এবার যৌন হয়রানির অভিজ্ঞতা জানালেন লোপেজ

এবার যৌন হয়রানির অভিজ্ঞতা জানালেন লোপেজ 

হলিউডের অনেক অভিনেত্রীর মতো ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে জেনিফার লোপেজও যৌন হয়রানির শিকার হয়েছিলেন। কিন্তু ওই অযৌক্তিক চাহিদা মেনে নেননি তিনি।


তার দাবি, একজন পরিচালক তাকে অপ্রয়োজনে শরীর দেখাতে বলেছিলেন। এ কারণে অস্বস্তিকর লাগছিল তার। সম্প্রতি হারপার’স বাজার ম্যাগাজিনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমন তথ্য জানান তিনি। তবে পরিচালকের নাম উল্লেখ করেননি ৪৮ বছর বয়সী এই তারকা।

সাক্ষাৎকারে মার্কিন অভিনেত্রী-গায়িকা লোপেজ বলেন, ‘হলিউডের অন্য নারীদের মতো একইরকম নির্যাতনের শিকার হইনি। কিন্তু একজন পরিচালক আমাকে শার্ট খুলে দেখাতে বলেছিলেন। আমি কি তার কথা মেনে নিয়েছিলাম? না, আমি মেনে নিইনি। যখন না বলে দিলাম, নিজেকে আতঙ্কিত লাগছিল। মনে পড়ছে, আমার বুক কাঁপছিল খুব। ভাবছিলাম, এ কী করেছি আমি? এই মানুষটাই তো আমাকে কাজের সুযোগ দিয়েছেন!’

ওই ছবি ছিল লোপেজের শুরুর দিককার। হারপার’স বাজার ম্যাগাজিনে তার এই সাক্ষাৎকারের পুরো অংশ প্রকাশ হবে আগামী ২৭ মার্চ।

প্রযোজক হার্ভি ওয়াইনস্টিনসহ হলিউডের বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানি ও ধর্ষণের অভিযোগ ওঠার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে ‘মি টু হ্যাশট্যাগ’ আন্দোলন। এর অংশ হিসেবে অনেকে হয়রানি ও নির্যাতনের অভিজ্ঞতা জানিয়েছেন। এবার যৌন হয়রানি নিয়ে মুখ খুলেছেন লোপেজ।

সত্তর দশকে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক সিটির ব্রনক্স শহরে বেড়ে ওঠাই তাকে অন্যায়কে প্রত্যাখ্যান করতে শিখিয়েছে বলে মনে করেন জেনিফার লোপেজ। নৃত্যশিল্পী ও গায়িকা হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন তিনি। পরে নাম লেখান চলচ্চিত্রে।

জেনিফার লোপেজ এখন এনবিসি নেটওয়ার্কের ক্রাইম ড্রামা সিরিজ ‘শেডস অব ব্লু’র কাজ করছেন। এতে তাকে দেখা যাচ্ছে পুলিশ কর্মকর্তার ভূমিকায়। তার হাতে এখন আরও আছে ‘সেকেন্ড অ্যাক্ট’ নামের একটি ছবি।

হলিউডের অনেক অভিনেত্রীর মতো ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে জেনিফার লোপেজও যৌন হয়রানির শিকার হয়েছিলেন। কিন্তু ওই অযৌক্তিক চাহিদা মেনে নেননি তিনি।