বিশ্বব্যাপী সিমেন্সের ৬৯০০ কর্মী ছাঁটাইয়ের পরিকল্পনায় বিক্ষোভ করেছে কর্মীরা

 

জার্মান প্রতিষ্ঠান সিমেন্স বৃহস্পতিবার জানিয়েছিল, শক্তি এবং পণ্য খাতে পরিবর্তন আনতে তারা বিশ্বব্যাপী ৬৯০০ বা ২ শতাংশ কর্মী ছাঁটাইয়ের পরিকল্পনা করছে। আর এর প্রতিবাদে ১৭ নভেম্বর শুক্রবার জার্মানের বিভিন্ন শহরে ২ হাজারের বেশি কর্মী প্রতিবাদ করছে। কেননা এই কর্মী ছাঁটাইয়ের অর্ধেকেরও বেশি জার্মানি থেকে হবে বলে জানিয়েছিল প্রতিষ্ঠানটি।


জার্মানির সবচেয়ে বড় ট্রেড ইউনিয়ন আইজি মেট্যাল ছাঁটাই পরিকল্পনা ফিরিয়ে নিতে বার্লিন এবং ফ্রাংকফুর্টে এই প্রতিবাদের ডাক দেয়। সিমেন্সের মানব সম্পদ প্রধান জ্যানিনা কুজেল শুক্রবার বলেছেন, ইউনিয়নের সাথে কথা বলার পর তারা এই পরিকল্পনা পরিবর্তন করতে পারেন। জ্বালানি ও গ্যাস বিভাগে বড় আকারের টারবাইন উৎপাদনে নাটকীয় পতন ঘটেছে। যার ফলে এই ছাঁটাইয়ের পরিকল্পনা করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।


শক্তি, যোগাযোগ, শিল্প ও চিকিৎসাবিষয়ক ইলেকট্রনিক পণ্য তৈরি করে থাকে সিমেন্স। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রতিষ্ঠানগুলোর তুলনায় নিজেদের মুনাফা কম হওয়ায় ৮১০ কোটি ডলার ব্যয় সংকোচনের পরিকল্পনা করেছে প্রতিষ্ঠানটি। পরিচালন ব্যয় ১ বিলিয়ন ডলার কমাতে ২০১৬ সালের মধ্যে বহু কর্মী ছাঁটাইয়ের পাশাপাশি অনেক অলাভজনক বিভাগও বন্ধ করারও সিদ্ধান্ত নেয় প্রতিষ্ঠানটি।

জার্মান প্রতিষ্ঠান সিমেন্স বৃহস্পতিবার জানিয়েছিল, শক্তি এবং পণ্য খাতে পরিবর্তন আনতে তারা বিশ্বব্যাপী ৬৯০০ বা ২ শতাংশ কর্মী ছাঁটাইয়ের পরিকল্পনা করছে। আর এর প্রতিবাদে ১৭ নভেম্বর শুক্রবার জার্মানের বিভিন্ন শহরে ২ হাজারের বেশি কর্মী প্রতিবাদ করছে। কেননা এই কর্মী ছাঁটাইয়ের অর্ধেকেরও বেশি জার্মানি থেকে হবে বলে জানিয়েছিল প্রতিষ্ঠানটি।