হালদা’ যাচ্ছে বিশ্বের ২০টি প্রেক্ষাগৃহে

 হালদা’ যাচ্ছে বিশ্বের ২০টি প্রেক্ষাগৃহে

১ ডিসেম্বর সারাদেশের ৮০’র অধিক প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে তৌকীর আহমেদের ‘হালদা’। প্রথম দিন থেকে দর্শক-সমালোচকদের কাছ থেকে মিলছে ছবিটি নিয়ে পজেটিভি রিভিউ।


নতুন খবর হলো, ‘হালদা’ এবার দেশ ছাড়িয়ে যাচ্ছে আমেরিকা, কানাডা, ওমান এবং আরব-আমিরাতের (ইউএই) বিভিন্ন শহরের ২০টি প্রেক্ষাগৃহে। না, কোনও চলচ্চিত্র উৎসবে অংশ নিতে নয়, ছবিটি যাচ্ছে এসব দেশে বাণিজ্যিক প্রদর্শনের জন্য।

খবরটি  নিশ্চিত করেছে ছবিটির আন্তর্জাতিক পরিবেশক সংস্থা স্বপ্ন স্কোয়ারক্রো।
প্রতিষ্ঠানটির প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ অলিউল্লাহ সজীব জানান, ৮ ডিসেম্বর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের ৫টি শহরের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে ‘হালদা’। শহরগুলো হলো নিউইয়র্ক, লস অ্যাঞ্জেলস, ডালাস, ফ্লোরিডা ও ভার্জিনিয়া। সেখানে রিগ্যাল ও সিনেমার্ক মাল্টিপ্লেক্সে দর্শকরা ছবিটি উপভোগ করতে পারবেন।
এদিকে একই দিনে ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে টরন্টোসহ কানাডার ২টি শহরে। ১৯ জানুয়ারি মুক্তি পাবে দেশটির আরও ৩টি প্রেক্ষাগৃহে।

অন্যদিকে ৮ ডিসেম্বর আমেরিকা, কানাডা ছাড়াও ‘হালদা’ মুক্তি পাচ্ছে ওমানের ৪টি প্রেক্ষাগৃহে। পর্যায়ক্রমে ইউএই-এর ৬টি শহরেও মুক্তির কথা রয়েছে ছবিটি।

‘হালদা’র প্রধান তিন চরিত্রে অভিনয় করেছেন মোশাররফ করিম, নুসরাত ইমরোজ তিশা ও জাহিদ হাসান। অন্যান্য চরিত্রে আছেন ফজলুর রহমান বাবু, রুনা খান, মোমেনা চৌধুরী, শাহেদ আলী সুজন প্রমুখ।

দক্ষিণ এশিয়ার একমাত্র প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন কেন্দ্র চট্টগ্রামের হালদা নদী ও এর দুই পাড়ের মানুষদের জীবনের গল্প আবর্তিত হয়েছে ছবিটিতে। এতে নদী ও নারীর গল্প অনবদ্য নির্মাণের মাধ্যমে তুলে ধরেছেন তৌকীর আহমেদ।

আজাদ বুলবুলের গল্পে ‘হালদা’র চিত্রনাট্য তৈরি করেছেন পরিচালক তৌকীর আহমেদ নিজেই। সংগীত পরিচালনা করেছেন পিন্টু ঘোষ।

১ ডিসেম্বর সারাদেশের ৮০’র অধিক প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে তৌকীর আহমেদের ‘হালদা’। প্রথম দিন থেকে দর্শক-সমালোচকদের কাছ থেকে মিলছে ছবিটি নিয়ে পজেটিভি রিভিউ।