তিন চাকার গাড়ি

 

কার বা গাড়ি বললেই একজন মানুষ প্রথমেই এমন যানের কথা কল্পনা করবেন যেটির সামনে দুটি এবং পেছনে দুটি চাকা রয়েছে। তবে প্রযুক্তির উন্নতিতে সবকিছুর সাধারণ ধারনাই বদলে যাচ্ছে। ক্রাউডফান্ডিং অটো স্টার্টআপ সোনদরস চার নয় তিন চাকার বৈদ্যুতিক গাড়ি ডিজাইন করেছে।


লস অ্যাঞ্জেলস অটো শো’তে এই গাড়ির প্রটোটাইপ প্রদর্শনী করেছে প্রতিষ্ঠানটি। সোনদরস-এর এই গাড়িটি স্বল্প দূরত্বের যাত্রীদের যাতায়াতের কথা মাথায় রেখে ডিজাইন করা হয়েছে। এছাড়াও প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, এই বৈদ্যুতিক গাড়ির মূল্য ১০ হাজার মার্কিন ডলারের বেশি হওয়া উচিত নয়।

গাড়ি বিষয়ক ওয়েবসাইট ইলেকট্রেক এর তথ্যানুযায়ী, এই গাড়ির চালক পছন্দমতো ও প্রয়োজন অনুযায়ী ৭৫, ১৫০ ও ২০০ মাইল পার চার্জের ব্যাটারি প্যাক নিতে পারবেন। তবে হাইওয়েতে চালানোর জন্য এই ব্যাটারি প্যাক সুবিধাজনক নয়। প্রতিষ্ঠানটি বিনিয়োগ পেলে ২০১৯ সালে এই তিন চাকার গাড়ি বাজারে আনার পরিকল্পনা করেছে।

তিন চাকার ধারণা এই প্রথম নয়। ২০১৫ সালে এলিও মোটরস গ্যাস চালিত এমন এক ধারণার গাড়ি উন্মুক্ত করেছিল। কিন্তু এখন পর্যন্ত এই গাড়ি বাজারে আনতে ব্যর্থ হয় প্রতিষ্ঠানটি।


              

কার বা গাড়ি বললেই একজন মানুষ প্রথমেই এমন যানের কথা কল্পনা করবেন যেটির সামনে দুটি এবং পেছনে দুটি চাকা রয়েছে। তবে প্রযুক্তির উন্নতিতে সবকিছুর সাধারণ ধারনাই বদলে যাচ্ছে। ক্রাউডফান্ডিং অটো স্টার্টআপ সোনদরস চার নয় তিন চাকার বৈদ্যুতিক গাড়ি ডিজাইন করেছে।