ছুটির দুপুরে মেথি পাঙ্গাস

ছুটির দুপুরে মেথি পাঙ্গাস 

পাঙ্গাস মাছ কার কার পছন্দ? এটা জিজ্ঞাসা করলে আপনি পছন্দের সংখ্যা কম পাবেন। কারণ অনেকেই স্বাদ,গন্ধ নানা কারণে পাঙ্গাস মাছ পছন্দ করেন না। আবার অনেক সময় ভালো মতো রান্না করতে না পারার করণে পাঙ্গাস মাছের স্বাদ, বিস্বাদ হয়ে যায়। তবে আজ আমরা যে রেসিপিটা আপনাকে জানবো সেটা খেলে আপনি রীতিমতো পাঙ্গাসের ভক্ত হয়ে যাবেন। আসুন তাহলে দেখে নেই পাঙ্গাসের নতুন রেসিপি মেথি পাঙ্গাস।


উপকরণ:


পাঙ্গাশ মাছ ৭-৮ টুকরা।
টক দই ২ টেবিল-চামচ।
মেথিবাটা আধা চা-চামচ।
শুকনামরিচ ১-২টি।
লেবুর রস ১ টেবিল-চামচ।
পেঁয়াজবাটা আধা কাপ।
রসুনবাটা আধা চা-চামচ।
আদাবাটা আধা চা-চামচ।
হলুদগুঁড়া আধা চা-চামচ।
মরিচগুঁড়া ১ চা-চামচ।
ধনেগুঁড়া ১/৪ চা-চামচ।
ভাজা জিরাগুঁড়া আধা চা-চামচ।
আস্ত জিরা ১/৪ চা চামচ।
চিনি আধা চা-চামচ।(ইচ্ছা)
এলাচ ২-৩টি।
দারুচিনি ১টি।
তেজপাতা ১টি।
লবঙ্গ ২-৩টি।
তেল পরিমাণ মতো।
লবণ স্বাদ মতো।

প্রণালি:

মাছের টুকরাগুলো ধুয়ে অল্প লবণ, হলুদ আর লেবুর রস দিয়ে মাখিয়ে রাখুন। ৩০ মিনিট পর ধুয়ে নিন। এবার কড়াইতে তেল গরম করে, মাছের টুকরাগুলো হালকা ভেজে তুলে রাখুন।

একই তেলে জিরা, শুকনামরিচ আর গরমমসলার ফোঁড়ন দিয়ে পেঁয়াজ, আদা, রসুনবাটা দিয়ে কিছুক্ষণ কষিয়ে নিন। তারপর সামান্য পানি দিন।

এরপর হলুদ, মরিচ, ধনে, জিরাগুঁড়া, লবণ, মেথিবাটা দিয়ে আবারো কষিয়ে দই আর চিনি দিয়ে নেড়েচেড়ে দিন।

এবার ভাজামাছগুলো দিয়ে ঢেকে রান্না করুন। প্রয়োজনে একটু পানি দিতে হবে। যদি মাখা মাখা ঝোল রাখতে চান তাইলে অল্প আঁচে রেখে ঝোল শুকিয়ে নিন। আর ঝোল বেশি রাখতে চাইলে পানি দেওয়ার পর ঝোল ফুটে রান্না হয়ে গেলেই নামিয়ে ফেলুন।

পাঙ্গাস মাছ কার কার পছন্দ? এটা জিজ্ঞাসা করলে আপনি পছন্দের সংখ্যা কম পাবেন। কারণ অনেকেই স্বাদ,গন্ধ নানা কারণে পাঙ্গাস মাছ পছন্দ করেন না। আবার অনেক সময় ভালো মতো রান্না করতে না পারার করণে পাঙ্গাস মাছের স্বাদ, বিস্বাদ হয়ে যায়। তবে আজ আমরা যে রেসিপিটা আপনাকে জানবো সেটা খেলে আপনি রীতিমতো পাঙ্গাসের ভক্ত হয়ে যাবেন। আসুন তাহলে দেখে নেই পাঙ্গাসের নতুন রেসিপি মেথি পাঙ্গাস।