তারা প্রতিদ্বন্দ্বী হলেও একই সুতোয় গাঁথা!

 তারা প্রতিদ্বন্দ্বী হলেও একই সুতোয় গাঁথা!

 নির্বাচনের আসরে তারা একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বী। কেউ নিজেদের দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন, আবার কেউ স্বতন্ত্র হয়ে নির্বাচনে দাঁড়িয়েছেন। নির্বাচনের মাঠে একে অপরের খুত ধরার চেষ্টা চালালেও দিন শেষে তারা বন্ধু এবং একই সুতোয় গাঁথা।


কথা হচ্ছিল বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) নির্বাচনে অংশ নেওয়া প্রার্থীদের নিয়ে। সম্প্রতি বেসিস নির্বাচনে অংশ নেওয়া প্রার্থীদের অধিকাংশকেই দেখা গেছে এক ছাদের নিচে। তারা মেতেছিলেন নিজেদের মধ্যে গল্প-আড্ডায়। নির্বাচনের আগে ব্যস্ত সময়ে তারা এক হয়েছিলেন তথ্য ও প্রযুক্তিবিষয়ক সাংবাদিকদের সংগঠন বাংলাদেশ আইসিটি জার্নালিস্ট ফোরামের (বিআইজেএফ) চড়ুইভাতিতে।

সেখানে আসা বেসিস নির্বাচনে দাঁড়ানো প্রার্থীরা জানান, তারা নির্বাচনে দাঁড়ালেও কেউ কারো শত্রু নন। মিলিতভাবে কাজ করতে চান তারা। অনেকেই জানিয়েছেন, প্যানেল করতে হয় বলেই তারা করেছেন। এর বেশি কিছু না। তবে সবাই জানান, যে-ই হারুক বা জিতুক, তারা সবাই এক হয়ে বেসিসকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যেতে চান।

চড়ুইভাতিতে দেখা গেছে  ‘উইন্ড অব চেঞ্জ’ প্যানেলের সদস্য স্টার কম্পিউটার সিস্টেম লিমিটেডের ডিরেক্টর ও সিওও রেজওয়ানা খান, ‘টিম দুর্জয়’ প্যানেলের নেতৃত্বদানকারী ফ্লোরা টেলিকম লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোস্তফা রফিকুল ইসলাম, ‘টিম হরাইজনে’র লিডার ও ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান মেট্রোনেটের সিইও আলমাস কবির, অনলাইন মার্কেটপ্লেস আজকের ডিলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ফাহিম মাসরুরসহ অন্যদের।

এ বিষয়ে আলমাস কবির বলেন, ‘বিআইজেএফের পিকনিকে আমরা যে সময়টি কাটিয়েছি তা আসলেই অনেক সুন্দর একটি সময়। কার নির্বাচনী প্রচারণার কী অবস্থা। এ ছাড়া আমি সবার কাছেই অনুরোধ করেছি যেন আমাদের মধ্যে ভালো একটি প্রতিযোগিতার ক্ষেত্র তৈরি হলেও আমাদের মধ্যে যে ভালো সম্পর্ক রয়েছে তা সব সময়ই থেকে যায়।’

ফাহিম মাসরুর বলেন, ‘এটি এত বড় একটি ইন্ডাস্ট্রি, যেখানে দলীয় কোনো ব্যাপার থাকাই উচিত নয়। নির্বাচনের কারণে একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বী হতেই পারে। কিন্তু এখনো আমরা বন্ধু, নির্বাচন শেষেও আমরা বন্ধু।’

নির্বাচনের আসরে তারা একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বী। কেউ নিজেদের দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন, আবার কেউ স্বতন্ত্র হয়ে নির্বাচনে দাঁড়িয়েছেন। নির্বাচনের মাঠে একে অপরের খুত ধরার চেষ্টা চালালেও দিন শেষে তারা বন্ধু এবং একই সুতোয় গাঁথা।