিমা ভাজা ভাজা হয়ে গেলে দই ও মরিচ গুঁড়া দিয়ে দিন। মৃদু আঁচে ৩-৪ মিনিট রান্না করুন। চুলা থেকে কড়াই নামিয়ে নিন।

ওভেন প্রুফ পাত্রে আধা সেদ্ধ চাল ছড়িয়ে দিন। উপরে কিমার মিশ্রণ, অর্ধেক পরিমাণ জাফরান মেশানো দুধ ও লেবুর রস দিন। উপরে আবারও সেদ্ধ চাল দিন। একইভাবে বাকি অর্ধেক কিমা, দুধ ও লেবুর রস দিয়ে চাল দিয়ে ঢেকে দিন। একদম উপরে চিকেন স্টক ঢেলে নিন। পাত্রটি ঢেকে ওভেনে দিয়ে দিন। একদম কম তাপে ১৫ মিনিট বেক করুন। চাইলে গভীর পাত্রে একইভাবে বিরিয়ানি সাজিয়ে চুলায় মৃদু আঁচেও রান্না করতে পারেন। রান্না হয়ে গেলে গরম গরম পরিবেশন করুন মজাদার কিমা বিরিয়ানি।

 

মার্কেন অভিনেত্রী মেগান মার্কেলের সঙ্গে ব্রিটেনের প্রিন্স হ্যারির বাগদান সম্পন্ন হয়েছে। সোমবার হ্যারির বাবা প্রিন্স চার্লস এ ঘোষণা দিয়েছেন। হ্যারি-মার্কেলের বিয়ে ২০১৮ সালের বসন্তে অনুষ্ঠিত হবে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।


৩৩ বছরের হ্যারি ব্রিটিশ সিংহাসনের উত্তরাধিকারী এবং ৩৬ বছরের মার্কেল যুক্তরাষ্ট্রের আইনবিষয়ক টিভি সিরিয়াল ‘স্যুইটস’-এ অভিনয়ের জন্য পরিচিত। নভেম্বরের শুরুতে দুজনের বাগদান সম্পন্ন হয়।

লন্ডনের বাস ভবন ক্ল্যারেন্স হাউস-এ প্রিন্স চার্লস বলেন, ‘প্রিন্স হ্যারি রানি ও পরিবারের ঘনিষ্ঠজনদের বিষয়টি জানিয়েছে। মার্কেলের বাবা-মাকেও জানিয়েছেন এবং তাদের আশীর্বাদ নিয়েছে।’

বাকিংহাম প্যালেসের মুখপাত্র জানান, রানি ও এডিনবার্গের ডিউক এই বিয়ের খবরে উচ্ছ্বসিত এবং তাদের সুখী জীবন কামনা করেছেন।

বন্ধুদের মাধ্যমে ২০১৬ সালের জুলাই মাসে হ্যারি ও মার্কেলের পরিচয় হয়। এর কয়েক মাস পরেই হ্যারি সংবাদমাধ্যমের কাছে দুজনের সম্পর্কের কথা ঘোষণা দেন। তবে ওই বছর সেপ্টেম্বরের আগ পর্যন্ত তাদের এক সঙ্গে দেখা যায়নি। যুদ্ধাহত সেনাদের সমর্থনে এক খেলার অনুষ্ঠানে টরেন্টোতে দুজন একসঙ্গে প্রকাশ্যে আসেন।

ওই মাসে ভ্যানিটি ফেয়ার ম্যাগাজিনকে মার্কেল বলেন, ‘আমরা একে অন্যকে ভালোবাসি। আমরা সুখী। ব্যক্তিগতভাবে আমি ভালোবাসার গল্প পছন্দ করি। এক সময় আমাদের নিয়েও এমন গল্প হবে।’

প্রিন্স চার্লস ও প্রিন্সেস ডায়ানার ছোট ছেলে হ্যারি। এক সময় তিনি পরিবারের সবচেয়ে ‘উচ্ছৃঙ্খল’ ছেলে ছিলেন। প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার আগেই তিনি গাঁজা ও মদ পান করে মাতাল হতেন বলে নিজেই স্বীকার করেছেন। তবে আফগানিস্তানে সামরিক অভিযানে অংশগ্রহণে পর তার জীবন বদলে যায়।

মার্কেল এর আগে বিয়ে করেছিলেন। ওই বিয়েতে বিচ্ছেদে গড়িয়েছে। তিনি বেশ কয়েকটি টিভি ও চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। তবে চলমান ‘সুইটস’ সিরিজে র্যােচেল জেন চরিত্রে অভিনয় করে জনপ্রিয়তা পেয়েছেন।

হ্যারি ও মার্কেল উভয়েই মানবাধিকারের পক্ষে সোচ্চার। শিশুদের দাতব্য সংস্থার হয়ে বৈশ্বিক দূত হিসেবে উভয়েই কাজ করছেন।

শীতের পোশাকে নিজেদের মুড়িয়ে রাখাটা পছন্দ করেন না ফ্যাশন সচেতন তরুণেরা। অনেকেই ভেতরে একটা টি-শার্ট বা শার্ট পরে তার ওপরে পরেন ব্লেজার। তাই সেটা পাতলা হলেও ওম থাকে শরীরে।


ইনফিনিটি স্লিমফিট ব্লেজার একের ভেতর দুই অর্থাৎ অফিসে পরা যায় আবার বাইরে কোনো পার্টিতেও ঠিকমতো মানিয়ে যায়, এমন ব্লেজার তরুণদের পছন্দ। ব্লেজারের ভেতরে আগে একটা সাধারণ কাপড় ব্যবহার করা হতো। কিন্তু এবার সেখানে নকশার অংশ হিসেবেই দেখা যাচ্ছে বৈচিত্র্যময় কাপড়।

প্রধান ডিজাইনার ও পরিচালক নাইমুল হক খান বলেন- ‘আমরা সব সময় ট্রেন্ডের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে, তরুণদের পছন্দকে প্রাধান্য দেই। আমাদের সবচেয়ে বড় বিশেষত্ব আমরা গুণগত মানের সঙ্গে আপস করি না।’

শীতের কালেকশনের মধ্যে রয়েছে নানা রকম জ্যাকেট, ডেনিমের শার্ট, ফরমাল ও ক্যাজুয়াল ব্লেজার, ফুলস্লিভ শার্ট টি-শার্টসহ সব ধরনের শীতকালীন পোশাক।


সেই সঙ্গে রেগুলার কালেকশন তো থাকছেই।ঢাকাসহ সারা দেশে ইনফিনিটি শোরুমে এসব শীতের পোশাক পাওয়া যাচ্ছে।

 

প্রতিদিনের অনুষঙ্গ তো বটেই যেকোন অনুষ্ঠান ও উপলক্ষ্যের জন্যে মেকআপ করাটা খুবই সাধারণ একটি ব্যাপার নারীদের জন্য। সকালে অফিসে যাওয়ার সময় হালকা রঙের লিপস্টিক ও কাজল ব্যবহার করা এবং জমকালো কোন বিয়ের দাওয়াতে যাওয়ার সময় জমকালো ভাবে নিজেকে সাজানোর ধরণের জন্য বিভিন্ন ধরণের মেকআপ পণ্য ও সামগ্রীর প্রয়োজন হয়ে থাকে। এই সকল মেকআপ পণ্যের মাঝে রয়েছে কনসিলার, ফাউন্ডেশন, লিপস্টিক, ব্লাশ প্রভৃতি।


নিত্যদিনের ব্যবহার্য এই সকল পণ্যের মেয়াদকাল সম্পর্কে কতটুকু জানি আমরা? ত্বকের প্রতি যত্নবান হওয়ার জন্য শুধুমাত্র রূপচর্চা করাই কিন্তু যথেষ্ট নয়। মুখের ত্বকে নিত্যদিন যে সকল মেকআপ সামগ্রী ব্যবহার করা হচ্ছে তা ব্যবহার করা নিরাপদ কিনা, পণ্যের মেয়াদ রয়েছে কিনা সেটা সম্পর্কেও সম্যক ধারণা রাখা প্রয়োজন। কারণ সকল মেকআপ পণ্য তৈরিতে ব্যবহৃত হয় বিভিন্ন ধরণের কেমিক্যাল জাতীয় উপাদান। যার মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে যাবার পরে পণ্যগুলো একেবারে বিষাক্ত হয়ে পরে। ভুলবশত এই সকল পণ্য ব্যবহার করে ফেললে ত্বকের বড় ধরণের সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই প্রতিটি মেকআপ পণ্য ব্যবহারের নিরাপদ বয়সকাল জেনে রাখা প্রয়োজন নিজের ত্বকের ভালোর জন্য।

লিপস্টিক


অন্যান্য সকল ধরণের মেকআপ পণ্যের মাঝে লিপিস্টিক হলো সবচাইতে বেশীবার ব্যবহৃত পণ্য। সকল নারী নিয়মিত লিপিস্টিক ব্যবহার করলেও খুব কম সংখ্যক নারীই জানেন যে, যেকোন লিপিস্টিক এক বছরের বেশী সময় ধরে ব্যবহার করা একেবারেই অনুচিত। মেয়াদ উত্তীর্ণ লিপিস্টিক ব্যবহারের ফলে ঠোঁটের ত্বকে অনেক বেশী বিরূপ প্রভাব পড়তে পারে।

কন্সিলার


কন্সিলার হলো স্কিন-টোন-স্পেসিফিক ঘরানার মেকআপ সামগ্রী। যেটা বেশীরভাগ নারী নিয়মিত ব্যবহার করে থাকেন। মুখের ত্বকের অনাকাঙ্ক্ষিত দাগ ঢাকার জন্যে এই পণ্যটি ব্যবহৃত হয়ে থাকে। ত্বকের যেকোন প্রকার সমস্যা ও অ্যালার্জির প্রাদুর্ভাব এড়াতে চাইলে এক-দেড় বছর পর্যন্ত একটি কন্সিলার ব্যবহার করা উচিৎ। তার বেশি সময় ধরে একই কন্সিলার ব্যবহার করলে সেটা ত্বকের জন্য ক্ষতিকর হয়ে উঠতে পারে।

ব্লাশার


মুখমণ্ডলে গালের দুইপাশে হালকা গোলাপি আভা নিয়ে আসার জন্যে যে পন্যটি ব্যবহৃত হয়ে থাকে সেটা হলো ব্লাশার। প্রতিটি ব্লাশার এক বছর পর্যন্ত খুব দারুণ থাকে। তবে এক বছর পার হয়ে যাবার পরে সেটা ব্যবহার না করাই ত্বকের জন্য উত্তম।

লিপ গ্লস


ঠোঁটে চকচকে ভাব আনার জন্যে লিপস্টিক এর পাশাপাশি ব্যবহৃত হয়ে থাকে লিপ গ্লস। এটা হলো অন্যতম আরেকটি জনপ্রিয় মেকআপ পণ্য যা প্রায় সকল নারীর কাছেই থাকে। তবে যেহেতু লিপ গ্লস বেশীরভাগ সময়েই ব্যবহার করা হয়ে থাকে, সেহেতু প্রথম ব্যবহারের সময় থেকে দেড় বছর পর্যন্ত একটি লিপ গ্লস ব্যবহার করা নিরাপদ।

আইলাইনার


লিপিস্টিক ও লিপ গ্লসের পরে সর্বাধিক ব্যবহৃত মেকআপ পণ্য হলো আইলাইনার। সাধারণ আইলাইনার বিভিন্ন প্রকারের হয়ে থাকে। জেল আইলাইনার এর ক্ষেত্রে একই পণ্য ৩-৪ মাসের বেশি সময় ধরে ব্যবহার করা একেবারেই অনুচিত। তবে পেন্সিল আইলাইনার হলে চিন্তার কিছু নেই। একই পেন্সিল আইলাইনার টানা দুই বছর ধরে নিশ্চিন্তে ব্যবহার করা যাবে।

মাশকারা




আইলাইনার সবসময় ব্যবহার করা না হলে প্রতিটি নারীই বেশীরভাগ সময় মাশকারা ব্যবহার করে থাকেন। মাশকারা ব্যবহারের ফলে চোখে পাপড়ি ঘন ও লম্বা দেখায়। তবে দুঃখের কথা হচ্ছে, প্রথম ব্যবহারের পর একটি মাশকারা ৩-৪ মাসের বেশী সময় নিয়ে কখনোই ব্যবহার করা উচিৎ নয়। চোখের ক্ষেত্রে বাড়তি সতর্কতার প্রয়োজন রয়েছে বিধায়, চোখের জন্য ব্যবহৃত পণ্যের ক্ষেত্রেও বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করা জরুরি।

ফেসপাউডার


প্রতিদিনের বিউটি রুটিনের অন্যতম জনপ্রিয় ও প্রয়োজনীয় মেকআপ উপাদান হলও ফেসপাউডার। ভালো মানে ও ব্র্যান্ডের ফেস পাউডার সাধারণ দুই বছর সময় পর্যন্ত খুব ভালো থাকে। তবে যেকোন প্রকারের ফেসপাউডারই দুই বছর পর্যন্ত ব্যবহার করা নিরাপদ।

আইশ্যাডো


আইশ্যাডো সাধারণ দুই ধরণের হয়ে থাকে- ক্রিম এবং পাউডার। আপনি যদি ক্রিম আইশ্যাডো ব্যবহার করে থাকেন তবে সেটা এক বছর সময় পর্যন্ত ব্যবহার করা নিরাপদ। তবে পাউডার আইশ্যাডোর ক্ষেত্রে সেটার মেয়াদকাল হবে দুই বছর পর্যন্ত। তবে যেকোন ধরণের আইশ্যাডোই হোক না কেন, নিশ্চিত হয়ে নিতে হবে যে, আইশ্যাডোর মেয়াদ উত্তীর্ণ যেন না হয়ে যায়।

ফাউন্ডেশন


ভারী মেকআপের ক্ষেত্রে সঠিকভাবে মেকআপ করার জন্য ফাউণদেশন ব্যবহার করা খুবই জরুরি। এতে করে মুখে মেকআপ সুন্দরভাবে ও সঠিকভাবে সেট হয়। যেহেতু ত্বকের উপরে এটা সরাসরি লাগানো হয় সেহেতু ফাউনডেশন ব্যবহারের ক্ষেত্রে মেয়াদের ব্যাপারে বেশী সচেতন হওয়া প্রয়োজন। স্কিম ফাউন্ডেশন দেড় বছর পর্যন্ত ব্যবহার করা নিরাপদ। অন্যদিকে অয়েল-ফ্রি ফাউন্ডেশন এক বছর পর্যন্ত ব্যবহার করা উচিৎ।

ব্রোঞ্জার


ফাউন্ডেশন ক্যাটাগরির মাঝে পড়া এই মেকআপ পণ্য ব্রঞ্জার দুই বছর ধরে ব্যবহার করা যাবে। মূলত ব্রোঞ্জার ব্যবহার করা হয়ে থাকে ত্বকের রঙ ও টোন ঠিক করার জন্য। তবে একটা ব্যাপার মাথায় রাখতে হবে। দুই বছরের মাঝে ব্রঞ্জার ব্যবহারে যদি ত্বকে অ্যালার্জির উপদ্রব দেখা দেয় তবে তাৎক্ষনিকভাবে সেটা ফেলে দিতে হবে।

 

বিশ্বব্যাপী কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা শিল্পে আলোড়ন সৃষ্টি করা মানব শ্রেণির রোবট সোফিয়া বাংলাদেশ সফরে আসছে। চলতি বছরের ডিসেম্বরের ৬ তারিখে শুরু হতে যাওয়া দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় প্রযুক্তি উৎসব ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে অংশ নেবে সোফিয়া। বাংলাদেশ তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে।


১১ নভেম্বর বৃহস্পতিবার রাজধানীর কারওয়ান বাজারস্থ জনতা টাওয়ার সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে রোবট সোফিয়াকে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৭ এর প্রদর্শনীতে আসার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বলে জানিয়েছিলেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

বিজ্ঞাপন এবং মার্কেটিং অ্যাজেন্সি গ্রে অ্যাডভার্টাইজিং বাংলাদেশ সোফিয়ার ঢাকা সফরের ব্যবস্থা করছে এবং পৃষ্ঠপোষকতায় রয়েছে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ।

সোফিয়া দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় সবচেয়ে বড় এই আইসিটি ইভেন্টের দুটি সেশনে অংশ নেবে, যার মধ্যে রয়েছে প্রশ্ন ও উত্তর সেশন। সোফিয়ার সাথে ঢাকায় আসবে এই রোবটটির নির্মাণকারী ডেভিড হানসন। হানসন, আইসিটি ইভেন্টের রোবোটিক্স ও কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার উপর ফোকাস একটি কী নোট উপস্থাপন করবেন।

রোবট সোফিয়াকে ২০১৫ সালের ১৯ এপ্রিল থেকে সক্রিয় করা হয়। সম্প্রতি এই রোবটকে সৌদি আরবের নাগরিকত্ব দেওয়া হয় যা নিয়ে বিশ্বব্যাপী ব্যাপক আলোচনা সমালোচনা হয়। এমনকি ঐ আলোচিত রোবটটি নিয়ে আরেকটি মজার ঘটনা হলো একটি সাক্ষাৎকারে সোফিয়া জানায়, সে নিজের একটি পরিবার গড়তে চায়। শুধু তাই নয়, সোফিয়া আরও জানায়, প্রতিটি রোবটই সন্তানের পিতা-মাতা হতে চায়। তাই রোবটেরও সন্তান ধারণ করা প্রয়োজন।

হংকং ভিত্তিক কোম্পানি হ্যানসন রোবোটিক্স রোবটটি প্রশ্ন উত্তর দিতে পারে এমনভাবে ডেভেলাপ করেছে। এবং বিশ্বব্যাপী মিডিয়াগুলি এই রোবটের সাক্ষাৎকারও নিয়েছে।

গ্রাহকদের মন জয় করল হুয়াওয়ে নোভা টু আই 

বাজারে আসার অল্প ক’দিনের মধ্যেই গ্রাহকদের মন জয় করে নিয়েছে হুয়াওয়ের চার ক্যামেরার স্মার্টফোন হুয়াওয়ে নোভা টুআই। এ ফোনটিকে বাংলাদেশের প্রথম চার ক্যামেরার স্মার্টফোন বলে দাবি করেছে হুয়াওয়ে।


স্মার্টফোনটির ক্যামেরা দিয়েই গ্রাহকদের তাক লাগিয়ে দিয়েছে হুয়াওয়ে। হ্যান্ডসেটটির প্রথম আকর্ষণীয় ফিচার হচ্ছে এর চারটি ক্যামেরা। সামনে দুটি ও পেছনে দুটি। ফোনটিতে আছে হুয়াওয়ে ফুল ভিউ ডিসপ্লে, যার স্ক্রিন ও বডির আনুপাতিক মাপ ১৮:৯। এ ফিচারগুলো প্রথমবারের মতো বাজারে নিয়ে আসায় গ্রাহকরা উন্মোচণের দিন থেকে অগ্রিম বুকিং দেয়া শুরু করে দিয়েছে। এছাড়া হুয়াওয়ে নোভা টুআই-এর দামও গ্রাহকদের আকর্ষণের আরেকটি কারণ। ফোনটির ২৬,৯৯০ টাকা এবং গ্রাহককে সর্বোচ্চ বিক্রয়োত্তর সেবাও দেবে হুয়াওয়ে।

গত ৮ নভেম্বর নোভা টুআই অগ্রিম বুকিং দেয়া ক্রেতাদের হাতে তুলে দিতে রাজধানীর বসুন্ধরা সিটি শপিং মলে ছোট পরিসরে একটি উৎসবমূখর অনুষ্ঠানের আয়োজন করে হুয়াওয়ে। মূলত সেখানেই ফোনটির জন্য ক্রেতাদের এত আগ্রহ পরিলক্ষিত হয়। আনুষ্ঠানিক উন্মোচনের প্রায় তিন সপ্তাহ পরেও নোভা টুআই দেশের স্মার্টফোন বাজার মাতিয়ে রেখেছে।

আত্মহত্যা রোধে ফেসবুকের নতুন পদক্ষেপ 

চলতি বছরের মার্চে সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্ট ফেসবুক যুক্তরাষ্ট্রে একটি কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সফটওয়্যার এর পরীক্ষা চালানো শুরু করে। এই সফটওয়্যার দিয়ে ফেসবুক পোস্ট ও পোস্টের কমেন্টগুলো স্ক্যান করে আসন্ন আত্মহত্যার ইঙ্গিত পেতে পারে। সে সময় ফেসবুক এই সফটওয়্যারের বিস্তারিত প্রকাশ না করলেও এখন যুক্তরাষ্ট্রের বাহিরে পরীক্ষামূলকভাবে চালু করা হচ্ছে এটি।


ফেসবুকের পণ্য ব্যবস্থাপনার ভাইস প্রেসিডেন্ট গাই রোজেন জানান, যুক্তরাষ্ট্রে এই সফটওয়্যার সফল পরীক্ষা চালিয়েছে, তাই এখন যুক্তরাষ্ট্রের বাহিরে এই কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সফটওয়্যারের পরীক্ষা চালানো হচ্ছে। এই কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সফটওয়্যার সম্ভাব্য আত্মহত্যার সনাক্ত করবে এবং এই ধরনের রিপোর্ট পরিচালনার জন্য ফেসবুক কর্মীদের একটি দল সতর্ক থাকবে যারা এমন আত্মহত্যার ইঙ্গিত নিয়ে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিবে। সিস্টেমটি ব্যবহারকারীর বন্ধুর ফোন নাম্বার সহায়তা হিসেবে ব্যবহার করতে পারে। এছাড়া ফেসবুকের কর্মীরা প্রায়ই স্থানীয় কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপে এই কাজ করবে।

ফেসবুক বলছে, তারা প্রতি ঘণ্টায় আঞ্চলিক ভাষায় স্থানীয় কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করতে পারে এমন বিশেষজ্ঞ কর্মী নিয়োগ দেওয়ার চেষ্টা করছে।

বিশ্বের কোথায় কোথায় এই কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সফটওয়্যার প্রসারিত করা হবে তা নিয়ে কিছু না বললেও ইউরোপীয় ইউনিয়ন ছাড়া বিশ্বের সব জায়গায় ব্যবহার করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন রোজেন।

ফেসবুক সম্প্রতিক সময়ে তাদের লাইভ ব্রডকাস্ট ফিচার নিয়ে নানা সমালোচনায় রয়েছে। যেমন- লাইভে এসে আত্মহত্যা কিংবা লাইভে খুনের দৃশ্য সম্প্রচার করা

 ভুল করে নিউ ইয়র্ক টাইমসের টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ ছিল

মাইক্রো ব্লগিং সাইট টুইটার ভুল করে মার্কিন শীর্ষ সংবাদমাধ্যম নিউ ইয়র্ক টাইমসের পেজটি ২৪ ঘণ্টার জন্য বন্ধ রেখেছিল। নিউ ইয়র্ক টাইমসের আন্তর্জাতিক বিভাগের টুইটার অ্যাকাউন্টে রয়েছে প্রায় ২০ লাখ ফলোয়ার এবং এটি ভেরিফাইড অ্যাকাউন্ট।


২৫ নভেম্বর শনিবার নিউ ইয়র্ক টাইমস কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোকে নিয়ে করা প্রতিবেদন পোস্টের পরপরই অ্যাকাউন্টটি লক হয়ে যায়। সংবাদপত্রে বলা হয়েছে, এটি টুইটারের ঘৃণামূলক নিয়ম লঙ্ঘনের কারণ দেখিয়ে বন্ধ করা হয়েছে অ্যাকাউন্টটি। অ্যাকাউন্টটি থেকে দেওয়া ওই পোস্টে বলা হয়েছিল, ‘এক দশক আগে কোনো ক্ষমা প্রার্থনা না পেলেও, নিউফাউন্ডল্যান্ড আর ল্যাবরাডোরের অধিবাসীরা জাস্টিন ট্রুডোর কাছ থেকে ক্ষমা প্রার্থনা পেল।’ বন্ধ করার ২৪ ঘণ্টা পর অবশ্য আবারও নিউ ইয়র্ক টাইমস তাদের টুইটার অ্যাকাউন্টে পোস্ট শেয়ার করতে পারে।

নিউ ইয়র্ক টাইমসের ওই পেজ থেকে সাধারণত একদিনে ১০০ টুইটের বেশি পোস্ট করে থাকে।  টুইটার জানিয়েছে, তাদের কোনো এজেন্টের করা ভুলের কারণে এমনটা হয়েছে।

টুইটারের ভুলের ঘটনা এই প্রথম নয়। এর আগে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের টুইটার অ্যাকাউন্টটি এক কর্মীর কারণে ১১ মিনিটের জন্য বন্ধ থাকে।

সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয় বিভাগের ফেসবুক পেজ ভেরিফায়েড হচ্ছে 

সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ, দপ্তর ও অধিদপ্তরের ফেসবুক পেজ ভেরিফাইড হচ্ছে। কিছুদিনের মধ্যে পেজগুলো ভেরিফায়েড করার প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে। কাজটি শেষ হলে ফেসবুক ব্যবহারকারীরা বুঝতে পারবেন কোনটি প্রকৃত পেজ। ফলে সেসব পেজ থেকে শেয়ার করা ছবি, খবরের কারণে সরকারের বিভিন্ন কাজ, উন্নয়ন চিত্র ইত্যাদি নিয়ে গুজব ছড়ানো বন্ধ হবে।


সোমবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ের আইসিটি টাওয়ারে সরকারি কর্মকর্তাদের নাগরিক সেবায় ফেসবুক ব্যবহার শীর্ষক কর্মশালায় এসব তথ্য জানানো হয়। কর্মশালায় অংশ নেন শতাধিক সরকারি কর্মকর্তা। কর্মশালার আয়োজক তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের লিভারেজিং আইসিটি ফর গ্রোথ, এমপ্লয়মেন্ট অ্যান্ড গভর্নেন্স (এলআইসিটি) প্রকল্প।

কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহেমদে পলক।   

কর্মশালায় ফেসবুক কর্তৃপক্ষ সরকারি কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণের পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট দপ্তরের পেজগুলো নিয়েও কাজ করেন।

এলআইসিটি প্রকল্পের ইন্ডাস্ট্রি প্রমোশন স্পেশালিস্ট হাসান বেনাউল ইসলাম কাজল জানান, ফেসবুকের মাধ্যমে নাগরিকরা কিভাবে সহজে সেবা পাবেন, সমস্যা সমাধান এবং উদ্ভাবনে নাগরিকদের সঙ্গে নিয়ে কিভাবে কাজ করা যায় এসব বিষয়ে কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে ফেসবুক।

ফুলকপির বিরিয়ানি 

বিরিয়ানি বা বিরানি দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলো, বিশেষ করে ভারত, বাংলাদেশ, মিয়ানমার প্রভৃতি দেশে বেশ প্রচলিত খাবার। এটি সুগন্ধি চাল, ঘি, গরম মসলা এবং মাংস মিশিয়ে রান্না করা হয়। তবে গতানুগতিক ধারার বাইরে গিয়ে এখন মাংসের পরিবর্তে সবজি দিয়েও বিরিয়ানি রান্না করা হয়। যেমন- আলু অথবা ফুলকপির বিরিয়ানি। চলুন, আজকে আমরা জেনে নিই ফুলকপির রেসিপি-



উপকরণ


ফুলকপি ১ কেজি বড় টুকরা

পোলাউ চাল ১/২ কেজি

পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ

বেরেস্তা ১/২কাপ

আদা, রসুন, জিরা, হলুদ ১ চা চামচ

লবণ স্বাদমতো

গরম মসলা

জয়ত্রি সামান্য

লাল মরিচ গুরা ১/২চা চামচ

কাঁচা মরিচ

তেল

কেওড়া জল ১/২চা চামচ

পানি

প্রণালি:


প্রথমে ফুলকপি ধুয়ে রাখুন এবং পাতিলে তেল গরম করে তাতে গরম মসলা ও পেঁয়াজ দিয়ে বাদামি করে ভেজে নিন। এবার সব মসলা দিয়ে ভালো করে কষিয়ে কপিগুলা দিয়ে অল্প পানি দিয়ে কষান, আধা সেদ্ধ হয়ে এলে একটি বাটিতে তুলে নিন।

এবার মসলাগুলাতে চাল ধুয়ে দিয়ে দিন ২ মিনিট নেড়ে পানি দিয়ে দিন। পানি যখন ফুটে উঠবে কপিগুলো আর কাঁচামরিচ দিয়ে ঢাকনা দিন। আঁচ কমিয়ে দিন বা তাওয়ার উপরও রাখতে পারেন।

বিরিয়ানি হয়ে আসলে পেঁয়াজ বেরেস্তা ও কেওড়া জল দিয়ে ১০ মিনিট দমে রেখে তারপর পরিবেশন করুন।

বারবিকিউ স্বাদে সিজলিং সবজি 

একটু পোড়া পোড়া স্বাদ ও ঘ্রাণে ভরা সবজি, চিন্তা করে দেখেছেন আসলেই স্বাদটা কেমন হবে? জি সিজলিং সবজির কথাই বলা হচ্ছে। যদি বাড়ির তৈরি সবজি ভাজি খেয়ে খেয়ে বিরক্ত ধরে যায়, তাহলে আপনার সবজি রান্নায় নিয়ে আসুন ভিন্নতা। আর এই শিতে এটা খেতে বেশি ভালো লাগে।  খুব কম সময়ে তৈরি করে ফেলুন সিজলিং সবজি। দখে নিন রেসিপিটা।


উপকরণ:


গাজর, ক্যাপসিকাম, ফুলকপি, বাঁধাকপি, বরবটি, বেবিকর্ন ইত্যাদি
পছন্দমতো নানা স্বাদের সবজি ৪ কাপ।
বারবিকিউ সস সিকি কাপ,
আদা কুচি ১ চা-চামচ,
রসুন কুচি ১ চা-চামচ,
পেঁয়াজ মোটা কুচি ২ টেবিল চামচ,
সয়াসস ২ টেবিল চামচ,
তেল ২ টেবিল চামচ,
তেল ভাজার জন্য প্রয়োজনমতো,
চিনি ১ টেবিল চামচ,
পেঁয়াজ চারকোনা করে কাটা আধা কাপ,
মাখন ১ টেবিল চামচ,
কাঁচামরিচ কুচি ১ টেবিল চামচ,
কর্নফ্লাওয়ার ১ চা-চামচ।

প্রণালি:


সবজিগুলো এক মাপে কেটে স্টিলের ঝাঁঝরিতে একে একে ভেজে নিন। চারকোনা পেঁয়াজও এভাবে ভেজে নিন। পাত্রে ২ টেবিল চামচ তেল দিয়ে আদা, রসুন, মরিচ কুচি একটু ভেজে নিয়ে তাতে ভাজা সবজি দিন। বাকি মসলাগুলো দিয়ে নাড়ুন। এবার ১ চা-চামচ কর্নফ্লাওয়ার সিকি কাপ পানিতে গুলিয়ে সবজিতে ঢেলে দিন। সবশেষে বারবিকিউ সস দিয়ে নেড়ে নামান।

সবজি নামানোর ১০ মিনিট আগেই সিজলিং ডিশ গরম করে রাখুন। গরম সিজলিং ডিশে মাখন ও পেঁয়াজ কুচি দিয়ে তাতে রান্না করা সবজি ঢেলে তাড়াতাড়ি পরিবেশন করুন।

এ কেমন রাজনীতিবিদ! 

 রক্ত মাংসের মানুষ নয়, আছে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা। আর তা দিয়েই রাজনীতিতে আসবে। এমন দিনের কথা আপনি কি কোনো সময় কল্পনা করেছেন? এমন ঘটনা আপনি কল্পনা করতে না পারলেও দক্ষিণ পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগরের দেশ নিউজিল্যান্ডে তা বাস্তবায়িত হতে যাচ্ছে। ২০২০ সালে নিউজিল্যান্ডে জাতীয় নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে স্যাম নামের ‘কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার রাজনীতিবিদ’।


নিউজিল্যান্ডের উদ্যোক্তা নিক গ্যারিটসেন কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার রাজনীতিবিদ চ্যাটবট উদ্ভাবন করেছেন। উদ্ভাবিত ভার্চ্যুয়াল রাজনীতিবিদ গৃহায়ণ, শিক্ষা ও অভিবাসনের মতো ইস্যু ছাড়াও স্থানীয় নানা বিষয়সহ নিয়ে মানুষের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিতে পারে। গ্যারিটসেন বলেন, বর্তমানে রাজনীতির চর্চায় মতপার্থক্য অনেক বেশি। তাই এসব বিষয় সমাধান করার জন্যই কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার রাজনীতিবিদ উদ্ভাবন করেছেন তিনি।

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার এই চ্যাটবটে বর্তমানে নিউজিল্যান্ড নিয়ে আগে থেকে বাছাই করা কিছু বিষয়ের উপর প্রশ্ন করা যাবে। আর তাত্ত্বিকভাবে স্যাম যত বেশি জনগণের মতামত পাবে এর কার্যকরিতা তত বাড়বে বলে জানান গ্যারিটসেন। তিনি আশা করছেন, ২০২০ সাল নাগাদ এই উদ্ভাবন স্বয়ংসম্পূর্ণ হবে। এবং ওই বছর নিউজিল্যান্ডে জাতীয় নির্বাচন হবে যেখানে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে স্যাম।

নির্বাচনে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার প্রতিদ্বন্দ্বিতা আইনসিদ্ধ নয় এমন প্রশ্নে গ্যারিটসেনের উত্তর, স্যাম সবকিছু করতে পারে এবং আইনের মধ্যে থেকেই কার্যক্রম পরিচালনার পরিকল্পনা করছি আমরা।

 

১২ ডিসেম্বরকে ‘জাতীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি দিবস’ ঘোষণার প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। ২৭ নভেম্বর আইসিটি ডিভিশন থেকে সংবাদমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।


এতে বলা হয়, ১২ ডিসেম্বরকে ‘জাতীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি দবিস’ হিসেবে ঘোষণার লক্ষ্যে চলতি বছরের ১২ নভেম্বর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব এর সভাপতত্বিে একটি আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা অনুষ্ঠতি হয়।  উক্ত সভায় ১২ ডিসেম্বর দিনটিকে ‘জাতীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি দিবস হিসেবে পালনের জন্য সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এছাড়াও র্অথ বভিাগ থেকে ২২ নভেম্বর ‘জাতীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি দিবস হিসবে পালনের বিষয়ে অনাপত্তি জ্ঞাপন করা হয়।

২৭ নভেম্বর সোমবার মন্ত্রিসভার এক বৈঠকে ১২ ডিসেম্বরকে ‘জাতীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি দিবস’ ঘোষণার প্রস্তাবে অনুমোদন দেওয়া হয়।

এদিকে বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, বাংলাদেশের ডিজিটাল বিপ্লবের ঘোষাণাটি আসে ২০০৮ সালের ১২ ডিসেম্বর। ওইদিন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের অঙ্গীকার করা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রাক্কালে যে রূপকল্প ২০২১ বাস্তবায়নের ঘোষণা দেন তার মূল উপজীব্য ছিল ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আধুনিক চিন্তা এবং আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ জনাব সজীব ওয়াজেদ এর তথ্যপ্রযুক্তিলদ্ধ জ্ঞান থেকে উৎসারিত এই ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ যার মূল লক্ষ্য ২০২১ সালের মধ্যে একটি জ্ঞানভিত্তিক আধুনিক বাংলাদেশ বিনির্মাণ।

এ বিষয়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘২০০৮ সালের ১২ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগ সভাপতি, জননেত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপকল্প ঘোষণা করেন। সরকার গঠনের পর আমাদের কার্যক্রমের মাধ্যমে ডিজিটাল বাংলাদেশ আজ  দেশে-বিদেশে প্রশংসিত এবং অনুকরণীয়। দেশের মানুষ এই রূপকল্পের সুফল ভোগ করছে। ফলে মন্ত্রিসভা কর্তৃক আজকের এই অনুমোদনের ফলে ডিজিটাল বাংলাদেশ কার্যক্রম চূড়ান্ত লক্ষ্যের দিকে আরও একধাপ অগ্রগতি হলো।’

২ ডিসেম্বর থেকে দেশের বাজারে ৬ জিবি র‍্যামের অপো এফ৫ 

চীনা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান অপো সম্প্রতি অপো এফ৫ এর ৬জিবি সংস্করণ উন্মোচন করেছে। চলতি বছরের ডিসেম্বরের ২ তারিখ থেকে বাংলাদেশের বাজারে ৩২,৯৯০ টাকায় পাওয়া যাবে ফোনটি।


অপো বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড্যামন ইয়াং বলেন, ‘সেলফি প্রেমিকদের সেরা অভিজ্ঞতা দেয়ার জন্য আমরা অপো এফ৫ ৬ জিবি নিয়ে এসেছি। আশা করি, এই ফোনটির উদ্ভাবনী সব ফিচার গ্রাহকদেরকে সর্বোচ্চ আনন্দ দিবে এবং আমাদের বিশ্বাস, সবাই এই ফোনটির প্রেমে পড়ে যাবে’। 

৬ জিবি র‍্যাম এবং ৬৪ জিবি রম এর অপো এফ৫ ৬ জিবি সংস্করণে আছে অনেক বেশি স্টোরেজ ক্ষমতা ও উন্নত প্রসেসর। অনেক বেশি স্টোরেজ ক্ষমতা থাকায় গ্রাহকরা স্বাচ্ছন্দে এই ফোন ব্যবহার করতে পারবেন। অপো এফ৫ ৬ জিবি’র অসাধারণ বিউটি টেকনোলোজি সেলফিকে আরও সুন্দর করে তুলবে। আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স বিউটি টেকনোলোজি একটি গ্লোবাল ডাটাবেজ এর উপর ভিত্তি করে মুখের আকার ও গঠন চিহ্নিত করে এবং একটি চেহারার গঠন ও আকার অন্যটি থেকে সহজেই আলাদা করতে পারে। সেলফিকে প্রাণবন্ত করে তুলতে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সের ব্যবহার বিষয়ে প্রফেশনাল ফটোগ্রাফার ও মেক-আপ আর্টিস্টদের পরামর্শ নেওয়া হয়।

অপো এফ৫ ৬ জিবি’তে আছে ৬.০ ইঞ্চি ফুল এইচডি ও ফুল-স্ক্রিন এবং ১৮.৯ আসপেক্ট রেশিও ডিসপ্লে, যা ব্যবহারকারীকে ফোনের ডিসপ্লে সাইজ বাড়ানো ছাড়াই বেশকিছু ভিজুয়্যাল সুবিধা উপভোগ করার সুযোগ দিচ্ছে। মধ্যম মানের ফোনগুলোর মধ্যে এরকম ডিসপ্লে’র ফোন এটিই প্রথম। 

আইডিসি অনুযায়ী, ২০১৬ তে সারাবিশ্বে ৪ নম্বর স্মার্টফোনের র‌্যাংক অর্জন করেছে। বর্তমানে সারাবিশ্বে ১০০ মিলিয়ন তরুণদের অপো দিচ্ছে অসাধারণ স্মার্টফোন ফটোগ্রাফির অভিজ্ঞতা।

সপ্তম প্রজন্মের নতুন ল্যাপটপ আনলো ওয়ালটন 

সপ্তম প্রজন্মের প্রসেসরযুক্ত নতুন ল্যাপটপ এনেছে ওয়ালটন। আকর্ষণীয় ডিজাইন ও উন্নত ফিচারসমৃদ্ধ এই ল্যাপটপে ব্যবহৃত হয়েছে কোর আই ফাইভ প্রসেসর। যা দেবে উচ্চগতি এবং মাল্টিটাক্সিং সুবিধা। ল্যাপটপে কাজ কিংবা গেম খেলা হবে আরও সহজ ও আনন্দময়।


প্যাশন সিরিজের এই ল্যাপটপের মডেল WP157U5G. দেশের সব ওয়ালটন প্লাজা ও সেলস পয়েন্টে পাওয়া যাচ্ছে উচ্চমানের এই ল্যাপটপ। ধূসর (গ্রে) রঙের ল্যাপটপটির দাম ৪৩,৯৫০ টাকা।

ওয়ালটনের নতুন এই ল্যাপটপের অন্যতম উল্লেখযোগ্য ফিচার এর মাল্টি-ল্যাংগুয়েজ এ ফোর সাইজ কিবোর্ড। যাতে স্ট্যান্ডার্ড ইংরেজির পাশাপাশি রয়েছে বিল্ট-ইন বাংলা ফন্ট। ফলে বাংলা ভাষাভাষী যে কেউ অনায়াসেই এই ল্যাপটপ ব্যবহার করে লিখতে পারবেন।

ওয়ালটনের কম্পিউটার প্রজেক্ট ইনচার্জ মো. লিয়াকত আলী জানান, গত জুন মাসে ইন্টেলের সপ্তম জেনারেশনের প্রসেসরযুক্ত প্রথম ল্যাপটপ বাজারে ছাড়ে ওয়ালটন। যার মডেল WP157U3G. ৩৫,৫৫০ টাকা মূল্যের কোর আই থ্রি প্রসেসরের ওই ল্যাপটপ ক্রেতাদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া ফেলে। ক্রেতাচাহিদার কথা বিবেচনা করে এবার একই কনফিগারেশনের কোর আই ফাইভ প্রসেসরযুক্ত ল্যাপটপ বাজারে ছাড়া হয়েছে।

নতুন এই ল্যাপটপে ব্যবহৃত হয়েছে ১৫.৬ ইঞ্চির এইচডি ডিসপ্লে। পর্দার রেজ্যুলেশন ১৩৬৬ বাই ৭৬৮। যা দেবে নিখুঁত ও জীবন্ত ছবি। বিভিন্ন কোণ থেকে ডিসপ্লে দেখা যাবে স্পষ্টভাবে।

এতে আছে ২.৫ গিগাহার্জ গতির ইন্টেল কোর আই ফাইভ ৭২০০ইউ প্রসেসর। সঙ্গে রয়েছে বিল্টইন ইন্টেল এইচডি গ্রাফিক্স ৬২০। ফলে গেম খেলার সময় উচ্চ গ্র্যাফিক্যাল ইন্টারফেস পাওয়া যাবে। ভিডিও এডিটিং কাজে গ্রাফিক্যাল কালার ও মানও হবে উন্নত। এতে ব্যবহৃত হয়েছে ৪ গিগাবাইট ডিডিআর৪ র্যা ম। ফলে প্রয়োজনীয় কাজ কিংবা পছন্দের গেম খেলায় পাওয়া যাবে দারুণ গতি।

প্রয়োজনীয় ফাইল, সফটওয়ার, গেম, মুভি ইত্যাদি সংরক্ষণের জন্য এই ল্যাপটপে এক টেরাবাইট হার্ডডিক্স ড্রাইভের সঙ্গে রয়েছে ৭ মিমি সাটা ইন্টারফেস। ফলে সুযোগ থাকছে আরো বেশি জায়গাযুক্ত হার্ডডিক্স ড্রাইভ ব্যবহারের।

দীর্ঘক্ষণ পাওয়ার ব্যাকআপের নিশ্চয়তায় নতুন এই ল্যাপটপে ব্যবহৃত হয়েছে শক্তিশালী ৪ সেলের লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি। যা পাঁচ ঘন্টা পর্যন্ত পাওয়ার ব্যাকআপ দিতে সক্ষম।

এতে রয়েছে ১ মেগা পিক্সেলের এইচডি ক্যামেরা। ফলে ভিডিও কল হবে প্রাণবন্ত। ধারণ করা যাবে এইচডি মানের ভিডিও। আকর্ষণীয় গেমিং আবহ তৈরি, গান শোনা ও মুভি দেখায় বাড়তি মাত্রা যোগ করবে এর হাই ডেফিনেশন অডিও। দুইটি বিল্ট ইন স্পিকার দেবে স্পষ্ট ও জোড়ালো শব্দ।

কানেকটিভিটির জন্য রয়েছে ৪টি ইউএসবি পোর্ট, নাইন-ইন-ওয়ান কার্ড রিডার, ব্লুটুথ ভার্সন ৪, ওয়্যারলেস ল্যান, এইচডিএমআই ও ভিজিএ পোর্ট, হেডফোন ও মাইক্রোফোন জ্যাক ইত্যাদি। ব্যাটারিসহ এর ওজন মাত্র ২.২ কেজি।

ওয়ালটনের পণ্য ব্যবস্থাপক (ল্যাপটপ) মোহাম্মদ আবুল হাসনাত জানান, নতুন এই ল্যাপটপ নিয়ে ওয়ালটনের ল্যাপটপ প্রোডাক্ট লাইনে যুক্ত হলো ২৭টি ভিন্ন ভিন্ন মডেল। ভিন্ন ভিন্ন ফিচার ও কনফিগারেশন এসব ল্যাপটপের দাম ২২ হাজার ৪৯০ টাকা থেকে ৮৩ হাজার ৫৫০ টাকার মধ্যে। সব মডেলের ল্যাপটপে থাকছে সর্বোচ্চ ২ বছরের ফ্রি বিক্রয়োত্তর সেবা।

ওয়ালটনের রয়েছে বিভিন্ন মডেলের গেমিং এবং সাধারণ কিবোর্ড ও মাউস। সাশ্রয়ী মূল্যের এসব কিবোর্ডের দাম ৩৯০ টাকা থেকে ১৫৫০ টাকার মধ্যে। আর মাউসের দাম ২২০ টাকা থেকে ৫৯০ টাকার মধ্যে। এছাড়াও, খুব শিগগিরই ওয়ালটন আনছে বেশ কিছু নতুন পণ্য। যার মধ্যে রয়েছে ডেস্কটপ পিসি, মনিটর, পেনড্রাইভ, মেমোরি কার্ড এবং ওয়াইফাই রাউটার।

মাত্র ২০ শতাংশ ডাউন পেমেন্ট দিয়ে ক্রেতারা ১২ মাসের কিস্তিতে কিনতে পারেন ট্যা মারিন্ড, প্যাশন, কেরোন্ডা ও ওয়াক্সজ্যাম্বু সিরিজের সব মডেলের ল্যাপটপ।

 

চালু হচ্ছে মোবাইলভিত্তিক রাইড শেয়ারিং অ্যাপ ইজিয়ার। অ্যাপটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানাতে রবিবার রাজধানীর স্থানীয় এক রেস্তোরাঁয় সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। দেশি উদ্যোক্তা এবং প্রযুক্তিবিদদের তৈরি রাইড শেয়ারিং মোবাইল অ্যাপটি নিয়ে এসেছে ইনোভেডিয়াস প্রাইভেট লিমিটেড।


সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ইনোভেডিয়াস প্রাইভেট লিমিটেডের পরিচালক রানা আহাদ ও কামরুল হাসান ইমন। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বিজয়ের মাসের প্রথমদিন থেকে ঢাকার রাস্তায় থাকবে ইজিয়ার। সেবা পেতে স্মার্টফোনে অ্যাপটি ইনস্টল করে অন ডিমান্ড গাড়ি ও বাইক বুকিং দেওয়া যাবে। এছাড়া আগামী বছরের শুরু থেকে প্রি-রিজার্ভেশনের অপশন দিয়ে দূর যাত্রার জন্য গাড়ি বুকিং দিলে সময় মতো গাড়ি হাজির হবে দরজায়।

কামরুল হাসান ইমন বলেন, ইজিয়ার একটি মেড ইন বাংলাদেশ উদ্যোগ। আমাদের উদ্যোগের পাশে সবাইকে চাই। যাত্রী ও ড্রাইভ পার্টনারদের যে কোনও সমস্যার সমাধান মুহূর্তেই আমরা দেব। ড্রাইভ পার্টনার ও যাত্রীদের আকৃষ্ট করতে থাকছে নানা ধরনের আকর্ষণীয় বোনাস, প্রমোশনাল অফার।

রানা আহাদ বলেন, আমরা দীর্ঘদিন আলোচনা করে অ্যাপটি ডিজাইন করেছি। এতে করে ড্রাইভাররা সহজে কিভাবে পেসেঞ্জারের রিকোয়েস্ট গ্রহণ, যাত্রাপথে ম্যাপ দেখা কিংবা যাত্রা শেষে সহজেই মিটারে আসা ভাড়া জানতে পারবেন। তাছাড়া দীর্ঘদিন যাত্রীদের পছন্দের পরিসংখ্যান করে ইউআই ডিজাইনটি করা হয়েছে যেখানে সহজেই ম্যাপে গন্তব্য দেখতে পারবেন।

অ্যাপটি গুগল প্লে স্টোরে পাওয়া যাচ্ছে। অচিরেই অ্যাপল প্লে স্টোরেও পাওয়া যাবে। ঢাকায় এই অ্যাপভিত্তিক গাড়ি ও বাইক শেয়ারিং সার্ভিসের বাণিজ্যিক যাত্রা শুরু হওয়ার পর আগামী বছরের মাঝামাঝি চট্টগ্রাম ও সিলেটসহ বড় শহরগুলোতে ইজিয়ারের সুবিধা পাওয়া যাবে।

 

রাজধানীতে আবারও বসছে ল্যাপটপ মেলা। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ১৪ ডিসেম্বর তিনদিনের ল্যাপটপ মেলার উদ্বোধন করা হবে। শেষ হবে ১৬ ডিসেম্বর।


ক্রেতা-দর্শনার্থীদের জন্য মেলা প্রাঙ্গণ খোলা থাকবে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত। এক্সপো মেকারের আয়োজনে এটি দেশের ১৯তম ল্যাপটপ মেলা।

মেলায় সর্বশেষ প্রযুক্তি ও ডিজাইনের ডিভাইস নিয়ে হাজির হবে অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলো। জনপ্রিয় ব্র্যান্ডগুলোর অত্যাধুনিক মডেলের ল্যাপটপের পাশাপাশি আনুষঙ্গিক যন্ত্রাংশও পাওয়া যাবে মেলায়। সব ধরনের পণ্যে পাওয়া যাবে বিশেষ ছাড় ও উপহার।

এবারের মেলায় থাকছে একটি মেগা-প্যাভিলিয়ন, পাঁচটি স্পন্সর প্যাভিলিয়ন, ১৪টি মিনি প্যাভিলিয়ন ও ২৭টি স্টল। পৃষ্ঠপোষকতা করছে শীর্ষস্থানীয় ল্যাপটপ ব্র্যান্ড এসার, আসুস, ডেল, এইচপি ও লেনোভো। টিকিট বুথ স্পন্সর আরওজি।

মেলার পার্টনার হিসেবে রয়েছে দেশের প্রযুক্তি বিষয়ক পোর্টাল টেকশহরডটকম, পিপলস রেডিও ও এডুমেকার। মেলায় একটি মিডিয়া বুথও থাকবে।

শাহি টুকরা বানাবেন যেভাবে 

পাউরুটি ও ঘন দুধ দিয়ে সুস্বাদু শাহি টুকরা বানিয়ে ফেলতে পারেন। ডেসার্ট হিসেবে এটি পরিবেশন করা যায়। অতিথি অ্যাপায়নেও শাহি টুকরা নিয়ে আসবে ভিন্নতা। জেনে নিন কীভাবে বানাবেন মজাদার এই ডেসার্ট।


উপকরণ


বড় পাউরুটি- ৪ টুকরা
ফুল ক্রিম দুধ- ১ কাপ
কনডেন্সড মিল্ক- আধা কাপ
চিনি- আধা কাপ
জাফরান- সামান্য
গোলাপজল- ২ চা চামচ
কেওড়া পানি- ২ চা চামচ
এলাচ গুঁড়া- ১ চা চামচ
ছানা- ১ কাপ
পেস্তা বাদাম- ১/৪ কাপ
মাখন- ভাজার জন্য

প্রস্তুত প্রণালি

পাউরুটির চারপাশের শক্ত অংশ ফেলে ত্রিকোণ করে স্লাইস করুন। প্যানে মাখন দিয়ে পাউরুটি সোনালি করে ভেজে নিন। প্যানে দুধ ফুটিয়ে নিন। মাঝারি আঁচে দুধ অর্ধেক হওয়া পর্যন্ত জ্বাল দিতে থাকুন। কনডেন্সড মিল্ক, চিনি, জাফরান দিয়ে নাড়তে থাকুন। এবার গোলাপজল ও কেওড়া পানি দিন। ছানা কুচি করে দিয়ে দিন। সব উপকরণ ভালো করে মেশান। একটি ছড়ানো পাত্রে পাউরুটির টুকরা সাজিয়ে দুধের মিশ্রণ ঢেলে দিন উপরে। উপরে পেস্তা বাদাম কুচি ছিটিয়ে ফ্রিজে রাখুন। ঠাণ্ডা হলে পরিবেশন করুন মজাদার শাহি টুকরা। 

 

বলিউড সুপারস্টার সালমান খান ও অভিনেত্রী ক্যাটরিনা কাইফের মুগ্ধকর রসায়নে আগুন ধরে গেছে ইউটিউবে! তাদের নতুন ছবির গান ‘সোয়াগ সে স্বাগত’ প্রকাশের প্রথম ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশিবার দেখা ভিডিওর রেকর্ড গড়েছে। এটি আলি আব্বাস জাফর পরিচালিত ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’ ছবির প্রথম গান।


প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান যশরাজ ফিল্মসের সংগীত বিভাগের টুইটার অ্যাকাউন্টে বলা হয়েছে, ২১ নভেম্বর প্রকাশিত হয় গানটি। প্রথম দিনে ১ কোটি ১২ লাখ ৩৫ হাজার ৬২৪ বার দেখা হয়েছে এর ভিডিও। আর এতে লাইক পড়েছে ৩ লাখ ৩৫ হাজার ৪৮৭টি।

বলিউড তো বটেই, এর আগে চলতি বছর বিশ্বের আর কোনও গান প্রথম ২৪ ঘণ্টায় এতবার দেখা হয়নি। ইউটিউবের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশিবার দেখা ভিডিও লুই ফনসি ও ড্যাডি ইয়াঙ্কির ‘দেসপাসিতো’ গত জানুয়ারিতে ২৪ ঘণ্টায় ৭২ লাখ ৬৩ হাজার ১৭৯ বার ভিউ পেয়েছিল।

মার্কিন গায়িকা ডেমি লোভেটোর সঙ্গে লুই ফনসির আরেক গান ‘এচেমে লা কুলপা’র প্রথম দিন ভিউ ছিল ৯৫ লাখ ৭ হাজার ৫৭৭ বার। সল্লু-ক্যাট টপকে গেছেন ব্রিটিশ তারকা এড শিরানকেও।

বুধবার (২২ নভেম্বর) রাতে যশরাজ ফিল্মস মিউজিক টুইটে লিখেছে, ‘২৪ ঘণ্টায় ইউটিউবে বিশ্বের সবচেয়ে বেশিবার দেখা ভিডিওর রেকর্ড গড়লো সোয়াগ সে স্বাগত।’

গানটি গেয়েছেন বিশাল দাড়লানি ও নেহা ভাসিন। এর কথা লিখেছেন ইরশাদ কামিল, সুর ও সংগীত পরিচালনায় বিশাল-শেখর। এ ভিডিওর শুটিং হয়েছে গ্রিসে। এতে সালমান-ক্যাটরিনার সঙ্গে নেচেছেন ১০০ জন নৃত্যশিল্পী।
‘সোয়াগ সে স্বাগত’ গানের ভিডিও:
,

স্পাই-থ্রিলারধর্মী ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’ হলো ২০১২ সালের রোজার ঈদে মুক্তি পাওয়া কবির খান পরিচালিত ‘এক থা টাইগার’-এর সিক্যুয়েল। এটাই ছিল যশরাজ ফিল্মসের ব্যানারে সল্লুর প্রথম ছবি। বলিউডে সর্বকালের সবচেয়ে ব্যবসাসফল চলচ্চিত্রের মধ্যে এটি অন্যতম।

দ্বিতীয় কিস্তিতে নতুন মিশনে যোগ দেবে ভারত ও পাকিস্তানের দুই গোয়েন্দা কর্মকর্তা টাইগার ও জয়া। এবারের কাহিনি সাজানো হয়েছে ২০১৫ সালে ইরাকে অপহৃত ভারতের ২৫ জন নার্সের জিম্মি হওয়ার সত্যি ঘটনা অবলম্বনে। ছবিটির ট্রেলারও সাড়া ফেলেছে ইউটিউব ও ফেসবুকে। ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’ মুক্তি পাবে আগামী ২২ ডিসেম্বর।

২০১৭ সালে প্রথম ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশিবার দেখা ১০ ভিডিও
১. সোয়াগ সে স্বাগত (১ কোটি ১২ লাখ ৩৫ হাজার ৬২৪ বার)
২. এচেমে লা কুলপা লুই ফনসি ও ডেমি লোভেটো (৯৫ লাখ ৭ হাজার ৫৭৭ বার)
৩. পারফেক্ট-এড শিরান (৮৮ লাখ ৩৬ হাজার ৩০০ বার)
৪. ক্রিমিনাল-নেত্তি নাতাশা, ওজুনা (৮৪ লাখ ১৭ হাজার ৮০৫ বার)
৫. দেসপাসিতো (৭২ লাখ ৬৩ হাজার ৭১৯ বার)
৬. নিউ রুলস-দুয়া লিপা (৭১ লাখ ৬৬ হাজার ৯২৪ বার)
৭. হাভানা-ক্যামিলা ক্যাবেলো ফিচারিং ইয়াং থাগ (৬৮ লাখ ৪১ হাজার ৬২১ বার)
৮. মেয়রেস-বেকি জি, ব্যাড বানি (৬৮ লাখ ১১ হাজার ১৫৪ বার)
৯. স্যানসুয়ালিড্যাড-ব্যাড বানি, প্রিন্স রয়েস, ব্যাড বানি (৬৬ লাখ ১০ হাজার ২৬ বার)
১০. গুচি গ্যাং-লিল পাম্প (৬১ লাখ বার)

‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’ ছবির ট্রেলার:

 

ভালোবাসার সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার ব্যাপারটি যে কারোর জন্যেই কষ্টকর একটি অভিজ্ঞতা, যেটার মুখোমুখি হতে ভয় পান সকলেই। তবে বাস্তবতা ভিন্ন হওয়ায় কম কি বেশী, প্রায় সকলকেই জীবনের কোন এক সময়ে সম্পর্ক ভেঙে যাবার মতো কষ্টদায়ক অভিজ্ঞতার মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছে। ভালোবাসার মানুষের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন হয়ে যাবার অনেকগুলো দিন পর্যন্ত তার প্রতি ভালোবাসা ও টান রয়ে যায় একই রকম। অনেকেই সম্পর্ক ভেঙে যাবার পরে পুনরায় সম্পর্কে ফিরে আসতে চান। পুনরায় সম্পর্কটিকে প্রাণ দিতে চান। ‘ভালোবাসার মানুষ’টি একবার যখন ‘প্রাক্তন ভালোবাসার মানুষ’ হয়ে যান, এরপরে কি তার সাথে পুনরায় সম্পর্ক স্থাপন করা উচিৎ? নতুন করে তার সাথে ভালোবাসার সম্পর্কটি কে তৈরি করা কি ভুল সিদ্ধান্ত হবে?


জীবনের ভিন্ন মোড়ে, ভিন্ন অভিজ্ঞতার ঝুলিতে এমন অভিজ্ঞতাও নিশ্চয় হয়েছে অনেকের। সম্পর্ক নষ্ট হয়ে যাবার পরও পুনরায় ভালোবাসার সম্পর্কে ফিরে আসতে চাইছেন প্রাক্তন ভালোবাসার মানুষটি। সেক্ষেত্রে তার সাথে আবারও ভালোবাসার সম্পর্কটি তৈরি করা কী উচিৎ হবে? জেনে রাখা প্রয়োজন, প্রাক্তনের সাথে পুনরায় ভালোবাসার সম্পর্কে ফিরে যাওয়া কখনোই উচিৎ নয়। যদি উচিৎ না হয় তবে কেন? সেটাও জেনে নিন কারণসহ বিস্তারিতভাবে।

ইতিমধ্যেই আপনি এগিয়ে গিয়েছেন


সম্পর্ক ভেঙে যাবার পরের যন্ত্রণাময় সময়গুলো ইতিমধ্যেই আপনি পার করে ফেলেছেন একবার। পরিবার ও বন্ধুদের সহায়তায় প্রাক্তনের কথা হয়তো ভুলে গিয়েছেন আপনি। কিন্তু এতকিছুর পরে এবং এতো মানসিক যন্ত্রণা সহ্য করার পর যখন আপনি নিজেকে সামলে নিয়েছেন, তখন প্রাক্তন দুঃখিত বোধ করে পুনরায় ফিরে এলেও তার সাথে সম্পর্কে জড়ানো হবে ভুল সিদ্ধান্ত। নিজেকে যখন আপনি নিজের মতো করে তৈরি করে নিতে পেরেছেন, তখন শুধুমাত্র নিজেকেই সময় দেওয়া উচিৎ।

পুরনো সম্পর্কের সময়কালীন ‘আপনি’ এখন আরো ‘উন্নত আপনি’


নিজের পুরনো সম্পর্ক ভেঙে যাবার সময়ে আপনি যেমন ছিলেন, এরপরের কষ্টকর সময় পার করার সময়ে আপনার মাঝে অনেক পরিবর্তন চলে আসবে, যেটা স্বাভাবিক। আপনি এই সময়টুকুর মাঝে বাস্তবতাকে চিনতে শিখবেন, মানুষকে বুঝতে শিখবেন, নিজেকে আরো বেশী কঠোর করে গড়ে তুলতে শিখবেন। মোট কথা, আগেরকার সময়ের ‘আপনি’ বর্তমানে আরও উন্নত ‘আপনি’ হিসেবে গড়ে উঠবেন। তখন আপনার চোখের সামনে আপনার অতীত সময়ের ভুলগুলো খুব পরিষ্কার হয়ে ধরা দেবে। যার ফলে, আপনি নিজ থেকে কখনোই প্রাক্তনের সাথে সম্পর্কে ফিরে যেতে চাইবেন না।

কোন একটা কারণের জন্যেই সম্পর্ক ভেঙে গিয়েছিল


বর্তমানে প্রাক্তন হয়তো অনেক বেশী আবেগী কথা লিখে ক্রমাগত বার্তা পাঠাচ্ছেন, ফোনকল দিচ্ছেন। আপনাকে তিনি কতোটা ভালোবাসেন তা বলছেন, আপনাকে কতোটা সুখী রাখবেন সেটাও জানাচ্ছেন। কিন্তু সকল কিছুর পরেও শুধুমাত্র একটা কথা মাথায় রাখতে হবে। সম্পর্ক ভেন্নগে যাওয়ার পেছনে কিংবা সম্পর্ক শেষ হয়ে যাবার পেছনে অবশ্যই গুরুত্বর কোন কারণ ছিল। যার ফলে ভালোবাসার সম্পর্কটিকে ধরে রাখা আর সম্ভব হয়নি। সেই কারণটি মনে করুন। ভাবুন তো একই কারণটি মেনে নিয়ে সম্পর্ককে পুনরায় এগিয়ে নিতে পারবেন কি?

সময় অনেক বদলে গেছে


ভালোবাসার সম্পর্ক চলাকালীন সময়ে সবকিছুই অনেক বেশী রোমান্টিক থাকে। কিন্তু সেই সম্পর্কটা একবার ভেঙে গেলেই ফাটল ধরে যায় সবকিছুর মাঝে। আর একবার সম্পর্কের মাঝে এই ফাটল দেখা দিলে, সেটা আর কখনোই আগের মতো ঠিক হয়ে যায় না। বিশেষ করে, সম্পর্ক ভেঙে যাবার পর, একে অপরের প্রতি ভালোবাসাটাও আগের মতো থাকে না। আর তাই পুনরায় প্রাক্তনের সাথে সম্পর্কের মাঝে ফিরে যেতে চাইলেও ভালোবাসাটা কখনোই আগের মতো থাকবে না।

একা থাকার প্রতি অগ্রাধিকার দেওয়া


সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার পর একজন মানুষ স্বাভাবিকভাবেই অনেক বেশি মানসিক বিপর্যয়ের মাঝে দিয়ে সময় পার করে। এই বাজে সময়টা কাটিয়ে ফেলার পর যখন নিজেকে অনেকটাই সামলে নেওয়া সম্ভব হয় তখন একা থাকার প্রতি আগ্রহ সৃষ্টি হয়। অর্থাৎ, পুনরায় কোন ভালোবাসার সম্পর্কের মাঝে জড়ানোর ইচ্ছা কাজ করে না একেবারেই। এমন সময়ে প্রাক্তন ভালোবাসার মানুষ যতোই ফিরে আসার জন্য আকুতি জানাক না কেন, একা থাকার সিদ্ধান্তে অটল থাকাই হবে বুদ্ধিমানের কাজ।

প্রাক্তনরা সত্যিকার অর্থে আপনাকে ভালোবাসেন না


সম্পর্ক শেষ হয়ে যাবার বেশ কিছুদিন পর প্রাক্তন যদি পুনরায় সম্পর্কে ফিরে আসতে চান, তবে একটি কথা মাথায় রাখতে হবে- তিনি আপনাকে ভালোবেসে সম্পর্কে ফিরে আসতে চাইছেন না। সম্পর্ক একটা অভ্যাসের মতো ব্যাপার। নিয়মিত একজন মানুষের সাথে যোগাযোগ করা, দেখা করার মাধ্যমে একটা অভ্যস্ততা গড়ে ওঠে নিজের মধ্যে। সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার পর প্রতিদিনের অভ্যাসে বাধা চলে আসে বলে বিরক্তি কাজ করে। সময় কাটতে চায় না মোটেও। বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই শুধুমাত্র এই কারণেই প্রাক্তনরা পুনরায় পুরোন সম্পর্কের মাঝে ফিরে আসতে চান।

Robi-losses-in-the-third-quarter-is-around-47-crore-taka 

চলতি বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে নেটওয়ার্ক উন্নয়নের ওপর জোর দিয়েছে মোবাইল অপারেটর কোম্পানি রবি। এ সময় ৩৪০ কোটি টাকার বিনিয়োগের মাধ্যমে রবি’র রাজস্ব বৃদ্ধি পেয়েছে ৪ শতাংশ। তবে এ প্রান্তিকের শেষে নেটওয়ার্ক উন্নয়নে ব্যয়ের ফলে রবি’র মোট ক্ষতির পরিমাণ ৪৬ কোটি ৯০ লাখ টাকা।


সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানটির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

প্রতিবেদনে দেখা যায়, ২০১৭ সালের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই-সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত রবি’র মোট গ্রাহকের সংখ্যা ৪ কোটি ১২ লাখে দাঁড়িয়েছে। এ প্রান্তিকে মোট রাজস্বের পরিমাণ ১ হাজার ৭৫০ কোটি টাকা। ডেটা খাতে রাজস্ব বৃদ্ধির ফলে গত প্রান্তিক থেকে এ প্রান্তিকে রাজস্ব ৪ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

এছাড়া পরিচালন মুনাফার (ইবিআইটিডিএ) পরিমাণ ৩ দশমিক ৯ বিলিয়ন। মানসম্মত নেটওয়ার্ক নিশ্চিত করতে ক্রমাগত বিনিয়োগের ফলে মোট ক্ষতির পরিমাণ ৪৬ কোটি ৯০ লাখ টাকা।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, দেশব্যাপী ২.৫ জি ও ৩.৫জি নেটওয়ার্ক বিস্তারে মূলধনী ব্যয়ের পরিমাণ ৩৪০ কোটি টাকা এবং রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা ৬৭০ কোটি টাকা যা মোট রাজস্বের ৩৮ দশমিক ২ শতাংশ।

এদিকে ২০১৬ সালের তৃতীয় প্রান্তিকের তুলনায় ২০১৭ সালের তৃতীয় প্রান্তিকের তুলনামূলক বিশ্লেষণে দেখা যায়, চলতি বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে যোগ হওয়া ১৬ লাখ নতুন গ্রাহক নিয়ে বর্তমানে রবি’র মোট গ্রাহক সংখ্যা ৪ কোটি ১২ লাখ যা দেশের মোট মোবাইল ফোন গ্রাহকের ২৯ দশমিক ৩ ভাগ। ডেটা খাতে রাজস্ব ১৪ দশমিক ৬ শতাংশ বৃদ্ধি পাওয়ায় গত প্রান্তিক থেকে এ প্রান্তিকে রাজস্ব ৪ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে ১ হাজার ৭৫০ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে। রবি ও এয়ারটেল একীভূতকরণের ফলে গত বছরের একই প্রান্তিকের তুলনায় এ প্রান্তিকে সার্বিক রাজস্ব বৃদ্ধির পরিমাণ ২৬ দশমিক ১ শতাংশ, ভয়েস সেবায় রাজস্ব বৃদ্ধির পরিমাণ ৩১ দশমিক ৭ শতাংশ এবং ডেটা খাতে রাজস্ব বৃদ্ধির পরিমাণ ৭৯ দশমিক ৭ শতাংশ। নেটওয়ার্ক উন্নয়নে উল্লেখযোগ্য বিনিয়োগ এবং ৩.৫জি ডেটা সেবায় গ্রাহক-বান্ধব ও উদ্ভাবনী অফার প্রদান করায় ডেটা খাতে রাজস্ব বৃদ্ধি পেয়েছে।

চলতি বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে পরিচালন মুনাফার মার্জিন (ইবিআইটিডিএ মার্জিন) ২২ দশমিক ২ শতাংশ। একীভূকরণে ব্যয় ও নেটওয়ার্ক উন্নয়নে বিনিয়োগের ফলে এ বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে রবি’র মোট ক্ষতির পরিমাণ ৪৬ কোটি ৯০ লাখ টাকা এবং এ বছরের তৃতীয় প্রান্তিক পর্যন্ত মোট ক্ষতির পরিমাণ ১৫০ কোটি টাকা।

The-new-iPhone-is-being-made-in-India-it-will-meet-soon-next-year 

আগামী বছরের জুলাইয়ে বাজারে নতুন মোবাইল নিয়ে আসার চিন্তা ভাবনা করছে আইফোন নির্মাতা অ্যাপল। চীনা সংবাদমাধ্যম ইকোনোমিক ডেইলি নিউজ এর বরাতে জানা যায়, আইফোনের আসন্ন এসই ২ মডেলের মোবাইলটি হবে কম দামের।


প্রকাশিত প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, আগামী বছর অর্থাৎ ২০১৮ সালের জুলাইয়ের মধ্যে নতুন এই মোবাইল বাজারে আসতে পারে। আইফোন এসই ২ এর দাম ধরা হতে পারে ৪৫০ মার্কিন ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৩৬ হাজার টাকা) ।

এদিকে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি'র এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতের বেঙ্গালুরুতে তাইওয়ানভিত্তিক কোম্পানি উইসট্রন করপোরেশন এর আইফোন সংযোজনের কারখানায় আসন্ন এসই ২ মডেলের মোবাইলটি তৈরি হবে। আর এই মডেলটিতে থাকবে 'মেড ইন ইন্ডিয়া' ট্যাগ। প্রথম এসই মডেলের আইফোনও এ তাইওয়ানিজ প্রতিষ্ঠানটিতেই উৎপাদন করা হয়েছিল।

তাইওয়ানভিত্তিক প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট সিইএনএস এর বরাতে জানা যায়, আইফোন এসই এর স্থানে জায়গা করে নেবে আইফোনের নতুন এই মডেলটি। এতে থাকতে পারে টাচ আইডি প্রযুক্তি, ছবি তোলার জন্য ১২ মেগাপিক্সেল এর রিয়ার ক্যামেরা এবং ৫ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা। এতে অ্যাপলের এ১০ চিপ ব্যবহার করা হতে পারে। 

তবে আইফোন এসই ২ এর এসব ফিচারের বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি অ্যাপল।

উল্লেখ্য, বাজারে থাকা অ্যাপলের এসই মডেলের মোবাইলটিতে রয়েছে ৪ দশমিক ৭ ইঞ্চি ডিসপ্লে। এটির মূল্য ৩৪৯ ডলার থেকে শুরু।

 

কথা রেখেছেন ইলোন মাস্ক। দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ায় ১০০ দিনের কম সময়েও বিশ্বের সবচেয়ে বড় ব্যাটারি তৈরি করে দিয়েছে তার গাড়ি নির্মানকারী প্রতিষ্ঠান টেসলা। এর আগে ১০০ দিনের কম সময়ের মধ্যে সবচেয়ে ব্যাটারি তৈরির কথা দিয়েছিলেন ইলোন মাস্ক।


প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট দ্য ভার্জের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়। প্রতিবেদনে স্থানীয় প্রশাসনের বরাত দিয়ে জানানো হয়, বিশ্বের সবচেয়ে বড় ব্যাটারি তৈরির কাজ শেষ হয়েছে এবং এটি পরীক্ষা করাও হয়েছে।

প্রতিবেদন অনুযায়ী এই ব্যাটারিকে বলা হচ্ছে বিশ্বের সর্ববৃহৎ লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি। এর ক্ষমতা ১০০ মেগাওয়াট। এই ব্যাটারি তৈরিতে খরচ হয়েছে ৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি।

এর আগে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি’র এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, ইলোন মাস্ক অস্ট্রেলীয় সফটওয়্যার উদ্যোক্তা মাইক ক্যানন-ব্রুকেসের সাথে বাজি ধরে এই শত মেগাওয়াট লিথিয়াম ব্যাটারি বানানোর পরিকল্পনা করেন।

সেসময় বাজিতে মাস্ক বলেছিলেন, বায়ুশক্তি থেকে চার্জ হতে সক্ষম এই ব্যাটারি ১০০ দিনে বানিয়ে দেবে তার প্রতিষ্ঠান টেসলা। যদি তা না পারে তবে এর জন্য কোনো অর্থ পরিশোধ করতে হবে না।

মাস্ক আরও জানিয়েছিলেন, টেসলা যদি এই সময়সীমা অতিক্রম করে তাহলে ৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার লোকসান গুনতে হবে প্রতিষ্ঠানটিকে।

উল্লেখ্য, অস্ট্রেলিয়ার দক্ষিণ অঞ্চলে বিদ্যুৎতের নিরবিচ্ছিন্ন সংযোগের অভাব রয়েছে। আর এই সমস্যা মোকাবেলায় ব্যাটারি তৈরির এই পরিকল্পনা অনুমোদন করে দেশটির কর্তৃপক্ষ।

Driveless-buses-will-run-in-Singapore 

২০২২ সালের মধ্যে সিঙ্গাপুরের গণপরিবহনে যুক্ত হবে চালকবিহীন বাস। দেশটির সরকার জানিয়েছে, চালবিহীন বাসের জন্য শুরুতে পাইলট প্রকল্প হাতে নেওয়া হবে। এরপর প্রকল্পের ফল দেখে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।


বর্তমানে সিঙ্গাপুরে ১০টিরও বেশি প্রতিষ্ঠান স্বয়ংক্রিয় যানবাহন নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে। এসব পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে ২০২২ সালের মধ্যেই সেখানে চালকবিহীন বাস চলার কথা রয়েছে।

চালকবিহীন এসব বাস শুরুর দিকে তুলনামূলক ফাঁকা রাস্তায় চালু করা হবে বলে জানিয়েছে দেশটির পরিবহন কর্তৃপক্ষ। এগুলো মূলত যাত্রী সম্প্রদায়ের নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ রক্ষায় কার্যকর ভূমিকা পালন করবে। এছাড়া অল্প দূরত্বের বাস এবং ট্রেন স্টেশনে যেতেও কাজ করবে স্বয়ংক্রিয় বাসগুলো


সিঙ্গাপুর মনে করছে, চালকবিহীন প্রযুক্তি তাদের জন্য বেশ সহায়ক হবে। বিশেষ করে দেশটির লোকবলের অভাব সামাল দেওয়ার ক্ষেত্রে এটা হবে খুবই কার্যকর। এ সম্পর্কে সিঙ্গাপুরের পরিবহন মন্ত্রী খাও বুন ওয়ান বলেন, স্বয়ংক্রিয় যানবাহন আমাদের পরিবহন ব্যবস্থায় নতুন গতির সঞ্চার করবে।

দক্ষিণ এশিয়ার অনেক দেশের তুলনায় সিঙ্গাপুরে যানজটের পরিমাণ অনেকটাই কম। রাস্তার ধরন এবং বিভিন্ন নীতিমালার কারণে এ সমস্যাকে সহনীয় পর্যায়ে রাখতে সমর্থ হয়েছে তারা। চালকবিহীন বাস চালু হলে ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে যানজট আরও কমানো হবে বলে উল্লেখ করেছেন খাও বুন ওয়ান।

ছুটির দুপুরে মেথি পাঙ্গাস 

পাঙ্গাস মাছ কার কার পছন্দ? এটা জিজ্ঞাসা করলে আপনি পছন্দের সংখ্যা কম পাবেন। কারণ অনেকেই স্বাদ,গন্ধ নানা কারণে পাঙ্গাস মাছ পছন্দ করেন না। আবার অনেক সময় ভালো মতো রান্না করতে না পারার করণে পাঙ্গাস মাছের স্বাদ, বিস্বাদ হয়ে যায়। তবে আজ আমরা যে রেসিপিটা আপনাকে জানবো সেটা খেলে আপনি রীতিমতো পাঙ্গাসের ভক্ত হয়ে যাবেন। আসুন তাহলে দেখে নেই পাঙ্গাসের নতুন রেসিপি মেথি পাঙ্গাস।


উপকরণ:


পাঙ্গাশ মাছ ৭-৮ টুকরা।
টক দই ২ টেবিল-চামচ।
মেথিবাটা আধা চা-চামচ।
শুকনামরিচ ১-২টি।
লেবুর রস ১ টেবিল-চামচ।
পেঁয়াজবাটা আধা কাপ।
রসুনবাটা আধা চা-চামচ।
আদাবাটা আধা চা-চামচ।
হলুদগুঁড়া আধা চা-চামচ।
মরিচগুঁড়া ১ চা-চামচ।
ধনেগুঁড়া ১/৪ চা-চামচ।
ভাজা জিরাগুঁড়া আধা চা-চামচ।
আস্ত জিরা ১/৪ চা চামচ।
চিনি আধা চা-চামচ।(ইচ্ছা)
এলাচ ২-৩টি।
দারুচিনি ১টি।
তেজপাতা ১টি।
লবঙ্গ ২-৩টি।
তেল পরিমাণ মতো।
লবণ স্বাদ মতো।

প্রণালি:

মাছের টুকরাগুলো ধুয়ে অল্প লবণ, হলুদ আর লেবুর রস দিয়ে মাখিয়ে রাখুন। ৩০ মিনিট পর ধুয়ে নিন। এবার কড়াইতে তেল গরম করে, মাছের টুকরাগুলো হালকা ভেজে তুলে রাখুন।

একই তেলে জিরা, শুকনামরিচ আর গরমমসলার ফোঁড়ন দিয়ে পেঁয়াজ, আদা, রসুনবাটা দিয়ে কিছুক্ষণ কষিয়ে নিন। তারপর সামান্য পানি দিন।

এরপর হলুদ, মরিচ, ধনে, জিরাগুঁড়া, লবণ, মেথিবাটা দিয়ে আবারো কষিয়ে দই আর চিনি দিয়ে নেড়েচেড়ে দিন।

এবার ভাজামাছগুলো দিয়ে ঢেকে রান্না করুন। প্রয়োজনে একটু পানি দিতে হবে। যদি মাখা মাখা ঝোল রাখতে চান তাইলে অল্প আঁচে রেখে ঝোল শুকিয়ে নিন। আর ঝোল বেশি রাখতে চাইলে পানি দেওয়ার পর ঝোল ফুটে রান্না হয়ে গেলেই নামিয়ে ফেলুন।

 Richer-than-Google-founder-is-now-the-chief-of-Chinas-Tan-St

 বাজারমূল্যের দিক থেকে সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্ট ফেসবুককে ছাড়িয়ে গেছে চীনের উইচ্যাট মালিকানাধীন টেনসেন্ট হোল্ডিংস। প্রতিষ্ঠানের মেসেজিং অ্যাপ উইচ্যাট চীনে বেশ জনপ্রিয় এবং লিগ অব লিজেন্ডস ও অনার অব কিংস গেম খুবই জনপ্রিয়।


টেনসেন্ট এশিয়ার প্রথম কোনো প্রতিষ্ঠান যাদের বাজার মূল্য ৫০ হাজার কোটি ডলার ছাড়িয়েছে। ফোর্বসের প্রতিবেদন অনুযায়ী, বর্তমানে টেনসেন্ট প্রধান নির্বাহী মা হুয়াতেং এর সম্পদের পরিমাণ এখন গুগলের দুই প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজ ও সের্গেই ব্রিন-এর থেকেও বেশি। আর প্রতিষ্ঠানের বাজার মূল্যের কারণে হুয়াতেং ফোর্বসের সেরা ধনীর তালিকায় এখন নবম অবস্থানে অবস্থান করছেন। মঙ্গলবার পর্যন্ত হুয়াতেংয়ের মোট সম্পদের পরিমাণ দাঁড়ায় ৪৭৮০ কোটি ডলারে।

টেনসেন্ট এর বর্তমানে স্ন্যাপ, অ্যাপভিত্তিক ট্যাক্সি সেবা লিফট ও বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টেসলাতে বিনিয়োগ রয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি সম্প্রতি তাদের জনপ্রিয় গেম অনার অব কিংস যুক্তরাষ্ট্রে উন্মুক্তের পরিকল্পনা করেছে।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি টেনসেন্ট এক ঘোষণায় জানিয়েছে, ২০১৮ সালে উইচ্যাট লেনদেন সেবাকে মালয়েশিয়াতেও আনা হবে। আর এ ঘোষণার পর থেকেই প্রতিষ্ঠানের শেয়ারমূল্য বাড়তে থাকে।

 

টেক জায়ান্ট অ্যাপল শুরু থেকেই আইফোন টেন সরবরাহ নিয়ে উৎপাদন বিলম্বে পড়েছিল। আর এ কারণে আইফোন টেন তাড়াতাড়ি গ্রাহকের হাতে পৌঁছে দিতে অ্যাপলের প্রধান সরবরাহকারী ফক্সকন ছাত্রদের দিয়ে অবৈধভাবে অতিরিক্ত কাজ করিয়েছে বলে ফিন্যানশিয়াল টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়।


চীনের একটি কারখানায় আইফোন টেন অ্যাসেম্বলির জন্য প্রতিদিন ১১ ঘন্টা করে কাজ করতে হয়েছে হাই স্কুলের ছাত্রদের। ফিন্যানশিয়াল টাইমসকে ছয়জন হাই স্কুল ছাত্র একথা জানিয়েছে। ছাত্রদের সবার বয়স ১৭ থেকে ১৯ বছরের মধ্যে। আর চীনা শ্রম আইনে ইন্টার্ন ছাত্রদের দিয়ে এমন ওভারটাইম করানো অবৈধ।

শাস্তির ভয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ছাত্র জানিয়েছে, তাদের গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করতে তিনমাসের এই ইন্টার্ন করাটা বাধ্যতামূলক। ওই ছাত্র জানিয়েছে, সে একদিনে ১ হজার ২০০ আইফোন টেন ক্যামেরা অ্যাসেম্বল করেছে। তবে এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি স্কুল কর্তৃপক্ষ।

চীনের শ্রম আইন অনুসারে, ইন্টার্ন ছাত্রদের সপ্তাহে ৪০ ঘন্টার বেশি কাজ করা নিষিদ্ধ।

অ্যাপল এবং ফক্সকন ওভারটাইমের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছে, তারা প্রতিকারমূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করছে। তবে উভয় প্রতিষ্ঠানই জানিয়েছে, ছাত্ররা স্বেচ্ছায় এই কাজ করেছে। প্রতিবছর প্রতিষ্ঠানটি আগস্ট থেকে ডিসেম্বরে ব্যস্ত সময়ে ছাত্রদের নিয়োগ দিয়ে থাকে বলে দীর্ঘদিন ফক্সকনে কাজ করা এক কর্মী জানান। এ সময়ে একদিনে ১ লাখ থেকে ৩ লাখ কর্মী ২০ হাজার আইফোন উৎপাদন করে থাকে।

 

দেশের বাজারে জাভা সমর্থিত ফিচার ফোন এনেছে ওয়ালটন। ‘এস৩২’ মডেল'র এই ফোনটিতে রয়েছে বিল্ট-ইন ফেসবুক এবং অপেরা মিনি ব্রাউজার।


এই ফোনে একসঙ্গে ব্যবহার করা যাবে দুটি সিম। ফোনটির বিশেষ ফিচারের মধ্যে আছে এমপিথ্রি, এমপি ফোর, থ্রিজিপি ও এভিআই প্লেয়ার। রয়েছে বিল্ট-ইন অ্যান্টেনা ও রেকর্ডিং সুবিধাসহ এফএম রেডিও। যা চলবে ইয়ারফোন অথবা হেডফোন ছাড়াই। গ্রাহকের পছন্দমতো গান, ছবি বা ভিডিও সংরক্ষণে এই ফোনে ৩২ গিগাবাইট পর্যন্ত বর্ধিত মেমোরি ব্যবহার করা যাবে।

ফোনটিতে ব্যবহৃত হয়েছে ১৫০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার লি-আয়ন ব্যাটারি। যা দেবে কাঙ্খিত পাওয়ার ব্যাকআপ। রয়েছে পাওয়ার সেভিং মোডও। দেশের সব ওয়ালটন প্লাজা ও ব্র্যান্ড আউটলেটে পাওয়া যাচ্ছে নতুন এই মোবাইল ফোন। ১,৯৯০ টাকা মূল্যে বেশ কয়েকটি ভিন্ন রঙে বাজারে পাওয়া যাবে এই মোবাইলটি।


ওয়ালটনের সেল্যুলার ফোন গবেষণা ও উন্নয়ন বিভাগের ডেপুটি ডিরেক্টর আরিফুল হক রায়হান প্রিয় টেককে জানান, ‘এস৩২’ মডেলের ফিচার ফোনে রয়েছে ২.৮ ইঞ্চির উজ্জ্বল রেজুলেশনের পর্দা। ২.৫ডি কার্ভড (বাঁকানো) ডিসপ্লে থাকায় ফোনটি দেখতেও অত্যন্ত সুদৃশ্য।

তিনি জানান, ফিচার ফোনটির পেছনে রয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশযুক্ত ২ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। ফলে স্মরণীয় সব মুহূর্ত করা যাবে ফ্রেমবন্দি।

উল্লেখ্য, ওয়ালটন বর্তমানে বাজারজাত করছে ২৬ মডেলের ফিচার ফোন। এসব ফোনের দাম শুরু হয়েছে মাত্র ৭৫০ টাকা থেকে। সর্বোচ্চ দাম ১৯৯০ টাকা। সব ধরনের ওয়ালটন ফোনে থাকছে এক বছরের বিনামূল্যে বিক্রয়োত্তর সেবা।

শীতের সকালে চন্দ্রপুলি পিঠা 

শীত মানেই সকাল বা সন্ধ্যায় আয়েশ করে পিঠা খাওয়ার ধুম। আর পিঠার মাঝে কমবেশি সবারই প্রিয় পিঠার তালিকায় অবশ্যই পুলি পিঠা থাকবেই। তেলে ভেজে কিংবা সেদ্ধ করে নানা উপকরণ মিশিয়ে ভিন্ন স্বাদের রয়েছে নানা ধরণের পুলি পিঠা। তেমনি নারকেলের তিল পুলি, দুধপুলি, সেদ্ধপুলি, মুগের পুলিসহ বাহারি পুলি পিঠার রেসিপি নিয়েই আমাদের এই লেখা। শীতকাল চলে আসছে। আর এই শীতকাল মানেই পিঠাপুলির উৎসব। শহুরে অনেকেই আছেন যারা পুলি পিঠা খেতে পছন্দ করেন কিন্তু জানেন না কিভাবে সহজেই ঘরেই বানানো যায়। তাই তাদের কথা ভেবেই আজকের আয়োজন খুব সহজ ও মজাদার সুস্বাদু চন্দ্রপুলি পিঠা বানানোর রেসিপি।


উপকরণ:

নারকেল – ৩ টি,
চিনি – ৩ পোয়া,
গুড় – আধা কেজি,
ময়দা – ১ কেজি,
দুধ – ২ কেজি,
তেল – পরিমান মতো।

প্রনালীঃ প্রথমে নারিকেল মিহি করে কুরে নিন। কুরানো অর্ধেক নারিকেল আবার শিল পাটায় আর ও মিহি করে বেটে নিন। বাকি অর্ধেক নারিকেলের সঙ্গে গুড় জ্বাল দিয়ে হালুয়ার মতো করে পুর বানিয়ে নিন। হালুয়া শুকিয়ে চটচটে হয়ে এলে চুলা থেকে নামিয়ে ফেলুন। এবার একটি পাত্রে ঘন করে দুধ জ্বাল দিয়ে নিন। তারপর পাটায় মিহি করা নারিকেল ও চিনি মিশিয়ে ময়দা দিয়ে কাই করে নিন। এরপর রুটি বেলে নারিকেলের পুর ভরে বাঁশের চটা বা ছুড়ি দিয়ে অর্ধচন্দ্রাকারে কেটে নিন। চন্দ্রপুলি ডুবো তেলে ভালো করে ভেজে নিন। গরম গরম এই মজাদার ও সুস্বাদু চন্দ্রপুলি পরিবারে পরিবেশন করুন।

আপনি তেলে ভেজে খেতে না চাইলে এই পিঠা ভাপে সেদ্ধ করে খেতে পারবেন। ভাপে চন্দ্রপুলি খুব স্বাদের হয়ে থাকে।

 সার্ক চলচ্চিত্র উৎসবে কুমার বিশ্বজিতের ‘সারাংশে তুমি’

দেশের প্রথম মিউজিক্যাল ফিল্ম হিসেবে আলোচনা তৈরি করেছিলো ‌‌‘সারাংশে তুমি’। জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী কুমার বিশ্বজিতের গাওয়া গান থেকে নির্মিত ছবিটি এবার দেখানো হবে আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে।


আজ, ২১ নভেম্বর থেকে শ্রীলংকার রাজধানী কলম্বোতে শুরু হচ্ছে ‘সার্ক চলচ্চিত্র উৎসব’। এতে অংশ নিচ্ছে সার্কভুক্ত আটটি দেশ। এখানেই দেখানো হবে বাংলা ঢোল প্রযোজিত ছবি ‘সারাংশে তুমি’। এর পাশাপাশি বাংলাদেশের আরও ছয়টি ছবি থাকছে এই উৎসবে।

সার্কের আয়োজনে ৫ দিনব্যাপী এ উৎসবে চলচ্চিত্রগুলো প্রদর্শিত হচ্ছে শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলোম্বোর জাতীয় চলচ্চিত্র কর্পোরেশনের সিনেমা হলে।

‘সারাংশে তুমি’র এমন খবরে ভালো লাগার কথা জানিয়েছেন কুমার বিশ্বজিৎ। তিনি বলেন, ‘এটি নিশ্চয়ই আমাদের চলচ্চিত্রের জন্য সুখবর। আমার গান নিয়ে বানানো মিউজিক্যাল ফিল্মটি দেশের গণ্ডি পেরিয়ে ভিনদেশি দর্শককে বিনোদন দিতে পারবে ভেবে ভালো লাগছে। এই চলচ্চিত্রের সঙ্গে জড়িত সবাইকে আমার কৃতজ্ঞতা। বাংলা ঢোল ভবিষ্যতেও এমন ছবি তৈরি করবে বলে আশা রাখি।’  

বাংলা ঢোলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এনামুল হক বলেন, ‌‘ছবিটি তৈরি করে আমরা অভাবনীয় সাড়া পেয়েছি। বাংলা ঢোল সব সময় ব্যতিক্রমী কাজ করতে পছন্দ করে, সবার সহযোগিতা পেলে ভবিষ্যতেও এই ধারা অব্যাহত থাকবে।’

‘সারাংশে তুমি’র গানগুলো লিখেছেন শহীদুল্লাহ ফরায়েজী, কবির বকুল, জুলফিকার রাসেল, ইব্রাহিম ফাতমি, শফিক তুহিন, হেনা ইসলাম ও পঞ্চু ভট্টাচার্য। নকিব খানের সুরে ‘সাম্পানে বাঁধিব ঘর’ ছাড়া সবগুলো গানের সুর ও সংগীত পরিচালনা করেছেন কুমার বিশ্বজিৎ নিজেই। এতে তার সহশিল্পীরা হলেন সামিনা চৌধুরী, শুভমিতা ও ন্যানসি।

৪২ মিনিট ব্যাপ্তির ছবিটির চিত্রনাট্য লিখেছেন গাজী মাজহারুল আনোয়ার,  পরিচালনা করেছেন আশিকুর রহমান। অভিনয় করেছেন অন্তু করিম ও রাহা তানহা খান। ২০১৬ সালের পহেলা বৈশাখে বসুন্ধরা সিটির স্টার সিনেপ্লেক্সে উদ্বোধনী প্রদর্শনী হয় ‘সারাংশে তুমি’র।  ৫মে এটি সেন্সর সার্টিফিকেট পায়। ওই বছর ঈদুল ফিতরে একুশে টিভিতে এর টেলিভিশন প্রিমিয়ার হয়। এর পরপরই ‌‘সারাংশে তুমি’ ছবিটি উন্মুক্ত করা হয় দেশের প্রথম ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম বাংলাফ্লিক্সে।

এদিকে সার্কভুক্ত ৮টি দেশের ২৪টি চলচ্চিত্রের মধ্যে ‘সারাংশে তুমি’ ছাড়াও স্থান পেয়েছে বাংলাদেশের ‘অজ্ঞাতনামা’, ‘অনিল বাগচীর একদিন’, ‘প্রেমী ও প্রেমী’, ‘বিবেক’, ‘বিশম্বর বাবুর দায়’ ও ‘জননী’

‘ডাকছে থাইল্যান্ড’ নামে মেগা ক্যাম্পেইন রবি’র 

‘ডাকছে থাইল্যান্ড’ নামে সম্প্রতি নতুন একটি ক্যাম্পেইন চালু করেছে দেশের অন্যতম মোবাইল ফোন অপারেটর রবি আজিয়াটা লিমিডেট। এ ক্যাম্পেইনের আওয়ায় রিচার্জের মাধ্যমে নিশ্চিত টকটাইম বা ইন্টারনেট বোনাসের পাশাপাশি গ্রাহকদের জন্য রয়েছে পর্যটন রাজধানী থাইল্যান্ড ভ্রমণের যুগল টিকেটসহ নানা আকর্ষণীয় উপহার।


*১২৩*২৫# ডায়াল করে রবি গ্রাহকরা এই ক্যাম্পেইনে অংশ নিতে পারবেন। গ্রাহকরা প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত যে কোন পরিমাণ রিচার্জ করে এ ক্যাম্পেইনে অংশ নিয়ে নিশ্চিত বোনাস টকটাইম বা ইন্টারনেট উপভোগ করতে পারবেন। রিচার্জ করার সাথে সাথে ২৪ ঘন্টা মেয়াদী বোনাস পেয়ে যাবেন গ্রাহকরা।

এছাড়া রবি গ্রাহকরা প্রতিদিন থাইল্যান্ড ভ্রমণের টিকিট, এলইডি টেলিভিশন, সেলাই মেশিন, হ্যান্ডসেট, জ্যাকেট ও জার্সিসহ বিভিন্ন সারপ্রাইজ উপহার পাবার সুযোগ পাবেন। ক্যাম্পেইনটি শেষ হবে আগামী ৬ ডিসেম্বর, ২০১৭। বিজয়ীদের রবি’র পক্ষ থেকে কল দিয়ে জানানো হবে। ক্যাম্পেইন শেষে এর পুরষ্কার বিতরণ করা হবে। রবি’র সকল প্রিপেইড গ্রাহক এই মেগা ক্যাম্পেইনে অংশ নিতে পারবেন।
শুরু হলো পর্যটনের মৌসুম, তাই সঙ্গীসহ থাইল্যান্ড ভ্রমণের এ সুযোগ ভ্রমণপিপাসুদের জন্য একটি আকর্ষণীয় সুযোগ। এছাড়া নিশ্চিত টক-টাইম বা ইন্টারনেট বোনাসের পাশাপাশি বিভিন্ন উপহার ক্যাম্পেইনটিকে আরো আকর্ষণীয় করে তুলেছে। রবি গ্রাহকরা কোম্পানির কর্পোরেট ওয়েবসাইট-www.robi.com.bd ভিজিট করে ক্যাম্পেইন সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

ক্ষুব্ধ ঐশ্বরিয়ার চোখে জল! 

ভালোভাবেই চলছিল সব। মেয়েকে নিয়ে হাসিমুখে এসেছিলেন বলিউড অভিনেত্রী ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন। কিন্তু সাবেক এই বিশ্বসুন্দরী আর তার মেয়ে আরাধ্যর যুতসই ছবি পেতে সোরগোল পড়ে যায়। একসময় আলোকচিত্রী ও ক্যামেরাম্যানরা চেঁচামেচি করতে থাকে। এরপরই পরিস্থিতি হয়ে যায় ঘোলাটে।


ঘটনাটি সোমবারের (২০ নভেম্বর)। এদিন ছিল ঐশ্বরিয়ার বাবা কৃষ্ণরাজ রাইয়ের জন্মবার্ষিকী। তাই আরাধ্যকে নিয়ে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের কাছে গিয়েছিলেন অ্যাশ। তার আশা ছিল, এমন দিনে আর এ ধরনের আয়োজনে অন্তত গণমাধ্যমকর্মীরা ছবি নিয়ে উঠেপড়ে লাগবে না। কিন্তু তারা গতানুগতিক আচরণ করায় ক্ষেপে যান তিনি।
সাবেক এই বিশ্বসুন্দরী রেগে ওঠে বলেছেন, ‘সিরিয়াসলি বলছি এবার থামুন। আমার ছবি কিংবা ভিডিও নেওয়ার কোনও দরকার নেই। সবাইকে শান্ত থাকার অনুরোধ করছি। এ ধরনের অনুষ্ঠানে কেমন থাকতে হয় তা আমরা জানি। এই শিশুরা এ ধরনের পরিস্থিতিতে অভ্যস্ত নয় এটা বুঝতে হবে। কিছু সম্মান অন্তত দেখান। ওরা আমাদের জগত সম্পর্কে জানে না। এটা কোনও প্রিমিয়ার কিংবা পাবলিক অনুষ্ঠান না। আপনাদের সমস্যা কী?’

পাপারাজ্জিদের তিরস্কার করতে ছাড়েননি বচ্চন-বধূ। তার ব্যাখ্যা ছিল, এনজিও’র শিশুরা ক্যামেরার সামনে অভ্যস্ত নয়। একসময় তার চোখ বেয়ে জল গড়িয়ে পড়ে, ক্ষোভে। পরে মায়ের মুখে হাসি ফিরিয়ে আনে ৬ বছরের আরাধ্য। এরপর তারা সবাই মিলে কেক কাটেন।


অনেক দাতব্য ও সমাজকর্মের সঙ্গে যুক্ত ঐশ্বরিয়া। তাই স্মাইল ট্রেন ফাউন্ডেশন নামের একটি এনজিওর ‘ডে অব স্মাইলস’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে বাবার জন্মদিন পালন করেন তিনি। এ বছরের মার্চে মারা যান কৃষ্ণরাজ রাই।

বাবার জন্মদিনেই ফাটা ঠোঁট ও মাড়ি আছে এমন ১০০ শিশুর অস্ত্রোপচারের ব্যয়বহনের ঘোষণা দিয়েছেন ৪৪ বছর বয়সী এই তারকা। তিনি ওই এনজিও’র শুভেচ্ছাদূত হিসেবে কাজ করেন।

এদিকে ঐশ্বরিয়া এখন ‘ফ্যানি খান’ ছবির শুটিং নিয়ে ব্যস্ত। এতে তার সহশিল্পী অনিল কাপুর ও রাজকুমার রাও। সবশেষ তাকে বড় পর্দায় দেখা গেছে ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ ছবিতে।

 Ahamari-is-nothing-the-common-plating-solution-hair-problems

চুলের যত্নের জন্য অন্যান্য সকল উপাদানের পাশাপাশি ফল হিসেবে কলাও ব্যবহারের চল রয়েছে। কলাতে থাকা বিভিন্ন ধরণের ভিটামিন, পুষ্টিগুণ এবং অ্যাসিড সমূহ চুলের যত্নের জন্য এবং চুলের উপকারের জন্য খুব ভালো। যে কারণে চুলের নানান রকম প্যাক তৈরিতে কলা প্রধান উপাদান হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে।


চুল ভেঙে যাওয়া, চুলের আগা ফেটে যাওয়া, চুল রুক্ষ হয়ে যাওয়া, চুল পড়ে যাওয়ার মতো সমস্যাগুলোর ক্ষেত্রে কলা খুব উপকারী একটি উপাদান হিসেবে কাজ করে থাকে। এছাড়া বাজারের বিভিন্ন ধরণের কেমিক্যালযুক্ত পণ্য ব্যবহার পরিবর্তে প্রাকৃতিক উপাদান কলার যথাযথ ব্যবহার চুলের ক্ষেত্রে বেশী দ্রুত ও ভালো কাজ করে। আজকের ফিচার থেকে জেনে নিন চুলের কোন সমস্যা ও সমাধানের জন্য কলা দিয়ে তৈরি ভিন্ন ভিন্ন চুলের প্যাকের বিবরণ।

উজ্জ্বল ও শক্ত চুলের জন্য কলা ও লেবুর প্যাক

একটি পাকা কলা ভালোভাবে ভর্তা করে নিতে হবে। এরপর এর সাথে এক টেবিল চামচ পরিমাণ লেবুর রস ভালোভাবে মিশিয়ে নিয়ে পুরো চুলে ভালোভাবে লাগাতে হবে। এক ঘন্টা রেখে দেওয়ার পর হালকা গরম পানি দিয়ে চুল ধুয়ে নিয়ে এরপর শ্যাম্পু করে ফেলতে হবে। সপ্তাহে একবার এই পদ্ধতিতে চুলে প্যাক ব্যবহার করা যাবে।

চুলের গোড়া শক্ত করতে কলা ও ডিমের সাদা অংশের প্যাক

একটি পাকা কলা ভর্তা করে তার সাথে একটি ডিমের সাদা অংশ মেশাতে হবে। পুরো চুলে, বিশেষ করে চুলের গোড়ায় ভালোভাবে এই প্যাকটি লাগিয়ে ৩০-৪০ মিনিট সময় অপেক্ষা করতে হবে। শুকিয়ে গেলে হালকা কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে হালকা ধাঁচের কোন শ্যাম্পু ব্যবহার করতে হবে। কাঙ্ক্ষিত ফলাফল পাওয়ার জন্য সপ্তাহে দুইবার ব্যবহার করতে হবে।

সুস্থ চুল পেতে ডিম ও অলিভ অয়েলের প্যাক

একটি পাকা কলা ভর্তা এবং এক টেবিল চামচ অলিভ অয়েল একসাথে মিশিয়ে নিতে হবে। এই প্যাক তৈরি হয়ে গেলে পুরো চুল ও চুলের গোড়ায় ভালোভালে লাগিয়ে নিয়ে এক ঘণ্টার জন্য রেখে দিতে হবে। এরপর সাধারণ তাপমাত্রার পানি ও হালকা কোন শ্যাম্পু দিয়ে চুল ভালোভাবে ধুয়ে ফেলতে হবে। এক মাসের মাঝে দুইবার চুলের এই প্যাক ব্যবহার করলে চুলের বেশীরভাগ সমস্যা দূর হয়ে যাবে।

চুল ভেঙে যাওয়া প্রতিরোধে ডিম ও অ্যালোভেরার প্যাক

একটি বাটিতে দুই টেবিল চামচ পরিমাণ তাজা অ্যালোভেরার জেল ও একটি পাকা কলার ভর্তা নিয়ে একসাথে ভালোভাবে মিশিয়ে নিতে হবে। এরপর এই প্যাক চুলের গোড়া থেকে শুরু করে পুরো চুলে সমানভাবে লাগিয়ে নিয়ে এক ঘণ্টার জন্য রেখে দিতে হবে। শুকিয়ে গেলে হালকা গরম পানি দিয়ে ধীরে ধীরে চুল ধুয়ে ফেলতে হবে এবং প্রয়োজন হলে শ্যাম্পু ব্যবহার করতে হবে। প্রতি সপ্তাহে একবার করে এই প্যাক ব্যবহারে চুলে লক্ষণীয় পরিবর্তন দেখা দেবে।

চুল নমনীয় করতে ডিম ও নারিকেল তেলের প্যাক

একটি পাকা কলা ভর্তা এবং দুই টেবিল চামচ নারিকেল তেল একসাথে ভালোভাবে মিশিয়ে নিতে হবে। এরপর পুরো চুলে লাগিয়ে ৪০-৪৫ মিনিট রেখে দিতে হবে। শুকিয়ে গেলে সাধারণ তাপমাত্রার পানি দিয়ে চুল ভালোভাবে ধুয়ে ফেলতে হবে। প্রতি সপ্তাহে দুইবার এই প্যাক ব্যবহার করলে চুলের রুক্ষতা কমে আসবে অনেকখানি।

চুলে পুষ্টি জোগাতে ডিম ও মধুর প্যাক

একটি পাকা কলা ভর্তা, দুই টেবিল চামচ মধু ও আধা চা চামচ অ্যাপল সাইডার ভিনেগার একসাথে ভালোভাবে মিশিয়ে নিতে নিতে হবে। এরপর এই মিশ্রণ চুলের গোড়ায় খুব ভালোভাবে ঘষে ঘষে লাগাতে হবে এবং হেয়ার প্যাক দিয়ে চুল ঢেকে রাখতে হবে যেন কোন ধুলাবালি মাথায় লাগে। এক ঘণ্টা অপেক্ষা করার পর হালকা শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলতে হবে। সপ্তাহে একবার করে চুলের এই প্যাকটি ব্যবহার করতে হবে।

৫ কোটি ৭০ লাখ গ্রাহকের তথ্য হ্যাকিংয়ের খবর গোপন করেছে উবার 

সত্য কখনও লুকিয়ে রাখা যায় না। আর তাই আবার প্রমাণ হলো অ্যাপ ভিত্তিক ট্যাক্সি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান উবারের ক্ষেত্রে। ২০১৬ সালে ৫ কোটি ৭০ লাখ উবার গ্রাহক এবং চালকের তথ্য চুরি হয়েছে। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি এই হ্যাকিংয়ের খবর গত একবছর যাবত গোপন করে আসছে। এমনকি এই চুরি হওয়া ডাটাগুলো মুছে ফেলতে এবং হ্যাকিং ধামাচাপা দিতে হ্যাকারদের এক লাখ মার্কিন ডলার দিয়েছে উবার।


সিএনবিসি’র প্রতিবেদনে বলা হয়, এই হ্যাকিংয়ের খবর নিয়ে কোনো প্রতিবেদনও প্রকাশ করেনি উবার। উবারের সাবেক প্রধান নির্বাহী ট্রাভিস কালানিক এই হ্যাকিংয়ের বিষয়ে সেসময় অবগত ছিলেন বলেও প্রতিবেদনে বলা হয়।

২১ নভেম্বর মঙ্গলবার ২০১৬ সালের ওই সাইবার আক্রমণের এক বিবৃতি প্রকাশ করেছে উবার। বিবৃতি অনুযায়ী, হ্যাকাররা চালক এবং গ্রাহকের নাম, ইমেইল অ্যাড্রেস এবং চালকের লাইসেন্স নাম্বারের মতো ব্যক্তিগত তথ্যগুলো চুরি হয়েছে। তবে গ্রাহকের ক্রেডিট কার্ডের তথ্য বেহাতের কোনো ইঙ্গিত পাওয়া যায়নি।

উবারের প্রধান নির্বাহী দারা খোশরোওশাহি জানান, প্রতিষ্ঠানটি সম্প্রতি এই হ্যাকিংয়ের বিষয়টি জেনেছে। তিনি বলেন, ‘এই ঘটনার কোনোটিই ঘটা উচিত ছিল না এবং আমি এর জন্য ক্ষমা চাইছি’।

বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, এই ডাটাগুলো অ্যামাজনের ওয়েব সার্ভিসের ক্লাউড অ্যাকাউন্টে সংরক্ষিত ছিল। দুটি আলাদা বাহিরের প্রতিষ্ঠান ক্লাউডে এক্সেস নিয়ে ডাটাগুলো ডাউনলোড করে নিয়েছে। তবে ডাটাগুলো সেসময়ই মুছে ফেলা হয়েছে এবং এ নিয়ে আর কোনো জালিয়াতির খবর পাওয়া যায়নি।

উবারের হ্যাকিংয়ের ঘটনা এটিই প্রথম নয়, এর আগেও ২০১৪ সালে এক সাইবার আক্রমণে প্রতিষ্ঠানের ৫০ হাজার সাবেক ও বর্তমান চালকের ডাটা ঝুঁকিতে ফেলে দিয়েছিল।

 

রগরগে ছবি ও কনটেন্ট ব্যবহার করে তৈরি করা হচ্ছে স্মার্টফোনের বাংলা অ্যাপস। আর এসব অ্যাপ ডাউনলোড করে বিপথে যাচ্ছে স্মার্টফোন ব্যবহারকারী উঠতি বয়সের তরুণ-তরুণীরা।


এসব অ্যাপ যেমন বিপথে টানছে, তেমনি প্রযুক্তির বাজারে সেগুলোর ভবিষ্যত নেই বলেও সতর্ক করছেন প্রযুক্তিবিদ ও অ্যাপস নির্মাতারা। আর এতে সম্ভাবনাময় অ্যাপের বাজারে নেতিবাচক প্রভাব পড়ারই শঙ্কা তৈরি হয়েছে। এ নিয়ে তাই উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন প্রযুক্তিবিদরাও।

প্রযুক্তির প্রসারে দেশের তরুণ প্রযুক্তিবিদরা জনপ্রিয় বিভিন্ন ধরনের অ্যাপ তৈরি করে আসছে। এরমধ্যে দৈনন্দিন ব্যবহারিক অ্যাপস ছাড়াও বাণিজ্যিক অ্যাপও রয়েছে।

বর্তমানে দেশের প্রযুক্তিবিদদের তৈরি এক লাখের বেশি অ্যাপ রয়েছে বলে জানিয়েছেন অ্যাপ ডেভেলপার প্রতিষ্ঠান ইজি টেকনোলজি লিমিটেডের ফাউন্ডার এবং সিইও মফিজুর রহমান টিপু।

অ্যান্ড্রয়েড ফোনের জন্য এসব অ্যাপ তৈরি করা হলেও এতোদিন সেগুলোর বাণিজ্যিক কার্যক্রম ছিল না। অর্থাৎ অ্যাপ নির্মাতারা আর্থিকভাবে লাভবান হতেন না।

গুগলের সাপোর্ট সেন্টার ‘লোকেশনস ফর ডেভেলপার অ্যান্ড মার্চেন্ট রেজিস্ট্রেশন’ বিভাগে ৭ নভেম্বর বাংলাদেশের নাম যুক্ত করে। এর ফলে বাংলাদেশের অ্যান্ড্রয়েড ডেভেলপাররা বাংলাদেশ থেকে এ টেক জায়ান্টের অ্যাপ্লিকেশন বাজার ‘গুগল প্লে’তে অ্যাপ বিক্রি করতে পারবে বলে জানিয়েছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ।

কিন্তু এই সম্ভাবনার মধ্যে প্লে স্টোরে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপের শীর্ষের তালিকায় অনেক অ্যাপ দেখা যায়, যেগুলো পর্ন বা যৌন উত্তেজক হিসেবেই ব্যবহার করেন স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের একটি অংশ। আর ডাউনলোডের সংখ্যার উপর ভিত্তি করে সেগুলো শীর্ষে উঠে আসছে।

প্রযুক্তিবিদ মফিজুর রহমান টিপু বলেন, যেহেতু  অ্যাপের বাজার তৈরি হয়েছে, এখন এ বিষয়ে সচেতন হতে হবে।

‘কিছু কিছু অ্যাপ ভালো না, সেগুলো টপচার্টে থাকে। বাংলা কনটেন্ট হওয়ার কারণে ডাউনলোডও বেশি হয়। এগুলো ভবিষ্যতের জন্য খারাপ। এখন ডেভেলপারদের সিস্টেমটা পরিবর্তন হবে।’

রগরগা ছবি ব্যবহারের ফলে সহজেই তা আকৃষ্ট হতে পারে এবং তাতে গুণগতমানের অ্যাপ প্রস্তুতকারকদের হতাশা তৈরি হতে পারে বলে মনে করেন টিপু।

এসব অ্যাপের বিষয়ে সচেতনতা জরুরি হয়ে পড়েছে বলে জানিয়েছেন অ্যাপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান আর্কাডিও এর সিইও রাফিউর রহমান।

তিনি বলেন, এসব অ্যাপে রিপোর্ট করলে বন্ধ হয়ে যেতো।

 

১৭ বছর পর বিশ্বসুন্দরীর মুকুট এলো ভারতে। হরিয়ানা রাজ্যের মেয়ে মানুষী চিল্লার বয়ে এনেছেন এই গৌরব। এই অর্জনে গর্বিত গোটা ভারতবাসী। দেশটির প্রখ্যাত বালি শিল্পী সুদর্শন পাটনায়েকও দারুণভাবে সম্মান জানালেন ২০ বছর বয়সী এই তরুণীকে।


মানুষীর জন্য ওড়িশার পুরি সমুদ্র সৈকতের বালিতে চমৎকার ভাস্কর্য তৈরি করেছেন সুদর্শন। রবিবার (১৯ নভেম্বর) টুইটারে ওই শিল্পকর্মের ছবি শেয়ার করে তিনি লিখেছেন, ‘বিশ্বসুন্দরীর মুকুট জেতার জন্য মানুষী চিল্লারকে অভিনন্দন। আপনি ভারতকে গর্বিত করেছেন। তাই আপনার জন্য আমার বালি শিল্প।’

তারকা ও বিশিষ্ট ব্যক্তিদের জন্মদিনে এরকম শ্রদ্ধা জানান সুদর্শন পাটনায়েক। লতা মঙ্গেশকর, অমিতাভ বচ্চন, এপিজে আবদুল কালাম, নরেন্দ্র মোদি, শচীন টেন্ডুলকারসহ অনেকের বালুর ভাস্কর্য তৈরি করেছেন তিনি।

দুই কুস্তিগীর গীতা ফোগাট ও ববিতা ফোগাটের পর হরিয়ানা রাজ্যের আরেক মেয়ে বিশ্বজয় করলো। এবার কুস্তি নয়, সৌন্দর্য আর মেধার সম্মিলনে তিনি তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। ভারতের সাবেক ক্রিকেটার বীরেন্দ্র শেহবাগ টুইটারে লিখেছেন, ‘অভিনন্দন মিস ওয়ার্ল্ড ২০১৭ মানুষী চিল্লারকে। বিশ্বমঞ্চে হরিয়ানার মেয়েরা মাতিয়ে দিচ্ছে। একেই বলে হরিয়ানার শক্তি, ভারতীয় শক্তি।’

গীতা-ববিতা ও তাদের বাবা মহাবীর সিং ফোগাটের জীবনের সত্যি ঘটনা নিয়ে সাজানো হয় বলিউড সুপারস্টার আমির খানের ‘দঙ্গল’। এটাই এখন ভারতের সর্বকালের সবচেয়ে ব্যবসাসফল ছবি। মানুষী বলিউডে পা রাখলে এমন বড়সড় সাফল্য পাবেন বলে আশা করা হচ্ছে। 


গত ১৮ নভেম্বর চীনের সানাইয়া সিটি এরেনায় নতুন বিশ্বসুন্দরী নির্বাচিত হন মানুষী চিল্লার। তার মাথায় মুকুট পরিয়ে দেন গতবারের মিস ওয়ার্ল্ড পুয়ের্তোরিকোর স্টেফানি দেল ভালে। ১১৭ জন সুন্দরীকে হটিয়ে এই খেতাব জিতেছেন মানুষী। তাদের মধ্যে ছিলেন বাংলাদেশের জেসিয়া ইসলামও।

তুরস্কেও যাচ্ছে ‘অ্যা পেয়ার অব স্যান্ডেল’ 

বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের নিয়ে নির্মিত প্রামাণ্যচিত্র ‘অ্যা পেয়ার অব স্যান্ডেল’ এবার নির্বাচিত হলো তুরস্কের ছবি মেলায়। দেশটির আনকারায় হাক-ইস স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র উৎসবের প্রতিযোগিতা বিভাগে স্থান পেয়েছে ছবিটি। তুরস্ক সরকারের সংস্কৃতি ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের এ আয়োজন শুরু হবে আগামী ১৫ ডিসেম্বর।


উৎসবের ওয়েবসাইটে উল্লেখ করা হয়েছে, ১২৪টি দেশ থেকে ৫৪০৪টি ছবি জমা পড়েছে। এর মধ্য থেকে নির্বাচিত হলো চূড়ান্ত প্রতিযোগিতার ছবিগুলো। ‘অ্যা পেয়ার অব স্যান্ডেল’ সেগুলোরই একটি।

ছবিটির পরিচালক জসিম আহমেদ  বলেছেন, “কোনও ধারাবর্ণনা ও সাক্ষাৎকার ছাড়াই সাজানো ‘অ্যা পেয়ার অব স্যান্ডেল’-এ ইংরেজি, ইতালিয়ান, ফরাসি, স্প্যানিশ ও তুর্কি ভাষার ওপেন ক্যাপশন রয়েছে। রোহিঙ্গা সংকট ও তাদের দুর্দশার কথা তুলে ধরতে ছবিটি তৈরি করেছি।”

এ ছবির সারসংক্ষেপে বলা হয়েছে— ওপরের দিকে তুলে ধরা একজোড়া স্যান্ডেল কাকে দেখাচ্ছে একটি রোহিঙ্গা শিশু? মিয়ানমার সরকার ও সামরিক বাহিনীকে? নাকি রাশিয়া, চীন ও ভারতসহ পরাশক্তিদের, যারা ব্যবসায়িক স্বার্থে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর গণহত্যাকে অন্ধভাবে সমর্থন করছে? নাকি গোটা পৃথিবীর সবাইকে যারা নৃশংস গণহত্যা, ধর্ষণ, অগ্নিসংযোগের মতো মানবতাবিরোধী অপরাধ দেখেও চুপ করে বসে আছে?

এর আগে ইতালির নেপলস মানবাধিকার চলচ্চিত্র উৎসবে নির্বাচিত হয় ‘অ্যা পেয়ার অব স্যান্ডেল’। ন্যাপোলিতে ৬ থেকে ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে এই উৎসব। এখানে প্রতিযোগিতা বিভাগে স্থান পেয়েছে মানবাধিকার বিষয়ক ছবিটি।

৪ মিনিট ১৩ সেকেন্ড ব্যাপ্তির ‘অ্যা পেয়ার অব স্যান্ডেল’ পুরোটাই রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গিয়ে মোবাইল ফোনে ধারণ করেছেন নির্মাতা জসিম আহমেদ। একটি শরণার্থী দলের বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়াকে ঘিরে গল্প শুরু হয়। শেষে দেখা যাবে শরণার্থীদের আরেকটি দল আসছে ক্যাম্পে। ছবিটির সংগীত পরিচালনা ও শব্দ সজ্জা করেছেন রিপন নাথ। পাণ্ডুলিপি লিখেছেন ফরিদ আহমেদ।

জসিম আহমেদের আগের স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি ‘দাগ’ অংশ নিয়েছে ৭০তম কান চলচ্চিত্র উৎসবের শর্ট ফিল্ম কর্নারে। এটি এখন যুক্তরাজ্যভিত্তিক শর্ট ইন্টারন্যাশনালের মাধ্যমে আমেরিকার মূলধারার টেলিভিশনে প্রচারিত হচ্ছে। শিগগিরই ইউরোপের টেলিভিশনেও ১৯৭১ সালের প্রেক্ষাপটে নির্মিত ছবিটি প্রচারের কথা রয়েছে।

সময়ের সাথে সাথে কীভাবে বদলে যায় মানুষ! (দেখুন ছবিতে)  

 সময় কত দ্রুত পার হয়ে যায়! চোখের পলক ফেলতেই যেন কয়েকটি বছর পার হয়ে যায় অনায়াসে। স্কুল লাইফের বন্ধুর সাথে কাটানো সময় গুলোর কথা মনে করতে করতেই একদিন হুট করে খেয়াল হয়, স্কুল লাইফের সেই দুরন্ত সময়গুলো পার হয়ে গেছে অনেক আগেই। অতীত সময়ের স্মৃতিগুলো সেখানে প্রতিচ্ছবির মতো খেলা করতে থাকে চোখ মনের পর্দায়। সময় হলো এমন একটি শক্তি যাকে কখনোই আটকে রাখা সম্ভব নয়। ফটোগ্রাফার জোসেফিন সিটেনফিল্ড (Josephine Sittenfeld) ২০০০ সালে তার কলেজের ক্লাসমেটদের কিছু ছবি তুলেছিলেন, যা সম্প্রতি তিনি খুঁজে পান।


আর এই ছবিইগুলোই আপনাকে দেখিয়ে দেবে যে সময়ের সাথে সাথে নিজের অজান্তেই কি দারুণ ভাবে বদলে যাই আমরা!

২০০০ সালে জোসেফিন প্রিন্সটন ইউনিভার্সিটির একজন জুনিয়র ছাত্রী ছিলেন। সেই সময়ে তিনি তার সকল বন্ধুবান্ধবদের ছবি তুলে তার বাবা-মায়ের ক্লজেটে তুলে রেখে দিয়েছিলেন। কিন্তু এই বছরের বসন্তে তার কলেজের পনের বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে পুনর্মিলনি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হলে জোসেফিন দারুণ একটি সিদ্ধান্ত নেন। তিনি সিদ্ধান্ত নেন, সতের বছর আগে তোলা সকল বন্ধুর ছবি আবারো একইভাবে তুলবেন!


তার এই সিদ্ধান্তের ফলাফল হলো “রিইউনিয়ন।” তার তোলা বিফোর-আফটার ছবিগুলো যেন, এক মুহুর্তেই তার পুরনো দিনের মাঝে ফিরিয়ে নিয়ে গিয়েছিল। জোসেফিনের তোলা তার বন্ধুদের এই সকল বিফোর-আফটার ছবিগুলো জানিয়ে দেয়, সময় কত দ্রুত চলে যায়। আর এই সময়ের মাঝেই প্রতিটি ব্যক্তির মাঝে কি অসাধারণ পরিবর্তন তৈরি করে দেয়!

জোসেফিন জানান,“বিশ বছর বয়সে আমি অদৃশ্য ও বর্ণনার অতীত এক ধরণের অনুভূতি অনুভব করতে পারতাম। যেটা তখন বুঝতে না পারলেও এখন আমি বুঝতে ও অনুভব করতে পারছি। আমার সামনে পুরো একটা জীবন পরে রয়েছে এখন।“ বিফোর-আফটার এই ফটোশ্যূটে সকলেই ছিল খুব আত্মবিশ্বাসপুর্ন, নতুন একজন মানুষ।
Blogger দ্বারা পরিচালিত.