এবার পার্লামেন্টে গড়াচ্ছে ‘পদ্মাবতী’ বিতর্ক

এবার পার্লামেন্টে গড়াচ্ছে ‘পদ্মাবতী’ বিতর্ক 

সঞ্জয়লীলা বানসালির ‘পদ্মাবতী’ সিনেমা নিয়ে চলমান বিতর্ক শেষ হচ্ছেই না। এবার তা ভারতের পার্লামেন্ট পর্যন্ত গড়াচ্ছে। আগামী ১৬ ডিসেম্বর শুরু হতে যাওয়া শীতকালীন অধিবেশনে অভিনেত্রী জয়া বচ্চন বিষয়টি উত্থাপন করবেন বলে জানা গেছে।


বচ্চন পরিবারের একটি সূত্র জানিয়েছে, সিনেমাটি তৈরির সময় রাজস্থানে বানসালি লাঞ্ছিত হওয়ার সময়ই তা পার্লামেন্টে উত্থাপন করেন জয়া বচ্চন। এবার তিনি বিষয়টি আরও শক্তভাবে উপস্থাপন করবেন। পার্লামেন্টে বলিউডের অন্য সদস্যরা তাকে সমর্থন করবেন বলে তিনি আশা করছেন। আর কেউ সমর্থন না করলেও তিনি বিষয়টি সবার নজরে আনবেন।

‘পদ্মাবতী’ বিতর্ক সহিংসতার দিকে মোড় নেওয়ার সময় থেকেই বচ্চন পরিবার বিষয়টির ওপর নজর রাখছে। বচ্চন পরিবারের সব সদস্যের সঙ্গে পরিচালক সঞ্জয়লীলা বানসালির ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে। অমিতাভ বচ্চন তার ‘ব্ল্যাক’ সিনেমায় কাজ করেছেন। অভিষেক বচ্চন বানসালির পরের সিনেমায় কাজ করবেন। আর ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনের সঙ্গে তার আগে থেকেই ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে।

‘ইতিহাস বিকৃতি হচ্ছে’- এমন দাবি করে চলতি বছরের জানুয়ারিতে রাজপুত কার্নি সেনার কর্মীরা জয়পুরের নাহারগড় কেল্লায় ঢুকে ছবিটির শুটিংয়ে বাধা দেয়। এমনকি সেট, ক্যামেরা ভাঙাসহ বানসালির গায়েও হাত তোলে তারা। এ কারণে শুটিং বন্ধ করে দিতে হয়েছিল বানসালিকে। এর আগে গত বছর কোলাপুরেও বাধাগ্রস্ত হয় এর কাজ। তখন প্রপস ও কস্টিউমের ক্ষতি হয়েছিল।


অনেক গোষ্ঠী দাবি করে, রানী পদ্মাবতী ও আলাউদ্দিন খিলজির একটি প্রেমের দৃশ্য রয়েছে ছবিতে। যা ইতিহাসে উল্লেখ নেই। তবে ছবির নির্মাতা এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। ইতিহাসবিদরা নিশ্চিত নন পদ্মীনী নামে আসলেই কেউ ছিলেন কি না।

এ ছবির প্রধান তিন চরিত্রে আছেন দীপিকা, শহিদ কাপুর ও রণবীর সিং।

সঞ্জয়লীলা বানসালির ‘পদ্মাবতী’ সিনেমা নিয়ে চলমান বিতর্ক শেষ হচ্ছেই না। এবার তা ভারতের পার্লামেন্ট পর্যন্ত গড়াচ্ছে। আগামী ১৬ ডিসেম্বর শুরু হতে যাওয়া শীতকালীন অধিবেশনে অভিনেত্রী জয়া বচ্চন বিষয়টি উত্থাপন করবেন বলে জানা গেছে।