ত্বকের স্বাভাবিক সৌন্দর্য রক্ষায় আমন্ড অয়েল

ত্বকের স্বাভাবিক সৌন্দর্য রক্ষায় আমন্ড অয়েল 

ত্বকের স্বাভাবিক রং ও উজ্জ্বলতার আবেদন সবসময়ই অনেক বেশী। প্রাকৃতিকভাবেই একজন নারীর ত্বকে প্রকৃতি প্রদত্ত এই বৈশিষ্ট্য দুইটি থাকে। তবে সময়ের সাথে সাথে কমে যেতে থাকে ত্বকের এই স্বাভাবিক সৌন্দর্য। ত্বক হারিয়ে ফেলে তার হারিয়ে উজ্জ্বলতা ও রং। আবহাওয়াগত সমস্যা, চারপাশের পরিবেশের দূূূ ষণ, বিভিন্ন ধরণের কেমিক্যালযুক্ত পণ্য ব্যবহার এক্ষেত্রে অনেকটা দায়ী।


তবে আশার কথা হচ্ছে প্রাকৃতিক দারুণ একটি তেল ত্বকের স্বাভবিক ধর্ম ফিরিয়ে আনতে দারুণ কার্যকরি। দারুণ এই তেলটি হচ্ছে আমন্ড অয়েল। কাঠবাদাম থেকে তৈরিকৃত এই তেলের সাথে অন্যান্য প্রাকৃতিক উপাদান মিশিয়ে তৈরি করে ফেলা যায় ত্বকের যত্নে চমৎকার কিছু মিশ্রণ। যা সাহায্য করবে ত্বকের স্বাভাবিক রং ও উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনতে।

আমন্ড অয়েলের সাথে মধু


আধা চা চামচ আমন্ড অয়েল এবং মধু মিশিয়ে পুরো মুখে মাখিয়ে সারারাতের জন্য রেখে দিতে হবে। সকালে কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। সপ্তাহে ২-৩ বার ব্যবহার করলেই হবে।

আমন্ড অয়েলের সাথে অ্যালোভেরা জেল


আধা চা চামচ আমন্ড অয়েলের সাথে এক চা চামচ অ্যালোভেরা জেল মেশাতে হবে। মিশ্রণটি মুখের ত্বকের ৫-১০ ভালোভাবে ঘসতে হবে। এরপর হালকা ধাঁচের কোন ক্লিনজার ও কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিতে হবে। সপ্তাহে ২-৩ বার ব্যবহার করাই যথেষ্ট। 

আমন্ড অয়েলের সাথে গোলাপ জল


আধা চা চামচ আমন্ড অয়েলের সাথে এক চা চামচ গোলাপ জল মিশিয়ে মুখে মাখাতে হবে। সারারাতের জন্য রেখে দিয়ে সকালে হালকা ধাঁচের ক্লিনজার ও কুসুম গরম পানির সাহায্যে মুখ ধুয়ে নিতে হবে। দ্রুত ফলাফল পেতে সপ্তাহে ৩-৪ বার এই মিশ্রণ ব্যবহার করতে হবে।

আমন্ড অয়েলের সাথে দুধ


আধা চা চামচ আমন্ড অয়েল এবং দুই চা চামচ দুধ একসাথে ভালভাবে মিশিয়ে নিতে হবে। এই মিশ্রণকে ফেসিয়াল ক্লিনজার হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। তুলার বলের সাহায্যে পুরো মুখে এই মিশ্রণ ভালোভাবে মাখিয়ে নিয়ে কুসুম গরম পানিতে মুখ ধুয়ে নিতে হবে। এক সপ্তাহের মাঝে দুইবার এই মিশ্রণ ব্যবহার করাই যথেষ্ট।

আমন্ড অয়েলের সাথে ব্রাউন সুগার


এক টেবিল চামচ আমন্ড অয়েলের সাথে এক চা চামচ পরিমাণ ব্রাউন সুগার মিশিয়ে নিতে হবে ভালোভাবে। তৈরিকৃত স্ক্রাব ত্বকে ভালোভাবে ম্যাসাজ করতে হবে ৫-৮ মিনিট। ম্যাসাজ শেষে কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিতে হবে। ত্বকের রং ফিরে পেতে প্রতি সপ্তাহে একবার এই মিশ্রণ ব্যবহার করতে হবে।

আমন্ড অয়েলের সাথে লেবুর রস


আধা চা চামচ আমন্ড অয়েলের সাথে এক চা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে মুখের ত্বকে মাখাতে হবে। এরপর ৫-১০ মিনিট সময় অপেক্ষা করে কুসুম গরম পানিতে মুখ ভালোভাবে ধুয়ে নিতে হবে। ত্বকের স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা ফিরে পেতে সপ্তাহে ২-৩ বার এই মিশ্রণ ব্যবহার করতে হবে।

আমন্ড অয়েলের সাথে গ্রিন টি


আধা চা চামচ পরিমাণ আমন্ড অয়েলের সাথে কে চা চামচ পরিমাণ গ্রিন টি মিশিয়ে মুখে ভালোভাবে ম্যাসাজ করতে হবে। কিছুক্ষন পর হালকা ধাঁচের ক্লিনজার ও কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিতে হবে। প্রতি সপ্তাহে একবার এই মিশ্রণ ব্যবহার করাই যথেষ্ট।

আমন্ড অয়েলের সাথে শসা


কয়েক টুকরো শসা ভালোভাবে থেঁতলে নিয়ে তার সাথে এক চা চামচ পরিমাণ আমন্ড অয়েল মেশাতে হবে। পুরো মুখে মিশ্রণটি মাখিয়ে ১-৫ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। এরপর কুসুম গরম পানিতে মুখ ধুয়ে নিতে হবে। চমৎকার এই মিশ্রণটি সপ্তাহে দুইবার ব্যবহার করতে হবে।

ত্বকের স্বাভাবিক রং ও উজ্জ্বলতার আবেদন সবসময়ই অনেক বেশী। প্রাকৃতিকভাবেই একজন নারীর ত্বকে প্রকৃতি প্রদত্ত এই বৈশিষ্ট্য দুইটি থাকে। তবে সময়ের সাথে সাথে কমে যেতে থাকে ত্বকের এই স্বাভাবিক সৌন্দর্য। ত্বক হারিয়ে ফেলে তার হারিয়ে উজ্জ্বলতা ও রং। আবহাওয়াগত সমস্যা, চারপাশের পরিবেশের দূূূ ষণ, বিভিন্ন ধরণের কেমিক্যালযুক্ত পণ্য ব্যবহার এক্ষেত্রে অনেকটা দায়ী।