পৃথিবীতে আছড়ে পড়তে পারে ইলোন মাস্কের টেসলা রোডস্টার

পৃথিবীতে আছড়ে পড়তে পারে ইলোন মাস্কের টেসলা রোডস্টার 

 ইলোন মাস্কের কোম্পানি স্পেস এক্সের নতুন রকেট মহাকাশে পাঠানো হয়েছে দুই সপ্তাহ আগে। ফ্যালকন হেভি নামের রকেটের সঙ্গে পাঠানো হয়েছে টেসলা রোডস্টার গাড়ি নামের একটি গাড়ি। সম্প্রতি গবেষণায় দেখা গেছে, এই গাড়িটি পৃথিবীতেই আবার আছড়ে পড়ার বা ক্র্যাশ করার আশঙ্কা রয়েছে।


১৩ ফেব্রুয়ারি, মঙ্গলবার কানাডার ইউনিভার্সিটি অব টরন্টোর গবেষকরা এই তথ্য প্রকাশ করেন, জানিয়েছে আইএফএল সায়েন্স।

তাদের হিসাব অনুযায়ী আগামী এক মিলিয়ন বছরের মাঝে টেসলা রোডস্টার গাড়িটি পৃথিবীতে ক্র্যাশ করার আশঙ্কা ছয় শতাংশ।

অরবিটাল মেকানিকসে দক্ষ এই গবেষক দল এই গাড়ির জন্য সম্ভাব্য ২৪০টি ভবিষ্যৎবাণী করেন। তারা স্বীকার করেন যে, গাড়িটির এলোমেলো গতিপথের কারণে এই গবেষণায় বেশ বেগ পেতে হয়েছে তাদেরকে। তা সত্ত্বেও দূর ভবিষ্যতে কী হতে পারে তা হিসাব করে বের করা সম্ভব।

‘আমরা সব সফটওয়ার প্রস্তুত করে রেখেছিলাম, আর গত সপ্তাহে উৎক্ষেপণ হওয়ার পর আমরা ভাবলাম, দেখি কী হয়। আমরা টেসলার গতিপথ কয়েক মিলিয়ন বছর পর কী হতে পারে তা হিসাব করে দেখলাম’, সায়েন্স ম্যাগাজিনকে বলেন গবেষণার মূল লেখক হ্যানো রেইন।

গাড়িটি বর্তমানে দেড় বছরের লম্বা একটি কক্ষপথে আবর্তিত হচ্ছে যার ফলে সে মোটামুটি মঙ্গলগ্রহের কাছাকাছি পৌঁছে যায়। গবেষকরা দেখেন, ২০৯১ সাল নাগাদ পৃথিবীর কাছাকাছি আসবে তা। পৃথিবী থেকে টেলিস্কোপ দিয়েও তাকে দেখা যেতে পারে। এর পর অনেক কিছুই হতে পারে।

কিছু কিছু ক্ষেত্রে দেখা যায়, আগামী এক মিলিয়ন বছরে শুক্র গ্রহের সাথে সংঘর্ষ হবে তার। আগামী ৩ মিলিয়ন বছরের মাঝে তা সূর্যেও পতিত হতে পারে। আগামী কয়েক কোটি বছর এই গাড়ি অক্ষত থাকার সম্ভাবনা ৫০ শতাংশ।

হ্যানো রেইন জানান, পৃথিবীতে আছড়ে পড়লেও তা বায়ুমন্ডলে বাতাসের ঘর্ষণেই ক্ষয় হয়ে যাবে অনেকটা। এতে পৃথিবীর মানুষের কোনো ক্ষতি হবে না।

ইলোন মাস্কের কোম্পানি স্পেস এক্সের নতুন রকেট মহাকাশে পাঠানো হয়েছে দুই সপ্তাহ আগে। ফ্যালকন হেভি নামের রকেটের সঙ্গে পাঠানো হয়েছে টেসলা রোডস্টার গাড়ি নামের একটি গাড়ি। সম্প্রতি গবেষণায় দেখা গেছে, এই গাড়িটি পৃথিবীতেই আবার আছড়ে পড়ার বা ক্র্যাশ করার আশঙ্কা রয়েছে।